শিনমায়য়া ইউএস ২

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইউএস-২
শিনমায়য়া ইউএস-২
ভূমিকা আকাশ-সমুদ্রে উদ্ধারকারী উভচর
নির্মাতা শিনমায়য়া
প্রথম উড্ডয়ণ ১৮ ডিসেম্বর ২০০৩
প্রবর্তন ৩০ মার্চ ২০০৭
অবস্থা উৎপাদন
মুখ্য ব্যবহারকারী জাপান সামুদ্রিক আত্মরক্ষা বাহিনী
নির্মিত হচ্ছে ২০০৩–বর্তমান
নির্মিত সংখ্যা ৪ (৩ প্রত্যাশিত)
উন্নয়নকৃত শিনমায়য়া ইউএস-১এ

শিনমায়য়া ইউএস-২ হল একটি জাপানি বৃহৎ স্টোল উভচর বিমান, যা আকাশ-সমুদ্রে উদ্ধারকার্যের (এসএআর) জন্য নকশা করা হয়েছে। এটি জাপান মেরিটাইম সেফ ডিফেন্স ফোর্স দ্বারা পরিচালিত এবং জাপানী সেনাবাহীনির পরিষেবাতে পুরোনো শিনায়য়া ইউএস-১এ প্রতিস্থাপন করার জন্য ইউএস-২ নির্ধারিত হয়।

নকশা এবং উন্নয়ন[সম্পাদনা]

শিনমায়য়া ইউএস-১এ উভচর বিমানগুলি নৌবাহিনীতে যাত্রা শুরু করে ১৯৭০ এর দশকের শুরুতে। বিমানগুলি তার কর্ম জীবনের শেষে পৌঁছতে শুরু করলে, জেএমডিএফ ১৯৯০ সালে এই উভচর বিমানগুলির পরিবর্তনের জন্য অর্থায়ন লাভের চেষ্টা করে। কিন্তু সম্পূর্ণ উন্নত নতুন উভচর বিমান তৈরির জন্য অর্থায়ন লাভ করতে পারেনি। অতএব, ১৯৯৫ সালে, শিনমায়য়া (যেহেতু শিন মেইয়া এর নামকরণ করা হয়েছিল) "ইউএস-১এ" এই উড়োজাহাজের উন্নয়নের জন্য পরিকল্পনা শুরু করে। এই নতুন উভচর বিমানে অনেকগুলি অ্যারোডায়নামিক রিফিনমেন্ট, একটি চাপযুক্ত হুল এবং আরও শক্তিশালী রোলস-রয়েস এই ২১০০ ইঞ্জিন রয়েছে। বিমানটির পরীক্ষা ১৮ ডিসেম্বর ২০০৩ সাল থেকে শুরু হয়। জেএমডিএফ ১৪ টি উড়োজাহাজ "শিনমায়য়া" থেকে ক্রয় করেছিল, যা শিনমায়ওয়া ইউএস -২ হিসেবে পরিচত।

পরিচালনার ইতিহাস[সম্পাদনা]

শিনমায়য়া ইউএস-২ অনুসন্ধান এবং উদ্ধারকারী উভচর বিমান

বর্তমানে বিমানগুলি পরিচালিত হয় ৩১ তম ফ্লিট এয়ার উইং (৭১ তম এয়ার ফোর্স, ৭১ তম ফ্লাইট স্কোয়াড্রন) ইওয়াকুনি এয়ার বেস এবং এটসুজি এয়ার বেস থেকে। এপ্রিল ২০১৫ সালে বিমান ৯৯০৫ একটি দুর্ঘটনায় পড়ে ছিল। [১] দূর্ঘটনার সময় বিমানটি শিকোকুর অন্তর্গত কেক আশিউরির কাছে একটি প্রশিক্ষণ মিশনে ছিল এবং চারজন ক্রু সদস্যদের আহত করা হয়। [২]

রপ্তানি[সম্পাদনা]

ভারতীয় নৌবাহিনী ১২ থেকে ১৮ টি অনুসন্ধান ও উদ্ধারকারী "ইউএস-২" উভচর বিমান ক্রয়ের চেষ্টা চালাচ্ছে, এর জন্য প্রয়োজন $ ১ কোটি ৬৫ বিলিয়ন ডলারের। আশা করা হচ্ছে যে এই উভচর বিমানগুলি আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে স্থাপন করা হবে ।[৩][৪] অক্টোবর ২০১৬ সালে,[৫] শিনমায়য়া প্রতি বিমানের মূল্য প্রায় $ ১১৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার হ্রাস করে।[৬] আশা করা হয়েছিল যে নভেম্বরে ২০১৬ সালের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে,[৭] কিন্তু ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মনোহর পার্রিকর চুক্তি সাক্ষরে বিলম্বিত করে।[৮][৯] ২০১৮ সালের মার্চ মাসে ভারত থেকে জাপানের রাষ্ট্রদূত কেনি হিরামাতসু দ্য হিন্দু বিজনেস লাইনকে বলেন বিমান ক্রয়ের জন্য আলোচনা এখনো চলছে।[১০]

এছাড়াও রিপোর্ট আছে থাইল্যান্ড ইউএস-২ বিমান ক্রয়ে আগ্রহী হয়েছে।[১১]

ইন্দোনেশিয়া অন্যতম সম্ভাব্য গ্রাহক।[১২]

পরিচালক[সম্পাদনা]

জাপান[সম্পাদনা]

বিশেষ বৈশিষ্ট (ইউএস-২)[সম্পাদনা]

একটি জেএমএসডিএফ ইউএস-২ বিমান হানেদা বিমানবন্দরে

শিনমায়য়া[১৩][১৪][১৫] থেকে তথ্য

সাধারণ বৈশিষ্ট্য

  • ক্রু: ১১
  • ধারণক্ষমতা: ২০ জন যাত্রী অথবা ১২ টি স্ট্রেচার
  • দৈর্ঘ্য: ৩৩.৪৬ মি (১০৯ ফু ৯ ইঞ্চি)
  • ডানার মোট বিস্তার: ৩৩.১৫ মি (১০৮ ফু ৯ ইঞ্চি)
  • Height: ৯.৮ মি (৩২ ফু ২ ইঞ্চি)
  • উইং এলাকা: ১৩৫.৮ মি (১,৪৬২ ফু)
  • খালি অবস্হায় ওজন: ২৫,৬৩০ কেজি (৫৬,৫০৪ পা)
  • নীট ওজন: ৪৩,০০০ কেজি (৯৪,৭৯৯ পা) জল থেকে উড়ান
  • Max takeoff weight: ৪৭,৭০০ কেজি (১,০৫,১৬০ পা) স্থল থেকে উড়াণ
  • Powerplant: 4 × রোলস-রায়েস এই ২১০০ টার্বোপ্রপ, ৩,৪২৪ কিওয়াট (৪,৫৯২ অশ্বশক্তি) each
  • Powerplant: 1 × এলএইচটিইসি টি৮০০ সীমানা স্তর নিয়ন্ত্রণ টার্বশ্যাফ্ট সংকোচকারী, ১,০১৭ কিওয়াট (১,৩৬৪ অশ্বশক্তি)
  • Propellers: 6-bladed Dowty R414

Performance

  • সর্বোচ্চ গতিসীমা: ৫৬০ কিমি/ঘ (৩৪৮ মা/ঘ; ৩০২ নট)
  • Cruising speed: ৪৮০ কিমি/ঘ (২৯৮ মা/ঘ; ২৫৯ নট) at ৬,০০০ মি (২০,০০০ ফু)
  • Range: ৪,৭০০ কিমি (২,৯২০ মা; ২,৫৩৮ নটিক্যাল মাইল)
  • Service ceiling: ৭,১৯৫ মি (২৩,৬০৬ ফু)
  • Takeoff distance on ground at MTOW: ৪৯০ মি (১,৬১০ ফু)
  • এমটিওডব্লু-এ স্থলয়ে ল্যান্ডিং দূরত্ব: ১,৫০০ মি (৪,৯০০ ফু)
  • সম্পূর্ণ বোঝাই অবস্থায় জলে উড়াণ দূরত্ব: ২৮০ মি (৯২০ ফু)
  • সম্পূর্ণ বোঝাই অবস্থায় জলে অবতরন দূরত্ব: ৩৩০ মি (১,০৮০ ফু)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ShinMaywa US-2 involved in major accident at sea April 29, 2015) 'ফ্লাইটগ্লোবাল' 'ডিসেম্বর 9, ২013 উদ্ধার করা হয়েছে
  2. বিমান দুর্ঘটনা শিনমায়য়া ইউএস ২ ৯৯০৫ "বিমান নিরাপত্তা নেটওয়ার্ক" ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬ উদ্ধার
  3. "For First Time Since World War 2, Japan Will Sell Military Equipment. To India"NDTV। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  4. Chandra, Atul (৪ সেপ্টেম্বর ২০১৪)। "India looks to acquire 18 ShinMaywa US-2 amphibians"Flightglobal। Bangalore: Reed Business Information। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০১৫ 
  5. Waldron, Greg (১২ অক্টোবর ২০১৬)। "JAPAN AEROSPACE: India US-2 deal sees no progress"Flightglobal। সংগ্রহের তারিখ ১৫ অক্টোবর ২০১৬ 
  6. Raghuvanshi, Vivek (২০ অক্টোবর ২০১৬)। "India Resolves US-2 Aircraft Price Issue With Japan"www.defensenews.com। Sightline Media Group। সংগ্রহের তারিখ ২০ অক্টোবর ২০১৬ 
  7. Japan, India likely to ink pivotal US-2 aircraft deal November 6, 2016 Japan Times Retrieved November 28, 2016
  8. Defence minister Manohar Parrikar defers Rs 10,000 crore deal for 12 Japanese aircraft November 10, 2016 India Today Retrieved November 28, 2016
  9. GOVT OK’S NEW BLACKLISTING POLICY, RS 80K-CR DEF DEALS November 8, 2016 The Pioneer Retrieved November 28, 2016
  10. Basu, Nayanima (২১ মার্চ ২০১৮)। "India must provide high-quality products to meet Japan consumers' expectations: Envoy"www.thehindubusinessline.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৮ 
  11. Thailand Mulling Purchase of Japanese Sub-Hunting Aircraft June 7, 2016 The Diplomat Retrieved December 9, 2016
  12. Indo Defence 2016: ShinMaywa inches towards US-2 sale to Indonesia November 4, 2016 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ডিসেম্বর ২০, ২০১৬ তারিখে Jane's
  13. "Performance of the State-of-the-Art US-2: US-2 Specifications"ShinMaywa। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০১৫ 
  14. Lake, Jon (নভেম্বর ২০০৫)। "ShinMaywa's Innovative Amphibian"। Air International। Stamford: Key Publishing। 69 (5): 26–30। আইএসএসএন 0306-5634 
  15. "US-2: STOL Search and Rescue Amphibian" (pdf)। ShinMaywa। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]