লাল পান্ডা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
লাল পান্ডা
একটি লাল পান্ডা জমির ওপরে দাঁড়িয়ে
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: Mammalia
বর্গ: মাংশাশী
পরিবার: Ailuridae
গণ: Ailurus
F. Cuvier, 1825
প্রজাতি: A. fulgens
F. Cuvier, 1825
দ্বিপদী নাম
Ailurus fulgens
F. Cuvier, 1825
Subspecies

A. f. fulgens F. Cuvier, 1825
A. f. styani Thomas, 1902[২] [৩]

মানচিত্রে লাল পান্ডার পরিধি দেখানো হয়েছে
লাল পান্ডার পরিধি

লাল পান্ডা (Ailurus fulgens), যা ক্ষুদ্র পান্ডা এবং লাল বিড়াল রূপী ভাল্লুক নামেও পরিচিত হল একটি ছোট প্রাণী যাদের প্রধানত দেখা মেলে হিমালয় অঞ্চলে এবং দক্ষিণ চিন অঞ্চলে। এই প্রজাতিটি আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংঘের বিচারে বিপন্ন প্রজাতি হিসেবে মনে করা হয়। এর কারণ হল এদের সংখ্যা ১০,০০০ এরও অনেক কম বলে ধরা হয়। এদের সংখ্যা কমে আসার প্রধান কারণ গুলো হল বাসস্থানের ক্ষতি হয়ে এদের বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া, চোরাশিকারীর উৎপাত, প্রজননের বিষন্নতা ইত্যাদি। যদিও লাল পান্ডারা দেশে তাদের পরিসীমার মধ্যে দেশীয় আইন দ্বারা সুরক্ষিত থাকে।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Wang, X., Choudhry, A., Yonzon, P., Wozencraft, C., Than Z. (২০০৮)। "Ailurus fulgens"বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা। সংস্করণ 2012.2প্রকৃতি সংরক্ষণের জন্য আন্তর্জাতিক ইউনিয়ন 
  2. Thomas, O. (১৯০২)। "On the Panda of Sze-chuen"Annals and Magazine of Natural History। Seventh Series। X। London: Gunther, A.C.L.G., Carruthers, W., Francis, W.। পৃষ্ঠা 251–252 
  3. Wozencraft, W. C. (16 November 2005)। Wilson, D. E., and Reeder, D. M. (eds), সম্পাদক। Mammal Species of the World (3rd edition সংস্করণ)। Johns Hopkins University Press। পৃষ্ঠা {{{pages}}}। আইএসবিএন ০-৮০১-৮৮২২১-৪  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  • Glatston, Angela (২০০৭a)। Red Panda International Studbook -Ailurus fulgens fulgens held in zoos in 2006 (PDF)। Rotterdam Zoo। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৯-১৩ 
  • Glatston, Angela (২০০৭b)। Red Panda International Studbook -Ailurus fulgens styani held in zoos in 2006 (PDF)। Rotterdam Zoo। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৯-১৩ 
  • ITIS (USDA Integrated Taxonomic Information System)। "Ailurus fulgens (Taxonomical Serial No.: 621846)"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১০-২৪ 
  • IUCN/SSC Mustelid, Viverrid, and Procyonid Specialist Group (১৯৯৪)। A. R. Glatston, সম্পাদক। The Red Panda, Olingos, Coatis, Raccoons, and Their Relatives (PDF)। Gland, Switzerland: IUCN। আইএসবিএন 2-8317-0046-9। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০১-০৯ 

এছাড়াও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Slattery, J. Pecon; O'Brien, S. J. (১৯৯৫)। "Molecular phylogeny of the red panda (Ailurus fulgens)"। The Journal of Heredity। Oxford University Press। 86 (6): 413–22। PMID 8568209 
  • Mace, G.M. and Balmford, A. (2000). “Patterns and processes in contemporary mammalian extinction.” In Priorities for the Conservation of Mammalian Diversity. Has the Panda had its day?, A. Entwhistle and N. Dunstone (eds). Cambridge University Press, Cambridge. pp. 27–52.
  • Miyashiro (২০০৬-০৮-২৫)। "Background information on the question: "Do Pandas Really Exist?"" (PDF)। New Mexico Tech। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০১-০৯ 
  • Naish, Darren (২০০৮-০৪-০৩)। "Nigayla-ponya, firefox, true panda: its life and times"। Tetrapod Zoology। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০১-০৯ 

বহির্সংযোগ[সম্পাদনা]