লন্ডন কিংস ক্রস রেলওয়ে স্টেশন

স্থানাঙ্ক: ৫১°৩১′৫১″ উত্তর ০°০৭′২৪″ পশ্চিম / ৫১.৫৩০৯° উত্তর ০.১২৩৩° পশ্চিম / 51.5309; -0.1233
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কিং'স ক্রস জাতীয় রেল
লন্ডন কিং'স ক্রস
King's Cross station, August 2014.jpg
পুনরুদ্ধারের পরে ২০১৪ সালে কিংস ক্রস স্টেশনের সামনের অংশ
কিং'স ক্রস মধ্য লন্ডন-এ অবস্থিত
কিং'স ক্রস
কিং'স ক্রস
মধ্য লন্ডনে কিং'স ক্রসের অবস্থান
অবস্থানকিংস ক্রস
স্থানীয় কর্তৃপক্ষক্যামডেন লন্ডন বরো
পরিচালনা করেনেটওয়ার্ক রেল
মালিকনেটওয়ার্ক রেল
স্টেশন কোডকেজিএক্স
ডিএফটি শ্রেণি
প্ল্যাটফর্মের সংখ্যা১১ (১-১০ সংখ্যাযুক্ত)
প্রবেশযোগ্যহ্যাঁ
ভাড়া অঞ্চল
ওএসটিকিংস ক্রস সেন্ট প্যানক্রাস London Underground
লন্ডন সেন্ট প্যানক্রাস জাতীয় রেল
লন্ডন ইউস্টন London Overground জাতীয় রেল[১]
সাইকেল পার্কিংহ্যাঁ – প্ল্যাটফর্ম ০ ও ১, ৮, ৯ ও গাড়ি রাখার রেক
টয়লেট সুবিধাদিহ্যাঁ
জাতীয় রেলে বার্ষিক প্রবেশ এবং প্রস্থান
২০১৫-১৬বৃদ্ধি ৩৩.৩৬২ মিলিয়ন[২]
– পরিবর্তন হ্রাস ৩.৬৮৪ মিলিয়ন[২]
২০১৬-১৭বৃদ্ধি ৩৩.৮১৬ মিলিয়ন[২]
– পরিবর্তন হ্রাস ৩.৪৭৩ মিলিয়ন[২]
২০১৭-১৮বৃদ্ধি ৩৩.৯০৫ মিলিয়ন[২]
– পরিবর্তন বৃদ্ধি ৪.৬৮৭ মিলিয়ন[২]
রেলওয়ে সংস্থাগুলি
রেলওয়ে সংস্থাগ্রেট নর্দান রেলওয়ে
প্রাক-গোষ্ঠীকরণগ্রেট নর্দান রেলওয়ে
পরবর্তী-গোষ্ঠীকরণলন্ডন ও উত্তর পূর্ব রেলওয়ে
প্রধান দিনগুলো
১৪ অক্টোবর ১৮৫২খোলা হয়েছে
অন্যান্য তথ্য
বহিঃসংযোগ
ডব্লিউজিএস৮৪৫১°৩১′৫১″ উত্তর ০°০৭′২৪″ পশ্চিম / ৫১.৫৩০৯° উত্তর ০.১২৩৩° পশ্চিম / 51.5309; -0.1233
প্রবেশদ্বার আইকন লন্ডন পরিবহন প্রবেশদ্বার

লন্ডন কিংস ক্রস নামেও পরিচিত কিংস ক্রস রেলওয়ে স্টেশনটি হল মধ্য লন্ডনের প্রান্তে ক্যামডেনের লন্ডন বরোতে একটি যাত্রীবাহী রেলওয়ে টার্মিনাস বা প্রান্তিক। এটি লন্ডন স্টেশন গ্রুপে অন্তভুক্ত, যুক্তরাজ্যের অন্যতম ব্যস্ত স্টেশন এবং উত্তর পূর্ব ইংল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের পূর্ব উপকূল প্রধান রেলপথের দক্ষিণ প্রান্তিক। কিংস ক্রস স্টেশনের সংলগ্ন সেন্ট প্যানক্রাস ইন্টারন্যাশনাল হল মহাদেশীয় ইউরোপে ইউরোস্টার পরিষেবার জন্য লন্ডন প্রান্তিক। উভয় প্রধান রেলপথ স্টেশনের নীচে লন্ডন আন্ডারগ্রাউন্ডের অন্তর্গত কিং'স ক্রস সেন্ট প্যানক্রাস টিউব স্টেশন রয়েছে; তারা একত্রে দেশের বৃহত্তম পরিবহন কেন্দ্রসমূহের একটি গঠন করে।

গ্রেট নর্দার্ন রেলওয়ে দ্বারা ১৮৫২ সালে মধ্য লন্ডনের উত্তর প্রান্তে কিংস ক্রসে স্টেশনটি ইস্ট কোস্ট মেইন লাইনের জন্য খোলা হয়েছিল। শহরতলির রেলপথের জন্য এটি দ্রুত বৃদ্ধি পায় এবং ১৯তম শতকে বেশ কয়েকবার প্রসারিত হয়। এটি ১০২৩ সালে বিগ ফোর গ্রুপিংয়ের অংশ হিসাবে লন্ডন ও উত্তর পূর্ব রেলওয়ের মালিকানার অধীনে আসে, যারা ফ্লাইং স্কটসম্যান মতো বিখ্যাত পরিষেবা ও ম্যালার্ডের মতো লোকোমোটিভের চালু করেছিল। স্টেশন কমপ্লেক্সটি ১৯৭০-এর দশকে বিন্যাস সরলীকরণ ও বৈদ্যুতিক শহরতলির পরিষেবা প্রদানের সঙ্গে পুনর্নির্মাণ করা হয়েছিল এবং এটি উচ্চ-গতির ইন্টারসিটি ১২৫-এর জন্য একটি প্রধান প্রান্তিক হয়ে ওঠে। ২০১৮ সালের হিসাবে, কিংস ক্রস থেকে দূরপাল্লার ট্রেনগুলি লন্ডন নর্থ ইস্টার্ন রেলওয়ে দ্বারা এডিনবরা ওয়েভারলি, লিডস এবং নিউক্যাসল পর্যন্ত চালানো হয়; অন্যান্য দূর-দূরত্বের পরিচালনাকারীদের মধ্যে হাল ট্রেন এবং গ্র্যান্ড সেন্ট্রাল রয়েছে।

স্টেশনের আশেপাশের এলাকাটি ২০তম শতকের শেষের দিকে তার তার বীভৎস ওনিম্ন-বিপণন বা ডাউনমার্কেট চরিত্রের জন্য পরিচিত হয়ে ওঠে এবং ফলস্বরূপ বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রের পটভূমি হিসেবে ব্যবহৃত হয়। মূল ছাদ পুনরুদ্ধার সহ ২১তম শতকে একটি বড় পুনঃউন্নয়ন করা হয়েছিল এবং স্টেশনটি হ্যারি পটার বই ও চলচ্চিত্রসমূহের সঙ্গে বিশেষ করে কাল্পনিক প্ল্যাটফর্ম ৯/ এর সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য সুপরিচিত হয়ে ওঠে। ২০২১ সালে বিস্তৃত ট্র্যাক পুনর্নির্মাণের পরে, ১০ নং প্ল্যাটফর্মটি যাত্রী ব্যবহার থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল, ১১ নং প্ল্যাটফর্ম নতুন ১০ নং হয়ে উঠেছে।

অবস্থান ও নাম[সম্পাদনা]

স্টেশনটি ইস্টন রোডের পূর্ব প্রান্তে লন্ডন ইনার রিং রোডে ক্যামডেন লন্ডন বরোর অন্তর্গত পেন্টনভিল রোড, গ্রে'স ইন রোডইয়র্ক ওয়ের সংযোগস্থলের পাশে দাঁড়িয়ে আছে। ঠিক পশ্চিমে, প্যানক্রাস রোডের অপর পাশে সেন্ট প্যানক্রাস রেলওয়ে স্টেশন অবস্থিত।[৩] ৩০, ৫৯, ৭৩, ৯১, ২০৫, ৩৯০ ও ৪৭৬ সহ বেশ কয়েকটি লন্ডন বাস রুট স্টেশনের সম্মুখভাগ বা পাশ দিয়ে যায়।[৪]

কিং'স ক্রস বানানে ঊর্ধকমা সহ ও ব্যতীত উভয় ব্যবহার করা হয়। নেটওয়ার্ক রেললন্ডন আন্ডারগ্রাউন্ড স্টেশনের টিউব মানচিত্রে ও দাপ্তরিক নেটওয়ার্ক রেল ওয়েবপেজে কিং'স ক্রস (King's Cross) চিহ্ন ব্যবহৃত হয়।[৫] এটি খুব কমই প্রারম্ভিক ভূগর্ভস্থ মানচিত্রে বৈশিষ্ট্যযুক্ত, কিন্তু ১৯৫১ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে ব্যবহার করা হয়েছে।[৬] কিংস এক্স (Kings X), কিংস + (Kings +) ও লন্ডন কেএক্স (London KX) হল সংক্ষিপ্ত রূপ, যা সীমিত-স্থানের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়। জাতীয় রেল স্টেশন কোড হল কজিএক্স।[৭]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক ইতিহাস[সম্পাদনা]

কিংস ক্রসের এলাকাটি পূর্বে ব্যাটল ব্রিজ নামে পরিচিত একটি গ্রাম ছিল, যা নদীর বহরের মূলত ব্রড ফোর্ড নামে পরিচিত একটি প্রাচীন ক্রসিং ছিল, পরে ব্র্যাডফোর্ড ব্রিজ নামে পরিচিত হয়। নদীটি ১৮২৫ সালে ভূগর্ভস্থ না হওয়া পর্যন্ত বর্তমান প্যানক্রাস রোডের পশ্চিম দিক দিয়ে প্রবাহিত হত।[৮] "ব্যাটল ব্রিজ" নামটি ঐতিহ্যের সাথে যুক্ত রয়েছে, এটি রোমান ও বুডেকার নেতৃত্বে সেল্টিক ব্রিটিশ আইসেনি উপজাতির মধ্যে একটি বড় যুদ্ধের স্থান ছিল। লোককাহিনী অনুসারে, কিংস ক্রস হল বুডেকার চূড়ান্ত যুদ্ধের স্থান এবং কিছু সূত্র বলে যে তাকে একটি প্ল্যাটফর্মের নীচে সমাহিত করা হয়েছে।[৯] ৯ নং প্ল্যাটফর্ম ও ১০ নং প্ল্যাটফর্ম সম্ভাব্য স্থান হিসাবে প্রস্তাবিত হয়েছে।[৯][১০] বুডেকার ভূত স্টেশনের মধ্যে ৮-১০ নং প্ল্যাটফর্মের আশেপাশে যাত্রীদের তাড়া করে বলে জানা গেছে।[১১]

বেসরকারীকরণ (১৯৯৬–বর্তমান)[সম্পাদনা]

২০০৮ সালে দৃশ্যমান সাবেক কনকোর্স

বেসরকারীকরণের আগে, কিংস ক্রস এলাকাটি ধসে পড়া ভবন ও প্রধান প্রবেশদ্বারের সম্মুখভাগ পতিতাবৃত্তির জন্য খ্যাতি ছিল। একটি প্রধান পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ১৯৯০-এর দশকে হয়েছিল এবং দশকের শেষের দিকে স্টেশনের বায়ুমণ্ডল অনেক উন্নত হয়েছিল।[১২]

১৯৯৬ সালে ব্রিটিশ রেলের বেসরকারীকরণের পরে, স্টেশনে এক্সপ্রেস পরিষেবাগুলি গ্রেট নর্থ ইস্টার্ন রেলওয়ে (জিএনইআর) দ্বারা গৃহীত হয়েছিল। কোম্পানিটি কিংস ক্রস থেকে দূর-দূরত্বের পরিষেবার জন্য ব্যবহৃত ব্রিটিশ রেল মার্ক ৪ "ম্যালার্ড" রোলিং স্টকটি সংস্কার করে এবং রানীএডিনবরার ডিউকের উপস্থিতিতে ২০০৩ সালে নতুন চেহারার ট্রেনগুলির উদ্বোধন করা হয়েছিল।[১৩]

গ্রেট নর্থ ইস্টার্ন রেলওয়ে (জিএনইআর) ২০০৫ সালে ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্য সফলভাবে পুনরায় বিড করেছিল, কিন্তু পরের বছর এটি সমর্পণ করে।[১৪] ন্যাশনাল এক্সপ্রেস ইস্ট কোস্ট ২০০৭ সালের শেষের দিকে একটি অন্তর্বর্তী সময়ের পরে, যখন ট্রেনগুলি একটি ব্যবস্থাপনা চুক্তির অধীনে চলেছিল তখন ফ্র্যাঞ্চাইজিটি গ্রহণ করেছিল।[১৫] ২০০৯ সালে ঘোষণা করা হয়েছিল যে ন্যাশনাল এক্সপ্রেস আর ইস্ট কোস্টের সহযোগী সংস্থাকে অর্থায়ন করতে ইচ্ছুক নয় এবং ফ্র্যাঞ্চাইজিটিকে সরকারের মালিকানায় ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছিল এবং নভেম্বর মাসে ইস্ট কোস্টের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছিল।[১৬] ফ্র্যাঞ্চাইজিটি ২০১৫ সালে মার্চ মাসে পুনরায় বেসরকারীকরণ করা হয় এবং ভার্জিন ট্রেন ইস্ট কোস্ট দ্বারা দখল করা হয়।[১৭] রুট পরিচালনা বাবদ লোকসানের পরে পরিবহন সচিব ক্রিস গ্রেলিং নির্ধারিত সময় ২০২০ সালের তিন বছর আগে ২০১৭ সালের নভেম্বরে মাসে ইস্ট কোস্টের ফ্র্যাঞ্চাইজির প্রাথমিক সমাপ্তির ঘোষণা করেছিলেন। বর্তমান ইসিএমএল পরিষেবাটি লন্ডন নর্থ ইস্টার্ন রেলওয়ে দ্বারা প্রদান করা হয়।[১৮][১৯]

পরিষেবা[সম্পাদনা]

স্টেশনটি পূর্ব ইংল্যান্ড, ইয়র্কশায়ার, উত্তর পূর্ব ইংল্যান্ড এবং পূর্ব ও উত্তর স্কটল্যান্ডের আন্তঃনগর পথে পরিষেবাসমূহ পরিচালনা করে, কেমব্রিজ, পিটারবরো, হাল, ডনকাস্টার, লিডস, ব্র্যাডফোর্ড, ইয়র্ক, সান্ডারল্যান্ড, নিউক্যাসল, এডিনবার্গ, গ্লাসগো, অ্যাবারডিন ও ইনভারনেস মতো প্রধান শহর ও নগরগুলির সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করে। এই প্রধান রুটগুলি পরিচালনার দায়িত্ব ২০১৮ সালের জুন মাস থেকে স্টেজকোচ ও ভার্জিনের কাছ থেকে গ্রহণ করার পরে সরকারী নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. টেমপ্লেট:Citation London station interchange June 2020
  2. টেমপ্লেট:Citation ORR rail usage data
  3. "King's Cross Station"। Google Maps। ২৪ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  4. "Central London Bus Map" (PDF)। Transport for London। ১৩ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  5. "King's Cross"Network Rail। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  6. Badsey-Ellis, Antony (নভেম্বর ২০০৮)। "The Underground and the apostrophe" (PDF)Underground News। London Underground Railway Society। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  7. "National Rail station codes CSV"। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  8. Walter H Godfrey; W McB. Marcham, সম্পাদকগণ (১৯৫২)। Battle Bridge EstateSurvey of London। 24, the Parish of St Pancras Part 4: King's Cross Neighbourhood। London। পৃষ্ঠা 102–113। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  9. "Dig uncovers Boudicca's brutal streak"The Observer। ৩ ডিসেম্বর ২০০০। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  10. "Historical Notes: Boadicea's bones under Platform 10"The Independent। ১৪ জুলাই ১৯৯৯। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  11. Johnson, Marguerite (২০১২)। Boudicca। A&C Black। আইএসবিএন 978-1-853-99732-7 
  12. Simmons ও Biddle 1997, পৃ. 290।
  13. Memorandum by Great North Eastern Railway (GNER) (FOR 115) (প্রতিবেদন)। GNER। অক্টোবর ২০০৩। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  14. "GNER to surrender top train route"BBC News। ১৫ ডিসেম্বর ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  15. "National Express wins rail route"BBC News। ১৪ আগস্ট ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  16. "East Coast rail change confirmed"BBC News। ৫ নভেম্বর ২০০৯। 
  17. "Stagecoach and Virgin win East Coast mainline (ECML) rail franchise"BBC News। ২৭ নভেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  18. Elder, Bryce (২৯ নভেম্বর ২০১৭)। "Stagecoach soars after government intervenes on contract"Financial Times। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১ 
  19. Topham, Gwyn (২৯ নভেম্বর ২০১৭)। "East Coast rail 'bailout' could cost taxpayers hundreds of millions"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০২১