রুশ–তুর্কি যুদ্ধ (১৫৬৮–১৫৭০)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রুশ–তুর্কি যুদ্ধ (১৫৬৮–১৫৭০)
মূল যুদ্ধ: রুশ-তুর্কি যুদ্ধসমূহ
তারিখ১৫৬৮–১৫৭০
অবস্থানঅস্ত্রাখান এবং অ্যাজোভ
ফলাফল

রুশ সামরিক বিজয়[১][২]
অটোমান বাণিজ্যিক সাফল্য[৩]

  • রাশিয়া তেরেক নদীর তীরে অবস্থিত তাদের দুর্গ ধ্বংস করে দেয়
  • রাশিয়া অস্ত্রাখানের মধ্য দিয়ে মুসলিম বণিকদের চলাচলের অনুমতি দেয়
যুধ্যমান পক্ষ
রাশিয়া

উসমানীয় সাম্রাজ্য অটোমান সাম্রাজ্য

সেনাধিপতি
চতুর্থ আইভান
পিওতর সেরেব্রিয়ানি
উসমানীয় সাম্রাজ্য দ্বিতীয় সেলিম
উসমানীয় সাম্রাজ্য সুকোল্লু মেহমেত পাশা
উসমানীয় সাম্রাজ্য কাসিম পাশা
ক্রিমিয়া প্রথম দৌলত গিরাই
শক্তি
৩০,০০০ সৈন্য[৪] উসমানীয় সাম্রাজ্য ২০,০০০ সৈন্য[২]
ক্রিমিয়া ৩০,০০০[২]–৫০,০০০ সৈন্য[৪]
হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতি
অজ্ঞাত উসমানীয় সাম্রাজ্য ক্রিমিয়া অজ্ঞাত

রুশ–তুর্কি যুদ্ধ (১৫৬৮–১৫৭০) অথবা ১৫৬৯ সালের ডন–ভোলগা–অস্ত্রাখান অভিযান[৫] (যেটিকে অটোমান সূত্রগুলোতে অস্ত্রাখান অভিযান নামে অভিহিত করা হয়) ১৫৬৮ থেকে ১৫৭০ সালে রুশ জারতন্ত্র এবং অটোমান সাম্রাজ্যের মধ্যে সংঘটিত হয়। যুদ্ধের মূল কারণ ছিল অস্ত্রাখান। এটি ছিল রাশিয়া ও তুরস্কের মধ্যে সর্বপ্রথম যুদ্ধ।

১৫৫৬ সালে রাশিয়ার জার চতুর্থ আইভান (যিনি ভয়ঙ্কর আইভান বা আইভান দ্য টেরিবল নামে সমধিক পরিচিত) অস্ত্রাখান খানাত দখল করে নেন এবং ভোলগা নদীর সন্নিকটে পাহাড়ের ওপরে একটি নতুন দুর্গ নির্মাণ করেন[৬]। এসময় অটোমান সাম্রাজ্যের সুলতান ছিলেন দ্বিতীয় সেলিম, কিন্তু তাঁর প্রধান উজির সুকোল্লু মেহমেত পাশা ছিলেন সাম্রাজ্যের প্রশাসনের প্রকৃত ক্ষমতার অধিকারী। সুকোল্লু পাশা-ই ১৫৬৮ সালে অটোমান সাম্রাজ্য এবং তার উত্তরাঞ্চলীয় প্রতিদ্বন্দ্বীর (রাশিয়া) মধ্যে দ্বন্দ্বের সূচনা করেন। অটোমানদের জন্য ভবিষ্যতে এর ফলাফল হয়েছিল মারাত্মক। সুকোল্লু পাশা ডন ও ভোলগা নদীদ্বয়কে একটি খাল খননের মাধ্যমে সংযুক্ত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেন এবং ১৫৬৯ সালের গ্রীষ্মকালে কাসিম পাশার নেতৃত্বাধীনে ২০,০০০ তুর্কি ও ৩০,০০০[২] থেকে ৫০,০০০ ক্রিমিয়ান তাতার সৈন্যের একটি বিশাল বাহিনীকে অস্ত্রাখান অবরোধ করে খাল খননের কাজ শুরু করার জন্য প্রেরণ করেন। একই সাথে অটোমান নৌবাহিনী অ্যাজোভ অবরোধ করে[২]

কিন্তু অস্ত্রাখানের সামরিক গভর্নর প্রিন্স পিওতর সেরেব্রিয়ানি-ওবোলেনস্কির নেতৃত্বে সেখানকার সামরিক ঘাঁটিতে অবস্থানকারী রুশ সৈন্যরা অবরোধকারী তুর্কি সৈন্যদের পরাজিত ও বিতাড়িত করে। মস্কো থেকে প্রেরিত ৩০,০০০ সৈন্যবিশিষ্ট সহায়তাকারী রুশ বাহিনী খাল খননের কাজে নিয়োজিত শ্রমিকদের এবং তাদের সুরক্ষার জন্য প্রেরিত ক্রিমিয়ান তাতার সৈন্যদের আক্রমণ করে তাড়িয়ে দেয়[২]। ফিরতি পথে অবশিষ্ট তুর্কিতাতার সৈন্য ও শ্রমিকদের ৭০%-ই হয় স্তেপভূমির প্রচণ্ড শীতে মৃত্যুবরণ করে অথবা সার্কাশিয়ানদের আক্রমণের শিকারে পরিণত হয়। অটোমান নৌবহরও প্রচণ্ড ঝড়ের কবলে পড়ে ধ্বংস হয়ে যায়[৩]

তবে অটোমান সাম্রাজ্য সামরিকভাবে পরাজিত হওয়া সত্ত্বেও মধ্য এশিয়া থেকে আগত মুসলিম তীর্থযাত্রী ও বণিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য এবং তেরেক নদীর তীরে নির্মিত রুশ দুর্গ ধ্বংস করে ফেলার জন্য রাশিয়ার কাছে দাবি জানায়। রাশিয়ার জার আইভান এসময় সুইডেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ব্যস্ত থাকায় অটোমানদের দাবি মেনে নিতে রাজি হন[৩]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Janet Martin, Medieval Russia:980-1584, (Cambridge University Press, 1996), 356.
  2. মধ্যযুগের মুসলিম ইতিহাস (আশরাফউদ্দিন আহমেদ), অটোমান তুর্কি সাম্রাজ্য, পৃ. ২৭৫
  3. Janet Martin, Medieval Russia:980-1584, 356.
  4. Николай Шефов. Битвы России. Военно-историческая библиотека. М., 2002
  5. DeVries, Kelly Robert (২০১৪-০৫-০১)। "The European tributary states of the Ottoman Empire in the sixteenth and seventeenth centuries"Choice (ইংরেজি ভাষায়)। 51 (09): 51–5179। doi:10.5860/CHOICE.51-5179আইএসএসএন 0009-4978 
  6. Janet Martin, Medieval Russia:980-1584, 354.