ম্যারি উর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ম্যারি উর
স্থানীয় নাম
Mary Ure
জন্ম
এইলিন ম্যারি উর

(১৯৩৩-০২-১৮)১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৩৩
মৃত্যু৩ এপ্রিল ১৯৭৫(1975-04-03) (বয়স ৪২)
মৃত্যুর কারণঅত্যধিক বার্বিটুরেট গ্রহণ
সমাধিলন্ডন রোড সেমেটারি
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল১৯৫৫-১৯৭৪
দাম্পত্য সঙ্গীজন অসবর্ন
(বি. ১৯৫৭; বিচ্ছেদ. ১৯৬৩)

রবার্ট শ
(বি. ১৯৬৩; মৃ. ১৯৭৫)
সন্তান৪, ইয়ান শ-সহ

এইলিন ম্যারি উর (ইংরেজি: Eileen Mary Ure; জন্ম: ১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৩৩ - ৩ এপ্রিল ১৯৭৫) ছিলেন একজন স্কটিশ মঞ্চ ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। তিনি লুক ব্যাক ইন অ্যাঙ্গার-এর ব্রডওয়ে মঞ্চায়নে (১৯৫৮) ও চলচ্চিত্রায়নে (১৯৫৯) অভিনয় করে সমাদৃত হন। ১৯৬০ সালে সন্স অ্যান্ড লাভার্স চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর জন্য একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। ডেবরা কারের পর তিনি অস্কারের মনোনয়ন প্রাপ্ত দ্বিতীয় স্কটিশ অভিনেত্রী।[১] তার অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসমূহ হল দ্য লাক অব জিঞ্জার কফি, কাস্টার অব দ্য ওয়েস্ট এবং হোয়ার ইগলস ডেয়ার

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

উর ১৯৩৩ সালের ১৮ই ফেব্রুয়ারি স্কটল্যান্ডের গ্লাসগো শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা কলিন ম্যাকগ্রেগার উর একজন প্রকৌশলী ছিলেন এবং তার মাতা এডিথ সুইনবার্ন। তিনি ইয়র্কের মাউন্ট স্কুলে পড়াশোনা করেন।[১] তিনি ১৯৫১ সালে তার স্কুলের প্রধান শিক্ষিকার সুপারিশে ইয়র্কে সাইকেল অব মিস্ট্রি প্লেস-এ ভার্জিন ম্যারি চরিত্রে অভিনয় করেন, যা পরে ব্রিটেন উৎসবে পুনর্জীবিত করা হয়।[২] তিনি মঞ্চ অভিনয়ের জন্য তিন বছর রয়্যাল সেন্ট্রাল স্কুল অব স্পিচ অ্যান্ড ড্রামায়[১] এবং পরে লন্ডনের রয়্যাল অ্যালবার্ট হলে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। ১৯৫৪ সালে তার প্রশিক্ষণের শেষ বছরে তিনি কার্লটন হবস বারসারি জয় করেন এবং রেডিও ড্রামা কোম্পানিতে যোগদানের প্রস্তাব পান, কিন্তু তিনি এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

উর অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র স্টর্ম অভার দ্য নাইল ১৯৫৫ সালে মুক্তি পায়। তিনি ব্রডওয়ে মঞ্চে তার করা লুক ব্যাক ইন অ্যাঙ্গার-এর চলচ্চিত্রায়নে (১৯৫৯) অ্যালিসন পোর্টার চরিত্রে অভিনয় করে সমাদৃত হন। ১৯৬০ সালে সন্স অ্যান্ড লাভার্স চলচ্চিত্রে ক্লারা ডস চরিত্রে অভিনয় করেন। এই কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে অস্কারগোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৪][৫] ডেবরা কারের পর তিনি অস্কারের মনোনয়ন প্রাপ্ত দ্বিতীয় স্কটিশ অভিনেত্রী।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ক্রেবস, অ্যালবিন (৪ এপ্রিল ১৯৭৫)। "Mary Ure Dead; Actress Was 42"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  2. "York Mystery Plays : Illumination - From Darkness into Light : Search the NCEM archive"ইয়র্ক মিস্ট্রি প্লে। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  3. "Carleton Hobbs Bursary Award Winners"বিবিসি বেতার। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  4. "1931-32 Academy Awards® Winners and History"ফিল্ম সাইট। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  5. "Mary Ure"গোল্ডেন গ্লোব (ইংরেজি ভাষায়)। হলিউড ফরেন প্রেস অ্যাসোসিয়েশন। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]