ম্যাডোনা-হোর কমপ্লেক্স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

মনোবিশ্লেষণ এর আলোচনায় ম্যাডোনা-হোর কমপ্লেক্স (Madonna-whore complex) হচ্ছে একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ও প্রেমপূর্ণ সম্পর্কে যৌন উত্তেজনা বজায় না রাখতে পারার অক্ষমতা।[১] সিগমুন্ড ফ্রয়েড তার সাইকিক ইম্পোটেন্স এর বিধানে এটি নিয়ে প্রথম আলোচনা করেন।[২] তিনি বলেন, এই মানসিক জটিলতা তাদের মধ্যেই তৈরি হয় যারা নারীকে হয় পবিত্র বা সতী (ম্যাডোনা বা কুমারী মেরির মত) হিসেবে দেখে, অথবা বেশ্যা এর মত হীন হিসেবে দেখে। এই সমস্যায় থাকা পুরুষেরা এমন একজন যৌন সঙ্গীকে কামনা করেন যে হীন বা যাকে হীনমুল্য করা হয়েছে (বেশ্যা) কারণ তিনি কোন সম্মানিত সঙ্গী তার প্রাপ্য এটা তিনি মনে করেন না।[৩] ফ্রয়েড লেখেন, "এক্ষেত্রে পুরুষ যাকে ভালোবাসেন সেখানে তিনি কোন কামনা খুঁজে পান না, আর তিনি যাকে কামনা করেন তাকে ভালোবাসতে পারেন না।"[৪] চিকিৎসা মনোবিজ্ঞানী উয়ে হার্টম্যান ২০০৯ সালে লেখেন, "আজকের দিনের রোগীদের মধ্যেও এই মানসিক সমস্যা উচ্চমাত্রায় পাওয়া যায়"।[৩]

এই শব্দটি জনপ্রিয় অর্থেও ব্যবহৃত হয়, যদিও কখনও কখনও সূক্ষ্মভাবে এর ভিন্ন অর্থ থাকে।

কারণ[সম্পাদনা]

ফ্রয়েড বলেন, ম্যাডোনা-হোর কমপ্লেক্স তৈরি হয় পুরুষের কামনার প্রেমপূর্ণ ও যৌন স্রোতের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি হবার কারণে।[৫] ইডিপাস কমপ্লেক্স এবং খোজাকরণ উদ্বিগ্নতা এর ভয় অতীতে অজাচারগত সম্পর্কের ক্ষেত্রে যে প্রেমের বোধ ছিল তা যে নারীর প্রতি ভালোবাসা কাজ করে তার প্রতি আকৃষ্ট হবার ক্ষেত্রে বাধা দান করে। "এরকম ব্যক্তির কাছে ভালোবাসার জগত দুটো ভাগে ভাগ হয়ে যায়, যাদের একটি হল পবিত্র ভালোবাসা আরেকটি হল অশুভ বা পাশবিক ভালোবাসা।"[৫] উদ্বেগ হ্রাস করার জন্য, সেই পুরুষ নারীকে দুটি শ্রেণীতে বিভক্ত করেন: সেইসব নারী যাদেরকে তিনি প্রশংসা করেন, এবং সেইসব নারী যাদের প্রতি তিনি যৌন আকর্ষণ বোধ করেন।[৬] পুরুষটি পূর্ববর্তী শ্রেণির নারীকে ভালবাসেন, এবং পরবর্তী শ্রেণীর নারীকে অবজ্ঞা এবং অবমূল্যায়ন করেন।[6] মনোবিজ্ঞানী রিচার্ড টাচ বলেন ফ্রয়েড ম্যাডোনা-হোর কমপ্লেক্স এর অন্তত একটি বিকল্প ব্যাখ্যার প্রস্তাব দিয়েছেন:

এই পূর্বের তত্ত্বটি ইডিপাস কমপ্লেক্স ভিত্তিক খোজাকরণ উদ্বিগ্নতার উপর ভিত্তি করে নয়, বরং নারীর প্রতি পুরুষের প্রাথমিক ঘৃণার উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়। আর এই ঘৃণা উদ্দীপিত হয় সন্তানের সেই ধারনার দ্বারা যার অভিজ্ঞতা সে তার মায়ের হাতে অসহনীয় হতাশার এবং/অথবা নার্সিসিজম সংক্রান্ত আঘাতের কারণে লাভ করেছে। এই তত্ত্ব অনুসারে, প্রাপ্তবয়স্ক হবার পরে এই ছেলে পুরুষে পরিণত হয়ে তার মায়ের স্থলে আসা নারীদের উপর ধর্ষকামী আক্রমণের মাধ্যমে তার নিজের প্রতি হওয়া অপরাধের প্রতিশোধ নেওয়ার চেষ্টা করে।[৬]

এটা সম্ভব যে এই ধরনের বিভক্তি বাড়তে পারে যখন ব্যক্তি কোনও নিরুত্তাপ কিন্তু অত্যধিক নিরাপত্তাহীন বা অতি-প্রতিরক্ষামূলক মায়ের দ্বারা পালিত হন[৭] - মানসিক প্রতিপালনের অভাবের কারণে আপাতবৈপরীত্যভাবে অজাচারী বন্ধন শক্তিশালী হয়।[৮] এই ধরনের মানুষ প্রায়ই তার মায়ের বৈশিষ্ট্যের কারও সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়াবেন। তিনি শৈশবে মাতৃত্বের অন্তরঙ্গতার অভাব পূরণ করতে চাইবেন। আর এটা তিনি করবেন কেবল পূর্ববর্তী সম্পর্ককে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা অবদমিত অনুভূতির ফিরে আসার জন্য যা নতুনের সাথে যৌন সন্তুষ্ঠি লাভে বাধার সৃষ্টি করে।[৫]

আরেকটি তত্ত্ব দাবি করে যে ম্যাডোনা-হোর কমপ্লেক্স পুরুষের বিকাশমূলক অক্ষমতা নয়, বরং পুরাণ ও ইহুদি-খ্রিস্টীয় ধর্মতত্ত্বে নারীকে পবিত্র নারী (ম্যাডোনা) অথবা বেশ্যা হিসেবে উপস্থাপন করার জন্য তৈরি হয়।[৯]

যৌন রাজনীতি[সম্পাদনা]

নাওমি উলফ মনে করেছিলেন, আপাতবৈপরীত্যভাবে যৌন বিপ্লব কুমারী-বেশ্যা বিভক্তির গুরুত্বকে তীব্রতর করেছে, যার ফলে নারীকে এই উভয় চিত্রের সবচেয়ে খারাপ দিকগুলির সাথেই বিবাদে জড়িত হতে হয়।[১০] অন্যেরা মনে করেন যে, পুরুষ এবং নারী উভয়ের জন্যই একই সম্পর্কের মধ্যে একই সাথে পূর্ণাঙ্গ যৌনক্ষুধার চরিতার্থকরণ এবং আদর্শ নারীত্বের ধারণাকে খুঁজে পাওয়া কঠিন হতে পারে।[১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Kaplan, Helen Singer (১৯৮৮)। "Intimacy disorders and sexual panic states"। Journal of Sex & Marital Therapy14 (1): 3–12। doi:10.1080/00926238808403902 
  2. W. M. Bernstein, A Basic Theory of Neuropsychoanalysis (2011) p. 106
  3. Hartmann, Uwe (২০০৯)। "Sigmund Freud and His Impact on Our Understanding of Male Sexual Dysfunction"। The Journal of Sexual Medicine6 (8): 2332–2339। doi:10.1111/j.1743-6109.2009.01332.xPMID 19493285 
  4. Freud, Sigmund (১৯১২)। "Über die allgemeinste Erniedrigung des Liebeslebens" [The most prevalent form of degradation in erotic life]। Jahrbuch für Psychoanalytische und Psychopathologische Forschungen4: 40–50। 
  5. Sigmund Freud, On Sexuality (PFL 7) p. 251
  6. Tuch, Richard (2010). "Murder on the Mind: Tyrannical Power and Other Points along the Perverse Spectrum". The International Journal of Psychoanalysis 91 (1): 141-162. ডিওআই:10.1111/j.1745-8315.2009.00220.x.
  7. P. A Sacco, Madonna Complex (2011) p. 48
  8. Neville Symington, Narcissism (1993) p. 99
  9. Feinman, Clarice. Women in the criminal justice system. Westport, Conn.: Praeger, 1994, pp. 3–4, আইএসবিএন ৯৭৮-০-২৭৫-৯৪৪৮৬-৫.
  10. Naomi Wolf, Promiscuities (1997) p. 5 and p. 131
  11. Robert Bly/Marion Woodman, The Maiden King (1999) p. 203