মেহর পেস্টনজী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মেহর পেস্টনজী
জন্ম(১৯৪৬-০৯-১৯)১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৪৬
মুম্বই, ভারত
পেশাঔপন্যাসিক, সমাজকর্মী, সাংবাদিক
জাতীয়তাভারতীয়

মেহর পেস্টনজী একজন ভারতীয় লেখক, মুক্তপেশা সাংবাদিক ও সমাজকর্মী।[১] মেহর পেস্টনজী নিপীড়িত ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের জন্য ৭০ এর দশক থেকে কাজ করে যাচ্ছেন।[২]

প্রারম্ভিক জীবন ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

মেহর পেস্টনজী জন্মেছিলেন ১৯৪৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ১৯ তারিখে। তিনি এসেছেন পারসি সম্প্রদায় থেকে এবং দুই কন্যাসহ ভারতের মহারাষ্ট্র প্রদেশের রাজধানী মুম্বইয়ে বাস করেন।

যখন তার বড় মেয়ের বয়স পাঁচ বছর ও ছোট মেয়ের বয়স চার বছর, তখন তার বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে।[২] এরপর তিনি ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন।[১]

মেহর পেস্টনজী মনোবিজ্ঞানে বিএ পাস করেছেন ও সাংবাদিকতা নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। তিনি মুম্বই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

মেহর পেস্টনজী ৭০ এর দশকে ভারতের ধর্ষণ সংক্রান্ত আইন পরিবর্তনের জন্য সক্রিয়ভাবে প্রচারাভিযানে অংশ নিয়েছেন। তিনি বস্তিবাসীদের বসবাসের অধিকারের জন্য লড়েছেন, লড়েছেন শিশুদের অধিকারের জন্য, লড়েছেন সমাজবিরোধী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে।[৩]

১৯৯২ সালে বাবরি মসজিদ ভাঙার পর সৃষ্ট দাঙ্গার সময় তিনি সাম্প্রদায়িকতা ও সংকীর্ণ দৃষ্টিভঙ্গির বিরুদ্ধে লড়েছেন। মুম্বইয়ে সেবার দাঙ্গায় নয়শ জনের বেশি মানুষ মারা গিয়েছিল।[৪] তিনি অন্যান্য ব্যক্তিদের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটানোর জন্য কাজ করেছেন, কাজ করেছেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ফিরিয়ে আনতে।

এই সময়ে তিনি লেখালেখি করতেও আরম্ভ করেছিলেন।[২] আশির দশকের মধ্যভাগে তিনি কাজ করেছেন পথশিশুদের নিয়ে। তিনি ও চলচ্চিত্র নির্মাতা আনন্দ পটবর্ধন যৌথভাবে বস্তি উচ্ছেদের বিরুদ্ধে কাজ করে গিয়েছেন। মুম্বই দাঙ্গার সময় তিনি ধারাভি মহল্লা কমিটির সাথে যুক্ত ছিলেন।[৫] মেহর পেস্টনজী বহু বৈজ্ঞানিক, ব্যবসায়ী ও সমাজকর্মীর সাক্ষাৎকার নিয়েছেন।[১]

টাইমস অব ইন্ডিয়া কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজেকে 'ঘটনাচক্রে পারসি' বলে অভিহিত করেছিলেন। তার মতে, বিবাহবিচ্ছেদের পর মুক্তপেশা সাংবাদিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু পর তিনি সমাজের বিভিন্ন প্রান্তে গিয়েছেন, মিশেছেন বিভিন্ন প্রান্তের মানুষের সাথে। এটি তার চিন্তাধারায় ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে। তার মনের মাঝে সাংবাদিক সত্তা ও পারসি সত্তার মাঝে প্রায়ই সংঘর্ষ ঘটে। সেক্ষেত্রে, তিনি তার সাংবাদিক সত্তাকেই প্রাধান্য দিয়ে থাকেন।[৬] তার সমাজের সমালোচক ছিলেন তিনি। কিন্তু, মুম্বাই দাঙ্গার পর তার সমাজের প্রতি তার দৃষ্টিভঙ্গির কিছুটা পরিবর্তন ঘটে।[৭] তিনি তার চিন্তাভাবনার জন্য পার্সি সম্প্রদায়ে সমালোচিত হয়ে থাকেন।[৮]

উল্লেখযোগ্য বই[সম্পাদনা]

মেহর পেস্টনজীর লেখায় তার চিন্তাভাবনা ফুটে ওঠে। তিনি তার ব্যক্তিগত জীবন ও সাংবাদিক জীবনের অভিজ্ঞতা অবলম্বনে বই রচনা করে থাকেন। তার রচিত উল্লেখযোগ্য গ্রন্থগুলো হল:

  • মিক্সড ম্যারেজ অ্যান্ড আদার স্টোরিজ পারসি (১৯৯৭), বইটি একটি ছোটগল্প সংকলন। পারসি সম্প্রদায়ের ভিতরের নানা গল্প ফুটে উঠেছে বইটিতে।
  • পারভেজ (২০০৩), পারভেজ নামের এক পারসি তরুণীর গল্প বর্ণিত হয়েছে বইটিতে, যার বিয়ে হয়েছিল এক খ্রিষ্টান যুবকের সাথে। পারভেজ বাবরি মসজিদ ভাঙার এক মাস পূর্বে একটি আন্দোলনে সক্রিয় অংশ নিয়েছিল। এভাবে এগিয়ে যায় উপন্যাসের কাহিনি।
  • সড়ক ছাপ (২০০৫), রাহুল নামের এক পকেটমার, চোর একদিন রেলওয়ে প্লাটফর্মে এক পরিত্যক্ত নবজাতককে কুড়িয়ে পায়। এরপর এগিয়ে যায় বইয়ের গল্প। বইটিতে ফুটে উঠেছে পথশিশুদের গল্প।
  • পিয়ানো ফর সেল (২০০৬), একটি নাটক।
  • ফিডিং ক্রোজ, একটি নাটক। নাটকটির জন্য তিনি ২০০৯ সালে বিবিসি আন্তর্জাতিক রেডিও নাটক লিখন প্রতিযোগিতায় পুরস্কৃত হয়েছিলেন।[৯]
  • আউটসাইডার, একটি নাটক।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Meher Pestonji – Biographical Sketch"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১৬ 
  2. "Pervez – Meher Pestonji"। ১৫ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১৬ 
  3. "BookChums profile"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১৬ 
  4. "Times of Inida"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১৬ 
  5. "Mixed Marriage – India Today"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১৬ 
  6. https://www.pcds.co.in/celeb-author-meher-pestonji.php
  7. "TROUBLED TIMES TEST THE WRITER"। Journal of Postcolonial Writing43: 143–148। doi:10.1080/17449850701430465 
  8. http://tenets.zoroastrianism.com/toi33c.html
  9. https://www.mumbaitheatreguide.com/dramas/Articles/09/aug/07-mehr-pestonjees-play-feeding-crows-wins.asp