মিলিমিটার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
মিলিমিটার
একক সিস্টেমমেট্রিক পদ্ধতি
যার এককদৈর্ঘ্য
প্রতীক(mm) 
একক রুপান্তর
১ (mm) ...... সমান হচ্ছে ...
   এস আই একক   1×১০−3মিটার
   ইমপেরিয়েল ইউনিট/যুক্তরাষ্ট্র কাসটোমারি ইউনিট   ০.০০৩২৮০৮ ফু
 ০.০৩৯৩৭০ ইঞ্চি

মিলিমিটার (ইন্টারন্যাশনাল বুরো অব ওয়েট এন্ড মিজার্স দ্বারা স্বীকৃত, এসআই একক এমএম) হল দৈর্ঘ্য পরিমাপের একক, যা মেট্রিক পদ্ধতিতে ব্যবহৃত হয়। এক মিটারের এক হাজার ভাগের এক ভাগকে এক মিলিমিটার বলে। এটি ১০০০ মাইক্রোমিটার এবং ১০০০০০০ ন্যানোমিটারের সমান। ১ মিলিমিটার ১২৭ (নিখুতভাবে ০.০৩৯৩৭০) ইঞ্চির সমান হয়।

সংজ্ঞা[সম্পাদনা]

১৯৮৩ সাল থেকে দৈর্ঘ্য পরিমাপের একক হিসেবে আন্তর্জাতিক ভাবে মিটার ব্যবহৃত হয়ে আসছে । আলো শূন্যস্থানে ১/২৯৯৭৯২৪৫৮ সেকেন্ডে যে দুরুত্ব অতিক্রম করে সে দুরত্ব হলো এক মিটার । আর এক মিটারের ১/১০০০ ভাগ হলো এক মিলিমিটার ।অতএব ১/২৯৯৭৯২৪৫৮০০০ সেকেন্ডে আলো যে দুরুত্ব অতিক্রম করে তাকে এক মিলিমিটার বলে।[১]

ইউনিকোড প্রতীক[সম্পাদনা]

Chinese, Japanese এবং Korean (CJK) অক্ষরের সাথে সঙ্গতি রাখার জন্য নিম্নোক্ত ইউনিকোড প্রতীক ব্যবহার করা হয়ঃ

১) মিলিমিটার (㎜) - code U+339C[২]

২) বর্গ মিলিমিটার (㎟) - code U+339F[২]

৩)ঘন মিলিমিটার (㎣) - code U+33A3[২]

পরিমাপ[সম্পাদনা]

মেট্রিক পদ্ধতিতে সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম পরিমাপ হল মিলিমিটার । [৩]  তবে ভার্ণিয়ার ক্যালিপার্স দিয়ে এখন ০.০১ মিলিমিটার পর্যন্তও পরিমাপ করা যায় । .[৪]

পরিমাপক[সম্পাদনা]

মিলিমিটার পরিমাপ নির্ণয় করার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় পরিমাপক হলো মিটার স্কেল। এছাড়াও অন্যান্য যন্ত্র দিয়ে নিখুত পরিমাপ করা যায়।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "17th General Conference on Weights and Measures (1983), Resolution 1."। International Bureau of Weights and Measures। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  2. "CJK Compatibility" (PDF)। unicode.org। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  3. "How do I read a ruler?"। onlineconversion.com। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  4. "Accuracy of Calipers"। TresnaInstrument.com। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০১৩