মিউনিখ ম্যারাথন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মিউনিখ ম্যারাথন
Marathon-Munich-2005-10-09-10-16.jpg
তারিখবার্ষিক
স্থানমিউনিখ, জার্মানি
খেলার ধরণরাস্তা
দূরত্বম্যারাথন, অর্ধ-ম্যারাথন, ১০ হাজার দৌড়
শুরুর বছর১৯৮৩
কোর্সের রেকর্ডপুরুষ:
কেনিয়া মাইকেল কাইট ২:০৯:৪৬
মহিলা:
হাঙ্গেরি ক্যারোলিনা জাবো ২:৩৩:০৯
অফিশিয়াল ওয়েবসাইটমিউনিখ ম্যারাথন
অংশগ্রহণকারী৪৫৫০ (২০১৮)

জেনেরালি মিউনিখ ম্যারাথন (জার্মান: München Marathon) একটি বার্ষিক ম্যারাথন পথে চলার প্রতিযোগিতা যেটি জার্মানির মিউনিখ শহরে প্রতিবছর অক্টোবর মাসে অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় অর্ধ ম্যারাথন এবং ১০ কিলোমিটার (৬.২ মা) দৌড়ের ইভেন্ট রয়েছে।

১৯৭২ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের পর মিউনিখে ছোট মাপের দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হতে থাকে। এরপর ১৯৮৩ সালে মাইকেল থালজ কোম্পানি (এফভিএম) এবং মিউনিখ রোড রানারস ক্লাবের উদ্যাগে মিউনিখ ম্যারাথন প্রতিষ্ঠা লাভ করে। ১৯৭২-এর অলিম্পিকের মতো হুবহু মিল রেখে এই ম্যারাথনের দৌড়ের স্থান শুরু হয় মিউনিখ অলিম্পিক পার্কের কৌবার্টিনপ্লাজ থেকে মিউনিখ অলিম্পিক স্টেডিয়ামে পর্যন্ত।[১] একদম প্রথম ম্যারাথন দৌড়ে ২০০০ হাজার প্রতিযোগিকে নিয়ে এই প্রতিযোগিতা শুরু হয়। এরপর প্রতি বছরই প্রতিযোগির সংখ্যা বাড়তে থাকে। ১৯৮৩ সালে যা ৬৫০০ তে পৌঁছায়। গণমানুষের অংশগ্রহণ ছাড়াও নানা উচ্চ পেশাজীবীর মানুষ এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। ১৯৯০ এরপর হটাৎ করেই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যা কমে যায়। ৬৩৪০ থেকে ৩৩৬০ এ নেমে আসে।[২] মূলত এই প্রতিযোগিতার প্রতিষ্ঠাতা কোম্পানির দূর্নীতির জন্য প্রতিযোগির সংখ্যা কমে যায়।

২০০০ সালে শহরের পাশ দিয়ে নতুন করে এই দৌড়ের আয়োজন করা হয়। কিন্তু এর জনপ্রিয়তা কমে যায়। তাই আবারও শহরের মধ্যে ও অলিম্পিক স্টেডিয়ামের মধ্যে এই দৌড় শুরু করা হয়। ২০০১ সালে প্রায় ৫০০০ প্রতিযোগী ম্যারাথন দৌড় সমাপ্ত করে।[৩] এই প্রতিযোগিতা জার্মানির সবচেয়ে বড় দৌড় প্রগিযোগিতা এবং ২০০৪ সালে ৯০৪১ জন (সর্বোচ্চ) ম্যারাথন দৌড় সমাপ্ত করে। ২০০৬ সালের মিউনিখ ম্যারাথন ছিল আনুষ্ঠানিক জার্মান ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা। যেখানে পুরুষদের মধ্যে প্রথম হন ম্যাথিউস কর্নার, মহিলাদের মধ্যে কারমেন সিয়েহার্ট।[১]

সবচেয়ে কম সময়ে এই দৌড় শেষ করেন কেনিয়ার মাইকেল কাইট এবং হাঙ্গেরির ক্যারোলিনা জাবো[১]

বিজয়ীরা[সম্পাদনা]

অপেশাদার দৌড়বিদড়া ২০০৫ সালের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করছেন
২০০৪ সালে অলিম্পিক স্টেডিয়ামে ফান দৌড়বিদড়া দৌড় শেষ করছেন
২০১১ সালে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন বার্নাদিত্যে পিচমায়ের তার বিজয়ের পথে এগিয়ে যাচ্ছেন

নির্দেশক:       রেকর্ড       দেশের চ্যাম্পিয়ন প্রতিযোগিতা

ম্যারাথন[সম্পাদনা]

পর্ব সাল পুরুষ বিজয়ী সময় (ঘন্টা:মিনিট:সেকেন্ড) মহিলা বিজয়ী সময় (ঘন্টা:মিনিট:সেকেন্ড)
১ম ১৯৮৩  জেল-এরিক-স্তাল (সুইডেন) ২:১৩:৩৩  ক্রিশ্তা ভালেন্সিক (জার্মানি) ২:৩৩:৪৫
২য় ১৯৮৪  কারেল লিসমন্ট (বেলজিয়াম) ২:১২:৫০  ক্রিশ্তা ভালেন্সিক (জার্মানি) ২:৩৮:৫০
৩য় ১৯৮৫  মারজান ক্রেম্পল (সার্বিয়া ও মন্টিনিগ্রো) ২:১৯:৩০  ওলিভিয়া গ্রুনার (জার্মানি) ২:৪৫:৫২
৪র্থ ১৯৮৬  ইস্তভান কেরেকজারতো (হাঙ্গেরি) ২:১৭:৪৬  ওলিভিয়া গ্রুনার (জার্মানি) ২:৩৮:৫১
৫ম ১৯৮৭  আহমেত আলতুন (তুরস্ক) ২:১৩:৩৭  এঙ্গেলা দুনকে (জার্মানি) ২:৪০:৫৯
৬ষ্ঠ ১৯৮৮  আর্নেস্ট জেলা (লেসোথো) ২:১২:৫৫  জানেথ মায়াল (ব্রাজিল) ২:৪২:৩৪
৭ম ১৯৮৯  হার্বার্ট স্টেফনি (জার্মানি) ২:১১:৩০  জানেথ মায়াল (ব্রাজিল) ২:৩৭:০৪
৮ম ১৯৯০  স্টিফেন ডিতমেন (জার্মানি) ২:১৩:৪৭  চারলোট টেস্কে (জার্মানি) ২:৩৩:১২
৯ম ১৯৯১  জোওয়া আলভেস দ্যা সৌজা (ব্রাজিল) ২:১৫:৩৪  ক্যারোলিনা জাবো (হাঙ্গেরি) ২:৩৩:০৯
১০ম ১৯৯২  ইভান উভিজল (স্লোভাকিয়া) ২:১৪:২৮  বিরগিট লেননার্টজ (জার্মানি) ২:৩৯:১৭
১১ম ১৯৯৩  গিদমিস শাহাঙ্গা (তানজানিয়া) ২:১৪:২৮  ফাতিমা নেভেস (পর্তুগাল) ২:৩৯:৩৪
১২ম ১৯৯৪  গিদমিস শাহাঙ্গা (তানজানিয়া) ২:১৭:২৭  ভেতলানা কাযাতকিনা (রাশিয়া) ২:৫৩:৪৫
১৩ম ১৯৯৫  জোলতান হোলবা (হাঙ্গেরি) ২:১৮:৪২  কারিন স্টেইগয়ার (জার্মানি) ২:৪৭:৪৩
১৪ম ১৯৯৬  লারস আন্দারভাং (সুইডেন) ২:১৯:১১  মারিয়া বাক (জার্মানি) ২:৪১:৫৬
১৯৯৭ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়নি
১৫ম ২০০০  মাইকেল কাইট (কেনিয়া) ২:০৯:৪৬  এলজবিয়েতা জারোজ (পোল্যান্ড) ২:৩৭:৩৪
১৬ম ২০০১  এন্দ্রি নওমভ (ইউক্রেন) ২:১৩:৫৭  ভেলেন্তিনা দেলিওন (মলদোভা) ২:৪৩:৪১
১৭ম ২০০২  জোনাথন ওয়াট (নিউজিল্যান্ড) ২:২৩:১৯  সিলকে ফ্রেশচ (জার্মানি) ২:৪৬:১৮
১৮ম ২০০৩  গেমেছু রোবা (ইথিওপিয়া) ২:১৯:২৬  সিলকে ফ্রেশচ (জার্মানি) ২:৪৪:৫৯
১৯ম ২০০৪  রেইনহার্ড হাররাসসের (ইতালি) ২:২১:২১  ক্রিশ্চিনা লেলান (ফ্রান্স) ২:৪৬:১৮
২০ম ২০০৫  হারমান আচমুলার (ইতালি) ২:২৪:২৮  কর্নেলিয়া ফিরছিং (জার্মানি) ২:৫৪:০৩
২১শ ২০০৬  ম্যাথিয়াস কর্নের (জার্মানি) ২:২১:৫৫  কার্মেন সিয়েওয়ার্ট (জার্মানি) ২:৪৭:২২
২২ম ২০০৭  ফাল্ক চিয়েরপিন্সকি (জার্মানি) ২:২৫:২৬  কর্নেলিয়া ফিরচিং (জার্মানি) ২:৫৬:৩৩
২৩ম ২০০৮  স্টিফেন জাস্টাস (জার্মানি) ২:২১:৩৮  মেলানিয়ে হোহেনেস্টার (জার্মানি) ২:৪৯:২০
২৪ম ২০০৯  মাকসিম সালিয় (ইউক্রেন) ২:২৮:১৩  লুজিয়া সিমিদ (জার্মানি) ২:৫৩:১৬
২৫ম ২০১০  এন্দ্রি নওমভ (ইউক্রেন) ২:১৮:২৩  বার্নাদিত্যে পিচমায়ের (জার্মানি) ২:৩৫:২৮
২৬ম ২০১১  রিচার্ড ফ্রেডরিখ (জার্মানি) ২:১৯:২৭  বার্নাদিত্যে পিচমায়ের (জার্মানি) ২:৩৮:০২
২৭ম ২০১২  জান হামান (জার্মানি) ২:১৯:৪৬  সুসান হান (জার্মানি) ২:৩২:১১
২৮ম ২০১৩  ফ্রাঙ্ক শয়ের (জার্মানি) ২:১৮:৫৬  সিলকে অপ্টেকাম্প (জার্মানি) ২:৪১:৫০
২৯ম ২০১৪  টোবিয়াস শ্রেইন্দল (জার্মানি) ২:২১:৪৭  স্টেফি ভলকেই (জার্মানি) ২:৪৪:৩৭
৩০ম ২০১৫  ফ্লোরিয়ান স্টেলজিয়ে (জার্মানি) ২:২৯:৫৯  জুলিয়া ভিয়েললেহনার (জার্মানি) ২:৪০:২৮
৩১ম ২০১৬  ওলিভার হারমান (জার্মানি) ২:২৭:১২  লতিফা সাস্টার (ফ্রান্স) ২:৫৬:০২
৩২ম ২০১৭  মারিও ওয়ের্নদরফার (জার্মানি) ২:২৭:৫২  বিয়ানকা মেয়ের (জার্মানি) ২:৪৯:৩৫
৩৩ম ২০১৮  আন্দ্রেস স্ট্রাসার (জার্মানি) ২:২৭:৫৮  সুসান (জার্মানি) ২:৪৯:৩৮

অর্ধ ম্যারাথন[সম্পাদনা]

পর্ব সাল পুরুষ বিজয়ী সময় (ঘন্টা:মিনিট:সেকেন্ড) মহিলা বিজয়ী সময় (ঘন্টা:মিনিট:সেকেন্ড)
৩৩ম ২০১৮  সালভাতোর গ্যামবিনো (ইতালি) ০১:০৯:৫৯  সোফিয়া হার্ডি (বেলজিয়াম) ০১:১৬:৩৭
৩২ম ২০১৭  টোবিয়াস শ্রেন্দল (জার্মানি) ০১:০৮:২৬  সুসান শ্রেন্দল (জার্মানি) ০১:২০:০৯
৩১ম ২০১৬  ওন্দেমাগেন সিড-এগাসসো (ইথিওপিয়া) ০১:০৭:৪৭  নোরা মিজ (জার্মানি) ০১:২০:৪১
৩০ম ২০১৫  টোবিয়াস শ্রেন্দল (জার্মানি) ০১:০৬:৪৫  শুসান ওলহর্ন (জার্মানি) ০১:২১:১৮
২৯ম ২০১৪  গিয়ানলুকা বরগেসি (ইতালি) ০১:০৮:৩১  টেরেসা মন্ট্রোন (ইতালি) ০১:১৯:০৮
২৮ম ২০১৩  ভেলেন্তিন আনতারহোজনার (জার্মানি) ০১:০৭:২৩  করিনা হারার (জার্মানি) ০১:১৪:০৪
২৭ম ২০১২  সোরেন কাহ (জার্মানি) ০১:০৪:৪৩  ইনগালেনা হোউক (জার্মানি) ০১:২১:৩৫
২৬ম ২০১১  শোরেন কাহ (জার্মানি) ০১:০৭:০৭  শুসান হান (জার্মানি) ০১:১৩:০২
২৫ম ২০১০  শোরেন কাহ (জার্মানি) ০১:০৭:৩১  বিয়াঞ্চা মেয়ের (জার্মানি) ০১:২১:৩৮

১০ হাজার মিটার দৌড়[সম্পাদনা]

পর্ব সাল পুরুষ বিজয়ী সময় (ঘন্টা:মিনিট:সেকেন্ড) মহিলা বিজয়ী সময় (ঘন্টা:মিনিট:সেকেন্ড)
২০১৮  ম্যাক্স ওয়েগান্ড (জার্মানি) ০০:৩২:০৯  জুলে ভেত্তের (জার্মানি) ০০:৩৬:৩৬
২০১৭  ক্লেমেন্টস ব্লেইস্তেইন (জার্মানি) ০০:৩০:৩৯  আন্দ্রা মিয়ের (সুইজারল্যান্ড) ০০:৩৫:৫১
২০১৬  জিলিও ভান গোন্দালেজ (স্পেন) ০০:৩১:৩২  লারা জেন ডায় (যুক্তরাজ্য) ০০:৩৫:৪০
২০১৫  সেবাস্তিয়ান হলমেন (জার্মানি) ০০:৩১:২৮  টিমা ফিসল (জার্মানি) ০০:৩৫:০৫
২০১৪  সেবাস্তিয়ান নেডলার (জার্মানি) ০০:৩১:৪৮  টিনা ফিসল (জার্মানি) ০০:৩৫:১৫
২০১৩  ম্যাথিও কোলোয়ি (অস্ট্রেলিয়া) ০০:৩১:১৪  জুলিয়া লিমডার্স (জার্মানি) ০০:৩৫:৩৭
২০১২  টোবিয়াস গ্রোবল (জার্মানি) ০০:৩০:৫৩  ভেরোনিকা ক্লিও পোহল (জার্মানি) ০০:৩৪:৪৮
২০১১  জোসেফ কাটিব (জার্মানি) ০০:৩১:৩০  ক্রিশ্চিনে শিলফার (জার্মানি) ০০:৩৪:৫৩
২০১০  জোসেফ কাটিব (জার্মানি) ০০:৩১:৩৮  জুলিয়া ভিয়েল্লেনার (জার্মানি) ০০:৩৪:২২

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Gasparovic, Juraj & Loonstra, Klaas (2011-10-10). Münich Median Marathon. Association of Road Racing Statisticians. Retrieved on 2011-10-28.
  2. Lennartz, Karl (2007). Marathonlauf. Chapter 2: Ost und West und gesamtdeutsch. (জার্মান). আইএসবিএন ৯৭৮-৩-৯৮১১৫১২-০-৬
  3. 2. medien.marathon.münchen: Ergebnisse. Championchip. Retrieved on 2011-10-28.
বিজয়ীর তালিকা

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]