মালয় ইউনিয়ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
মালয় ইউনিয়ন
ملايان اونياون
উপনিবেশ
১৯৪৬–১৯৪৮
পতাকা প্রতীক
রাজধানী কুয়ালালামপুর
ভাষাসমূহ মালয়
ইংরেজি
রাজনৈতিক গঠন উপনিবেশ
গভর্নর এডওয়ার্ড জেন্ট
ইতিহাস
 -  সংস্থাপিত ১ এপ্রিল ১৯৪৬
 -  ভাঙ্গিয়া দেত্তয়া হয়েছে ৩১ জানুয়ারি ১৯৪৮
আয়তন
 -  ১৯৪৮ ১,৩২,৩৬৪ বর্গ কি.মি. (৫১,১০৬ বর্গ মাইল)
মুদ্রা মালয়ী ডলার
পূর্বসূরী
উত্তরসূরী
ফেডারেটেড মালয় স্টেটস
প্রণালী বসতি
জোহর
কেদাহ
পেরলিস
কেলানতান
তেরেংগানু
মালয় ফেডারেশন
বর্তমানে অংশ  মালয়েশিয়া
সতর্কীকরণ: "মহাদেশের" জন্য উল্লিখিত মান সম্মত নয়
Malaysia ইতিহাস
ধারাবাহিকের একটি অংশ
The independence of Malaya and the merger proclamation of North Borneo and Sarawak to formed Malaysia.
প্রবেশদ্বার আইকন Malaysia প্রবেশদ্বার

মালয় ইউনিয়ন ছিল মালয় রাজ্যসমূহ এবং পেনাং ও মালাক্কার প্রণালী বসতির সমন্বয়ে গঠিত একটি ইউনিয়ন। এটি ব্রিটিশ মালয়ের উত্তরসূরি এবং একটি একক সরকারের অধীনে মালয় উপদ্বীপকে একতাবদ্ধ করার জন্য গঠিত হয়। মালয়ীদের বিরোধিতার পর ১৯৪৮ সালে তা মালয় ফেডারেশন হিসেবে পুনর্গঠিত হয়।

মালয় ইউনিয়ন গঠন[সম্পাদনা]

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পূর্বে ব্রিটিশ মালয় তিনটি গ্রুপ নিয়ে গঠিত ছিল। এগুলি হল ফেডারেটেড মালয় স্টেটসের প্রটেক্টরেট, নিরাপত্তাধীন পাঁচটি মালয়ী রাজ্য এবং প্রণালী বসতির উপনিবেশ।

১৯৪৬ সালের ১ এপ্রিল ফেডারেটেড মালয় স্টেটস, আনফেডারেটেড মালয় স্টেটস ও প্রণালী বসতি নিয়ে মালয় ইউনিয়ন আনুষ্ঠানিকভাবে স্থাপিত হয়। স্যার এডওয়ার্ড জেন্ট এর গভর্নর হন। ইউনিয়নের রাজধানী ছিল কুয়ালালামপুর। সিঙ্গাপুর পৃথক উপনিবেশ হিসেবে শাসিত হত।

১৯৪৫ সালের অক্টোবরে ব্রিটিশরা প্রথম ইউনিয়নের ধারণা প্রকাশ করে।[১] স্যার হ্যারল্ড ম্যাকমাইকেলকে এই বিষয়ে মালয়ী শাসকদের সমমতি আদায়ের দায়িত্ব দেয়া হয়। তিনি এতে সফল হন। শাসকরা সম্মতি দিলেও এ নিয়ে তাদের অনিচ্ছা ছিল।

ব্রিটিশ মালয় বা সিঙ্গাপুরে জন্মগ্রহণকারী এবং ১৯৪২ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির পূর্ব থেকে বসবাসকারী, ব্রিটিশ মালয় বা প্রণালী বসতির বাইরে জন্মগ্রহণকারী কিন্তু তাদের বাবা মালয় ইউনিয়নের নাগরিক ছিল এমন ব্যক্তি এবং ১৮ বছর হয়েছে ও ১৯৪২ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির পূর্বের ১৫ বছরের মধ্যে ১০ বছর ব্রিটিশ মালয় বা সিঙ্গাপুরে বসবাস করেছে এমন ব্যক্তিদেরকে নাগরিকত্ব দেয়ার বিধান করা হয়। এছাড়া আবেদনের মাধ্যমে নাগরিকত্বের ব্যবস্থাও রাখা হয়। তবে নাগরিকত্বের প্রস্তাব বাস্তবে প্রয়োগ হতে পারেনি। বিরোধিতার কারণে তা বাতিল হয়ে যায়।[২]

মালয় রাজ্যসমূহের সুলতানরা ধর্মীয় বিষয়াদি ছাড়া বাকি বিষয় ব্রিটিশদের কাছে হস্তান্তর করে। একজন ব্রিটিশ গভর্নরের অধীনে মালয় ইউনিয়নকে প্রদান করা হয়। এছাড়াও রাষ্ট্রীয় কাউন্সিল তাদের স্বায়ত্তশাসন হারায়। সুলতানদের স্থলে ব্রিটিশ রেসিডেন্টদেরকে রাষ্ট্রীয় কাউন্সিলের প্রধানের পদে বসানোর ফলে সুলতানদের রাজনৈতিক ক্ষমতা হ্রাস পায়।[৩]

১৯৪৬ সালে একটি সুপ্রিম কোর্ট স্থাপিত হয়। হ্যারল্ড কারওয়েন উইলান ছিলেন এর একমাত্র প্রধান বিচারপতি।[৪]

বিরোধিতা, ভাঙ্গন এবং মালয় ফেডারেশনের প্রতিষ্ঠা[সম্পাদনা]

মালয় ইউনিয়নের বিরুদ্ধে মালয়ীদের প্রতিবাদ।

মালয়ীরা এই ইউনিয়নের বিরোধিতা করেছিল। সুলতানদের রাজনৈতিক অধিকার চলে যাওয়ার কারণে মালয়ীরা মাথায় সাদা ব্যান্ড পড়ে শোক প্রকাশ করেছিল। ১৯৪৮ সালের ১ ফেব্রুয়ারি মালয় ইউনিয়ন বিলুপ্ত হয় এবং মালয় ফেডারেশন গঠিত হয়।

মালয়েশিয়ার উদ্ভব[সম্পাদনা]

Evolution of Malaysia

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. CAB 66/50 'Policy in Regard to Malaya and Borneo'
  2. Carnell, Malayan Citizenship Legislation, International and Comparative Law Quarterly, 1952
  3. [১]
  4. Ming Ho, Tak। Generations: The Story of Batu Gajah। পৃ: ১৬৫। 

টেমপ্লেট:British Malaya টেমপ্লেট:British overseas territories

স্থানাঙ্ক: ৩°০৮′ উত্তর ১০১°৪২′ পূর্ব / ৩.১৩৩° উত্তর ১০১.৭০০° পূর্ব / 3.133; 101.700