মনিকা বাত্রা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মনিকা বাত্রা
জাতীয়তাভারতীয়
জন্ম (১৯৯৫-০৬-১৫) ১৫ জুন ১৯৯৫ (বয়স ২৩)
দিল্লী, ভারত
উচ্চতা১.৮৩ মি (৬ ফু ০ ইঞ্চি) (২০১৮)
ওজন৬৬ কেজি (১৪৬ পা) (২০১৮)[১]

মনিকা বাত্রা (জন্ম: ১৫ জুন, ১৯৯৫) একজন ভারতীয় টেবিল টেনিস খেলোয়াড়। ২০১৮ সালের এপ্রিলের সময়ানুসারে তিনি ভারতের সর্বোচ্চ মানের মহিলা টেবিল টেনিস খেলোয়াড়, বিশ্বে  তার স্থান ৫৮তম।[২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

মনিকা তিন ভাইবোনের কনিষ্ঠা রূপে জন্মগ্রহণ করেন[৩]। তিনি দিল্লীর নারায়ণা বিহারে থাকেন[৪] এবং চার বয়স থেকে টেবিল টেনিস খেলা শুরু করেন। [৫] তাঁর বড় বোন আঁচল এবং বড় ভাই সাহিল দুজনেই টেবিল টেনিস খেলতেন[৬]। তাঁর প্রারম্ভিক খেলোয়াড় জীবনে আঁচলের প্রভাব পড়ে।[৭] রাজ্যস্তরের অনুর্ধ ১৮ টুর্নামেন্টের একটি ম্যাচ জেতার পর তিনি কোচ সন্দীপ গুপ্তার কাছে টেবিল টেনিস খেলা শিখতে আগ্রহী হন। কোচ সন্দীপ গুপ্তা তাঁকে হংস রাজ মডেল স্কুলে, যেখানে তাঁর একাডেমী আছে, সেখানে আসতে বলেন।

মনিকা কিশোরী সময়ে বহু  মডেলিং এর প্রস্তাব প্রত্যখ্যান করেন। [১] ১৬ বছর বয়সে সুইডেনের পিটার কার্লসন একাডেমীতে ট্রেনিং এর জন্য  বৃত্তির সুযোগ প্রত্যখান করেন।[৮] তিনি  টেবিল টেনিসএ মনোনিবেশ করার জন্য পড়াশুনা ছাড়ার আগে  জিসাস এন্ড  মেরি কলেজে একবছর পড়াশুনা করেন।[৯]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

২০১১ সালে, মনিকা চিলি ওপেনে অনুর্ধ ২১ দলে রৌপ্য পদক জেতেন।[৫] তিনি ২০১৪ সালে এশিয়ান গেমসের সাথে গ্লাসগোতে কমনওয়েলথ গেমসেও ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেন, যেখানে তিনি কোয়ার্টার ফাইনালিস্ট[৬] হিসাবে শেষ করেন। তিনি ২০১৫ সালের কমনওয়েলথ টেবিল টেনিস চ্যাম্পিয়নশীপে তিনটি পদক জেতেন[৭], মহিলা দলগত প্রতিযোগিতায় রৌপ্যপদক (অমিতা দাস এবং মৌমা দাস) এবং মহিলা দ্বৈত ইভেন্টে অঙ্কিত দাসের সংগে রৌপ্যপদক এবং মহিলা ব্যক্তিগত ইভেন্টে কংসপদক জয় করেন।[১০]

২০১৬ দক্ষিণ এশিয়ার গেমসে মহিলা দ্বৈত ইভেন্টে (পূজা সহস্রাবোধের সঙ্গে), মিশ্র দ্বৈত ইভেন্টে (অ্যান্থনি আমালরাজের সঙ্গে) এবং মহিলা দল ইভেন্টে (মৌমা দাস এবং শামিনি কুমারেশান সহ) জিতে, মনিকা তিনটি স্বর্ণ পদক জেতেন।[১১] তিনি চতুর্থ স্বর্নপদক থেকে বঞ্চিত হন মহিলা ব্যক্তিগত ইভেন্টে চূড়ান্ত পর্যায়ে মৌমা দাশের কাছে পরাজিত হয়ে।[১২] ২০১৬ সালের এপ্রিল মাসে যোগ্যতা প্রতিযোগিতার দক্ষিণ এশীয় দলে জিতে তিনি ২০১৬ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে মহিলা ব্যক্তিগত ইভেন্টের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেন।[১৩] তবে, ২০১৩ সালের অলিম্পিকে ব্যক্তিগত ইভেন্টের প্রথম রাউন্ডেই ক্যাটরিনা গ্রিজব্লোস্কার নিকট পরাজিত হয়ে অলিম্পিকে তাঁর উপস্থিতি স্বল্পস্থায়ী হয়।[১৪]

২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসে মনিকা ভারতীয় মহিলা দলকে স্বর্ণপদকের দিকে নেতৃত্ব দেন, চারবারের স্বর্ণপদক জয়ী এবং সিঙ্গাপুরের চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে ফাইনালে স্বর্ণপদক জিতে।[১৫] ২০০২ সালে কমনওয়েলথ গেমসে এই খেলাটি শুরু হওয়ার পর থেকে সিঙ্গাপুরের মহিলা টেনিস টেনিস দল কমনওয়েলথ গেমসে কখনোই হারেননি. বাত্রা ফাইনালে ভারতের ৩-১ জয়ের পথে বিশ্বের ৪ নম্বর ফেং তিয়ানউই সেইসাথে ঝোউ ইয়ানকে পরাজিত করেন ।[১৬][১৭]

২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসে মনিকা এবং মৌমা দাস মহিলা দ্বৈত বিভাগে প্রথম রৌপ্য পদক প্রাপ্তির মধ্য দিয়ে স্বর্ণপদক প্রতিযোগিতা সিঙ্গাপুরের চ্যাম্পিয়ন ফেং তিয়ানউই ও ইউ ম্যাঙ্গিউএর কাছে হেরে যান। মনিকা বাত্রা ২০১৮ সালে কমনওয়েলথ টেবিল টেনিসে ব্যক্তিগত স্বর্ণপদক প্রাপকে ১ ম ভারতীয় মহিলা, এইবারের ইভেন্টগুলি বাত্রার জন্য স্বপ্নের দৌড়ের মত কারণ যে ৪টি ইভেন্টে তিনি অংশগ্রহণকারী ছিলেন তাতে ৪টি পদক পান যার মধ্যে ছিল ২টি স্বর্ণ, ১টি রৌপ্য পদক এবং ১টি তাম্র পদক।[১৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Manika Batra"। Glasgow 2014। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৬ 
  2. "BATRA Manika (IND) - WR List 6/2016"। ITTF। ১৭ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ আগস্ট ২০১৬ 
  3. Judge, Shahid (৩ জুলাই ২০১৬)। "India's table tennis hope for Rio 2016 Olympics – Manika Batra"The Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১৬ 
  4. "Paddler Manika Batra completes hat-trick of gold medals at South Asian Games"News18। ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০১৬ 
  5. "Manika Batra: the new hope of the nation"The Hindu। ২১ আগস্ট ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৬ 
  6. Sen, Debayan (২৭ জুলাই ২০১৬)। "Manika Batra looks to Rio and beyond"ESPN.in। সংগ্রহের তারিখ ২ আগস্ট ২০১৬ 
  7. Ghoshal, Shuvro (১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬)। "Interview with Manika Batra: "I don't want to go to Rio Olympics and return without a medal""Yahoo!। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০১৬ 
  8. Judge, Shahid (১৮ ডিসেম্বর ২০১৫)। "Improved fitness key to Manika Batra's consistency"The Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৬ 
  9. Patra, Pratyush (৬ মে ২০১৬)। "Delhi love & Rio talk before Olympics"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১৬ 
  10. Keerthivasan, K. (২১ ডিসেম্বর ২০১৫)। "Singapore sweeps singles titles"The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১৬ 
  11. "Rio Zone – Manika Batra: Nation's new hope"Pune Mirror। ১ জুন ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৬ 
  12. "South Asian Games: India clean sweeps 12 medals in Table Tennis"Ten Sports। ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১৬ 
  13. "Table Tennis: Soumyajit Ghosh, Manika Batra book Rio Olympics berths with victories in Asian Qualifiers"DNA India। ১৪ এপ্রিল ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৬ 
  14. "Rio Olympics 2016: Mouma Das, Manika Batra lose as Indian women's challenge in table tennis ends"। First Post। ৬ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১৬ 
  15. "Manika Batra leads India to historic women Table Tennis gold at Commonwealth Games"The Economic Times। ৮ এপ্রিল ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৮ এপ্রিল ২০১৮ 
  16. "CWG 2018: India women win gold in table tennis team event"। Commonwealth Games News। Times of India। ৮ এপ্রিল ২০১৮। 
  17. eisamay.indiatimes.com। "CWG2018: টেবিল টেনিসে সোনা জিতে ইতিহাস মহিলাদের - Eisamay"eisamay.indiatimes.com। সংগ্রহের তারিখ ১৯ এপ্রিল ২০১৮ 
  18. "Manika Batra wins bronze in the mixed doubles to win her fourth medal"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৮