মধ্যাঙ্গুলি প্রদর্শন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

টেমপ্লেট:Use mdy dates

দ্য ফিঙ্গার

পশ্চিমা সংস্কৃতিতে, মধ্যম অঙ্গুলি প্রদর্শনীকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি বলে ধরে নেওয়া হয়।[১] এই ইঙ্গিতের সাধারণ অর্থ থেকে অনেক খারাপ অর্থ হতে পারে। উদাহরণস্বরূপ : "fuck off," "fuck you,"(ব্যুৎপত্তিগত অর্থ যৌনকর্ম কর, হলেও সাধারণ অর্থ 'দুর ছাই' হিসেবে বর্তমানে ব্যবহৃত হয়) বা "তোমার পায়ুপথে এটাকে (মধ্যম অঙ্গুলিকে) প্রবেশ করাও" বা "নিজেই নিজের সাথে যৌনকর্ম কর", এরুপ নানান অর্থ বর্তমানে ব্যবহার করা হয়। এই কাজটি করার সময় প্রথমে হাতকে পিছন করে ফেলতে হয়, তারপর হাতকে মুঠি করতে হয়(অর্থাৎ আঙ্গুলগুলোকে ভাজ করতে হয়), শুধুমাত্র মধ্যম আঙুল প্রসারিত করে, পতাকার মত উপর দিকে করে রাখতে হয়। অনেক সংস্কৃতিতে বিশেষ করে পশ্চিমা বিশ্বে এটা খুবই খারাপ বা অশ্লীলতার চিহ্ন হিসেবে বিবেচিত হয়। অনেক সংস্কৃতি এই ইশারাকে অসম্মান করার প্রতীক হিসেবে ব্যবহার করে যদিও বেশিরভাগই অন্য সংস্কৃতিকে অসম্মান করার ইচ্ছা না থাকলেও স্বভাবশত এই ঈংগিত দেখিয়ে ফেলে। এটি ঘৃণা বুঝানোর জন্য ব্যবহৃত হওয়ার কথা থাকলেও অনেকে তিরিক্ষি মেজাজের কারণে বা খেলাচ্ছ্বলে এই ঈঙ্গিত একে অপরকে করে থাকে।

প্রাচীন গ্রিস থেকে এর উৎপত্তি হলেও প্রাচীন রোমেও এর ব্যবহার দেখা যায়। ঐতিহাসিকভাবে এর প্রতীকি অর্থ হয় লিঙ্গমূর্তি(লিঙ্গের উত্তেজক অবস্থা) আধুনিক সংস্কৃতিতে এই ইঙ্গিত অসম্মানের প্রতীক হিসেবে বিবেচিত হয়। বিভিন্ন এটা মিউজিক আর্টিস্ট(যেমন:হার্ডকোর পাঙ্ক ব্যাণ্ড এবং হিপ-হপ সঙ্গীতে ব্যবহৃত হয়), অভিনেতা, রাজনীতিবিদদের দ্বারা অনেকসময় এই ঈশারা ব্যবহৃত হয়। বেশিরভাগ মানুষই একে অশ্লীল ইঙ্গিত হিসেবে দেখে। দ্য ফিঙ্গার হিসেবে মধ্যম আঙুল যখন দেখানো হয়, তর্জনী এবং অনামিকা আঙ্গুল যা মধ্যম আঙুলের পাশে অবস্থিত, সেগুলোকে নোয়ানো অবস্থায় শুক্রাশয় হিসেবে বিবেচনা করা হয়।[২]

সূচনা[সম্পাদনা]

ঐতিহ্যবাহী যুগ[সম্পাদনা]

চিত্রশিল্পী জিন লিওন জিরোম দ্বারা ডিওগেনস এর অঙ্কিত ছবি। ডিওগেনস বাস করতেন বিশাল চায়ের কাপের মত দেখতে একটি ঘরে। কোনো আগন্তুক যদি তার কাছে বাগ্মী ডেমোসথেনসকে দেখতে ইচ্ছা প্রকাশ করত, তাহলে তিনি তার মধ্যাঙ্গুলী দেখিয়ে দিতেন এবং বলতেন এটা তোমাদের মত এথেনিয়ানস" এর জননেতার জন্য।[৩]

প্রাচীনকাল থেকেই মধ্যমাঙ্গুলি প্রদর্শন করাটা যৌন সঙ্গম করার প্রতীক হিসেবেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে। যাকে এই ইঙ্গিত করা হয়, তাকে ভীত করা, তার সম্মানহানি করা অথবা হুমকি দেওয়ার প্রতীক হিসেবে এই ইঙ্গিতের ব্যবহার চলে আসছে বহু কাল থেকেই।[৪] মধ্যমাঙ্গুলি প্রসারিত অবস্থায়- পুংদণ্ড, আর তার দুইপাশের আঙ্গুল বাঁকানো অবস্থায় শুক্রাশয়, মধ্যমাঙ্গুলি দেখানোর এটাই অর্থ হয়।[৫]ভুমধ্য জগতের প্রথম শতকে, মধ্যম আঙ্গুল দিয়ে সৌভাগ্যের জাদু প্রয়োগ করা হত। শয়তানী দৃষ্টিকে ব্যর্থ করে ভাগ্য পরিবর্তন করার জন্য এই অঙ্গুলী ব্যবহার করা হত।[৬][৭]

গ্রিক ভাষায় একে বলা হয় কাটাপাইগন(katapygon) [৮][৯] (κατάπυγον, kata – κατά, (কাটা) শব্দের অর্থ"নিম্নভিমুখী"[১০] এবং pugē(পুজ) শব্দের অর্থ, "পশ্চাৎদেশ"।[১১]). প্রাচীন গ্রিক হাস্যরসাত্মক নাটকে আঙ্গুল দেখানো ছিল অপমানের প্রতীক। katapugon(কাটাপুগন) শব্দটি পুরুষের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হত, যার অর্থ দাড়ায়, "একজন পুরুষ যে পায়ুপথে কিছু ঢুকাতে চাচ্ছে" একই অর্থ নারীর ক্ষেত্রেও ব্যবহৃত হত, তবে এক্ষেত্রে নারীর জন্য ব্যবহার করা হত "katapygaina"(কাটাপাইগানিয়া) শব্দ।[১২][১৩] এরিস্টোফেনের' রসাত্মক নাটক The Clouds (খ্রিষ্ঠপুর্ব ৪২৩),[১৪] এ সক্রেটিস নামক একটি চরিত্র তার ছাত্রদের পয়েটিক মিটার(কবিতার ছন্দ বিশ্লেষণের কাঠামোগত প্রক্রিয়া) অনুসারে প্রশ্ন করার সময় স্ট্রেপ্সিয়াডস বলে, সে ভালোভাবেই জানে ডাকটিল(কবিতার ছন্দ) কী, এবং তারপর সে আঙ্গুল দেখায়। দৃশ্যত এই শ্লেষাত্মক ইঙ্গিতের দুইটা অর্থ হয়,একটি হচ্ছে শুধুমাত্র "আঙ্গুল" এবং অপরটি শব্দ কতটা ছন্দময় হয়েছে তা।[১৫]) সক্রেটিসের কাছে স্ট্রেপ্সিয়াডসের কাজ বর্বর এবং শিশুসুলভ মনে হয়েছিল।[১৪][১৬] এই ইঙ্গিত হাস্যকর হিসেবে উঠে এসেছে পিচ নাটকেও, কারোও মুখের উপর জৈবিক বাষ্প(পাদ) উদগীরণ করলে যে অবস্থা হয়, ঠিক সেই অর্থই সেখানে বুঝানো হয়েছে।[১৭][১৮] যদিও এর ব্যবহার সম্বন্ধে পরে সঠিকভাবে আলোচনা করা হয়েছে সুদাতে(গ্রিক এনসাইক্লোপিডিয়া), এটা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে দার্শনিক এরাসমুসের টীকাতেও[১৯][২০] এই বিষয় নিয়ে কাজ উঠে এসেছে এরিস্টোফেনসের খণ্ডাংশতেও।[২১][২২] এর ব্যবহার "সুদা"তে পুনরায় ব্যাখ্যা করা হয়, যেখানে বলা হয়, মধ্যাঙ্গুলী দেখানোর মানে হলো, " আঙ্গুল দিয়ে গুহ্যদ্বার স্পর্শ করা"।[২৩] ডিওজেনস লেয়েরটাস (দার্শনিক) সংরক্ষণ করেছেন যে কিভাবে শুভনাস্তিক্যবাদী ডিওজেনস তার্কিক ডেমসথেনেসকে খ্রিষ্ঠপুর্ব ৪র্থ শতকে অঙ্গুলি দেখিয়েছিলেন।[৩] ডিওজেনস প্রকৃতপক্ষে সপহিস্ট(ছন্দ বিশ্লেষক) হলেও তিনি ডিসকোর্স অব এপিকটেটাসে এ ঈঙ্গিত সম্বন্ধে আলোচনা করেন।[২৪]

ল্যাটিনে মধ্যমাঙ্গুলি প্রদর্শন করা অশ্লীলতা, অশোভন।[৫] খ্রিষ্ঠাব্দের প্রথম শতকের পারসিয়াসের(স্যাটায়ার লেখক) কুসংস্কারচ্ছন্ন মহিলা আত্মীয় ছিল, যারা অঙ্গুলি ব্যবহার করে জাদুটোনা করত।[২৫][২৬] স্যাটিকনে(ল্যাটিন সাহিত্য) একজন বৃদ্ধা মহিলা ধুলিকণা, থুতু এবং তার মধ্যমাঙ্গুলি কপালে ছুয়ে জাদু করত; এমনটা দেখা যায়।[২৭] মার্টিয়াল নামক একজন সুস্বাস্থ্যের অধিকারী কবি ছিলেন। তিনি ছিলেন তিনজন ডাক্তারের মধ্যে অন্যতম অশ্লীল আচরণকারী ডাক্তার।[৫][২৮] তার নিজস্ব এপিগ্রামে (শ্লেষাত্মক অণু গদ্য (epigram),তিনি লিখেছিলেন; "উচ্চস্বরে হাসো, যৌনকাতুর হও; এতে করে কেও যদি তোমাকে cinaedus(যে নিজের পছন্দ অনুসারে যৌন অভিমুখ নির্ধারণ করে) বলে তাহলে তাকে মধ্যাঙ্গুলী দেখিয়ে দাও।"[২৯][৩০] জুভেনাল synecdoche(সিনেকডোচি) ব্যবহার করে ভাগ্যদেবতা ফরচুনাকে মধ্যমআঙ্গুলের নখ" দ্বারা হুমকি দিয়েছেন।[৩১] এই অশোভন আঙ্গুল ব্যবহার প্রিয়াপেয়াতে (লিঙ্গ দেবতা প্রিয়াপাসকে উদ্দেশ্য করে কবিতার সংকলন) হাস্যরসাত্মক হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে।[৩২] এই অশোভন ইঙ্গিতটি সেভাইলের(বিশপ) সাহিত্যকর্ম ইটিমোলোজিতে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, কাওকে লজ্জ্বাজনক কাজে অভিযুক্ত করার সময় এই ঈঙ্গিত করা হত।[৩৩]

১৮৮৬ সালের বেসবল খেলোয়াড় ওল্ড হাউস রেডবোউর্ন এর ছবি। এই ছবিটিকেই মধ্যাঙ্গুলী দেখানো হচ্ছে এরকম প্রথম ছবি হিসেবে ধরা হয়। পিছনের সারি বামদিক থেকে খেলোয়াড় আলোকচিত্রীকে অঙ্গুলী দেখাচ্ছে।[৩৪]

আধুনিক যুগ (যুক্তরাষ্ট্র)[সম্পাদনা]

ভাষাতত্ত্ববিদ জেসে শেইডলোয়ার যুক্তরাষ্ট্রে ১৮৯০ এর সময় থেকে এই ইঙ্গিতের; ধীরে ধীরে বহুল ব্যবহৃত হবার প্রমাণ খুজে পান। নৃতত্ত্ববিদ ডেসমণ্ড মরিসের, মতে ইতালীয় অভিবাসীদের দ্বারাই এই সংস্কৃতির যুক্তরাষ্ট্রে অনুপ্রবেশ ঘটেছে।[৫] যুক্তরাষ্ট্রে কখন থেকে এর ব্যবহার শুরু হয়েছে তার সুনির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণ নেই। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে অঙ্গুলী প্রদর্শনের প্রথম ইতিহাস সংরক্ষিত হয়  ১৮৮৬ সালে, ক্রীড়াবিদদের কারণে। ওল্ড হস রাডবোর্ন তার প্রতিপক্ষ দল নিউ ইয়র্ক জায়ান্টসের একজন সদস্যকে অঙ্গুলি প্রদর্শন করেন। সেসময় তা ক্যামেরাবন্দী হয়। রাডবোর্ন বোস্টন বিনেটারসের বেসবল পিচার(নিক্ষেপক) ছিলেন।[৫] Speedy (1928) নামক নির্বাক চলচ্চিত্রে হ্যারল্ড লিওড অভিনয় করার ২৪ মিনিটের মাথায় লুনা পার্কে আয়নায় নিজেকে প্রতিচ্ছবিকে বিকৃত করেন, বিকৃত করার সময় এই ইঙ্গিতটি তিনি ব্যবহার করেছিলেন। যদিও ঠিক কী অর্থে তিনি এ কাজটি করেছিলেন, তার অর্থ পরিস্কার নয়।

সাংস্কৃতিক প্রভাব[সম্পাদনা]

রাজনীতি এবং সামরিক বাহিনীতে অঙ্গুলি দেখানো[সম্পাদনা]

এই অশোভন ইঙ্গিতের সাথে জড়িয়ে রয়েছে উল্লেখ করার মত রাজনৈতিকঘটনাও। যেমন: ইউএসএস Pueblo ঘটনার ক্ষেত্রে,আমেরিকান জাহাজ উত্তর করিয়া দ্বারা আটক হয়। আমেরিকান ক্রুমেম্বাররা কোরিয়ানদের মধ্যাঙ্গুলী দেখান। উত্তর কোরিয়ানরা এই ঈঙ্গিতের প্রকৃত অর্থ সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল ছিল না। তাদেরকে আটককৃতদের একজন বলেন, এটা "হ্যাঙ লুস ইঙ্গিতের" মত সৌভাগ্যের প্রতীকচিহ্ন হিসেবে ব্যবহার করা হয়। কিন্তু যখন রক্ষীবাহিনী অবশেষে আমেরিকানদের কাছে এর প্রকৃত অর্থ কী তা বের করতে সক্ষম হলো, তখন সেসব ক্রুমেম্বারদের তারা নিপীড়ন করেছিল।[৩৫] এবি হফম্যান এই ঈঙ্গিত ১৯৬৮ সালে ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কনভেশনে ব্যবহার করেছিলেন।[৪]ক্যালিফোর্নিয়ার নগরপিতা থাকাকালীন রোনাল্ড রিগান মুলধারার সংস্কৃতিবিরোধী যারা বারকেলিতে সমাবেশ করছিলেন তাদের মধ্যাঙ্গুলী দেখান।[৪] এরপর যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট নেলসন রকফেলার প্রশ্নকর্তাদের(সাংবাদিক) ১৯৭৬ সালে অঙ্গুলী দেখান, এর নামই হয়ে যায় "Rockefeller gesture"(রকফেলার ইঙ্গিত)।[৪] কানাডার প্রধানমন্ত্রী পিয়েরে ট্রুডো এরপর সালমন আর্মে তার বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীদের মধ্যম অঙ্গুলী দেখান।[৩৬] এই ঘটনাটিকে এরপর থেকে "Salmon Arm salute"(সালমন আর্ম স্যালুট) বলা হয়।[৩৭] কেও কেও অবশ্য একে "Trudeau salute"(ট্রুডো স্যালুটও) বলে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ অস্টিন প্রোডাকশন অনুষদে টেক্সাসের শাসনকর্তা হিসেবে ক্যামেরার সামনে এই আঙ্গুল দেখান এবং তিনি বলেন এটা আমি এক আঙুলের বিজয় চিহ্ন হিসেবে দেখিয়েছি।[৩৮] এন্থনি ওয়েনার ২০১৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের মেয়র নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর তার নির্বাচনী হেডকোয়ার্টার ত্যাগ করার পর সাংবাদিকদের এই অঙ্গুলী দেখান।[৩৯]

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর একটি গ্রুপ যাদের নাম 91st Bombardment Group মধ্যাঙ্গুলী দেখানোর এ পদ্ধতিকে "rigid digit" salute(অনমনীয়/দৃঢ় সালাম) বলে অভিহিত করে। এটা জনৈক বৈমানিক ভুল করে করে ফেলেছিলেন। ব্রিটিশরা অসচেতন থাকলে এই ঈংগিত গালি হিসেবে ব্যবহার করেন। (তাদের কাছে এর অর্থ " তোমার আঙ্গুল তোমার পশ্চাৎদেশে ঢুকাও").[৪০] যুদ্ধের পর থেকে ৯১ এর যোদ্ধাদের সংগঠন অভিজ্ঞ অফিসারদের দ্বারা মধ্যাঙ্গুলি দেখানো হচ্ছে এইরুপ- প্রতীক খোদাই সমৃদ্ধ কাঠের ট্রফি দেওয়া হয়।[৪১] ২০০৫ সালে ইরাকে যুদ্ধের সময় Michael Burghardt নামে একজন সার্জেন্ট বিখ্যাত হয়ে যান শুধুমাত্র আঙ্গুল দেখানোর কারণে। ইরাকি বিদ্রোহীরা তাকে মারার জন্য হাতবোমা ছুড়েন। কিন্তু তারা তাকে মারতে ব্যর্থ হয়। তখন তিনি তাদের উদ্দেশ্যে মধ্যম অঙ্গুলী প্রদর্শন করেন। আর সেই ছবিই ওমাহা ওয়ার্ল্ড হেরাল্ড প্রকাশ করে।[৪২]

মধ্যম আঙুল দেখানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে কেস আদালত পর্যন্তও গড়িয়েছে। হার্টফোর্ড এর আপিল বিভাগ ১৯৭৬ সালে রুল জারি করে বলেন, মধ্যম আঙুল প্রদর্শন অশোভন কিন্তু অশ্লীল নয়। আদালতের এ রায় দেওয়ার পিছনে প্রেক্ষাপট ছিল এক ১৬ বছরের শিক্ষার্থী পুলিশ অফিসারকে মধ্যম আঙুল দেখায়, এতে পুলিশ ক্ষিপ্ত হয়ে তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে।[৪৩] কানেক্টিকাট সুপ্রিম কোর্টে এবিষয়ে আপিল করা হলে কোর্ট এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন।[৪৪][৪৫] মার্চ ২০০৬ সালে ফেডারেল আইন একে বাকস্বাধীনতার অংশ বলে আখ্যা দেয়।[৪৬]

মধ্যম আঙুল দেখানোর ফলে খারাপ ঘটনারও নজির আছে। একজন মালেশিয়ান ব্যক্তি মোটর গাড়ির চালককে মধ্যম আঙুল দেখানোর কারণে; চালক তাকে মুগুর দিয়ে পিটিয়ে মেরেই ফেলেন।[৪৭] একজন পাকিস্তানিকে ডুবাই থেকে বিতাড়িত করে দেওয়া হয় শুধুমাত্র মধ্যম আঙুল দেখানোর অভিযোগে ।[৪৮]

জনগণ অনেক সময় একে রাজনীতিবিদদের বিভিন্ন কার্যক্রমের বিরোধিতা হিসেবে প্রকাশ করে। একটি কনসার্টে রিকি মার্টিন ইরাকে মার্কিনীদের যুদ্ধের প্রতিবাদ স্বরুপ জর্জ ডব্লিউ বুশের ছবিকে উদ্দেশ্য করে মধ্যম আঙ্গুল প্রদর্শন করেন।[৪৯] স্লোবোডান মিলোসেভিকের সমর্থনে সেবরিয়ার আন্দোলনকারীরা রাশিয়ান এম্বাসিকে মধ্যম অঙ্গুলী প্রদর্শন করে।[৫০] কারুশিল্পী এই ওয়েউই এই অঙ্গুলীকে রাজনৈতিক বিবৃতি হিসেবে ভাস্কর্য এবং ছবির মধ্যে ফুটিয়ে তুলেছিলেন।[৫১] ক্রেজ রাষ্ট্রপতির কাছে রাজনৈতিক বার্তা হিসেবে ক্রেজ কারুশিল্পী ডেভিড চের্নি; রক্ত-বেগুনী বর্ণের মধ্যম অঙ্গুলি দেখানো হচ্ছে এইরুপ খোদাই করা প্রতিকৃতি ভিল্টাভা নদীতে ভাসিয়ে দেন।[৫২]

জনপ্রিয় সংস্কৃতিতে[সম্পাদনা]

বোরনেওর কেনিনগাউইনের একদল শিশু প্লাস্টিকের ব্যাগ থেকে ইনহেলারের সাহায্যে শ্বাস নেওয়ার সময়আঙ্গুল দেখাচ্ছে।
ভল্টাভা নদর উপরে এ প্রতিকৃতি ভাসানো হয়েছিল। এ নদীর অবস্থান প্রাগু দুর্গের নীচে। এ ভাস্কর্যটি তৈরী করেছিলেন ডেভিড চের্নি। তিনি রাষ্ট্রপতি মিলস যিম্যানকে একটি বার্তা দিতে চেয়েছিলেন

বিভিন্ন সংস্কতিতে এর ব্যাপ্তি লক্ষ করা যায়। কোবরা স্টারশিপ নামক ব্যাণ্ড একটি গান গান যার নামই ছিল "মিডল ফিঙ্গার", তার সাথে সাথে তারা একটি মিউজিক ভিডিও রিলিজ করেন যেখানে দেখা যায় তারা জনগণকে মধ্যমাঙ্গুলি দেখাচ্ছে।[৫৩] ইতালীয় শিল্পী মাওরিজিও ক্যাটেলান একটি মার্বেল পাথরের মধ্যমাঙ্গুলি প্রদর্শনরত একটি ভাস্কর্য তৈরী করেন, যা ১১ মিটার (৩৬ ফু) উঁচু। এটি মিলান স্টক এক্সচেঞ্জের সামনে অবস্থিত।[৫৪] ইদানিং কালে জনপ্রিয় হয়ে উঠা ফটোগ্রাফার জনি ক্যাশ) ১৯৬৯ সালে একটি অনুষ্ঠানে এই অঙ্গুলী দেখান।[৫৫] ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত এই ছবিটা অজ্ঞাতই ছিল, কিন্তু প্রযোজক রিকি রুবিন দেশের রেডিওব্যবস্থাকে সমালোচনা করে এই ছবিকে বিলবোর্ডে ব্যবহার করেন।[৫৬] ক্যামেরন ডিয়াজ স্কয়ার ম্যাগাজিনে নিজের ফটোশুটের সময় মধ্যাঙ্গুলী দেখানো হচ্ছে এই ধরনের ছবি ব্যবহার করেছেন।[৫৭] হ্যারন ল্যায়িড ১৯২৮ সালে নির্বাক চলচ্চিত্র স্পিডীতে কনি দ্বীপে নিজের প্রতিচ্ছবিকে মধ্যাঙ্গুলী দেখান।[৫৮]

বিভিন্ন ক্রীড়াবিদ যেমন: স্টিফেন এফেনবার্গ, রন, লুইস সুয়ারেজ, জুয়ান পাবলো, আইভান রদ্রিগেজ, ড্যানি গ্রেভস, জ্যাক এমসিডোয়েল, নাতাসা জুভেরেভা, জোস স্মিথ, ব্রাইয়ান কক্স, এবং জনি ম্যানজিয়েল[৫৯] এর মত অনেকেই খেলা থেকে হয় নিষিদ্ধ হয়েছেন অথবা বিরাট অঙ্কের জরিমানা গুণতে হয়েছে।[৫][৫৭][৬০][৬১][৬২] জোস পানিয়াগুয়া Chicago White Sox নামক বেসবল আম্পায়ারকে মধ্যম আঙ্গুল দেখানোর কারণে নিষিদ্ধ হন।[৬০] Fan Appreciation Night এর ভক্তদের বেসবল নির্বাহী সংস্থার পরিচালক চাব ফেনি আঙ্গুল দেখান একারণে অভিযোগ উঠায় তিনি পদত্যাগ করেন।[৬০][৬৩] বাড এডাম, যিনি National Football League এর মালিক Buffalo Bills এর ভক্তদের খেলা চলাকালীন সময়ে দুইহাতের মধ্যম আঙ্গুল দেখানোর কারণে তাকে মার্কিন 250,000 ডলার জরিমানা করা হয়েছিল।[৬৪][৬৫] পেশাদার পালোয়ান (রেসলার) ও হলিউড অভিনেতা স্টোন কোল্ড স্টিভ অস্টিন প্রতিপক্ষকে তার নিজস্ব কৌশলে কুপোকাত করতে সফল হলে এক বা দুই হাতের মধ্যম অঙ্গুলি দেখান এবং এ জন্য তিনি বিখ্যাত।

বিভিন্ন সংগীতশিল্পী যেমন: ম্যাডোনা, লেডি গাগা, এমিনেম, আরিয়ানা গ্রেণ্ডে, কেটি পেরি এবং এডেল তাদের ভক্ত বা জনতার সামনে এই ইঙ্গিত বিভিন্ন সময় করেছেন।[৬৬][৬৭][৬৮] ব্রিটনি স্পেয়ারস এবং আইগি এজেলা পালারাজ্জির সদস্যদের অঙ্গুলি দেখান কিন্তু পরবর্তীতে যখন ভক্তরা তাদের দিকেই অঙ্গুলী দেখান তখন তারা এর জন্য ক্ষমা চান।[৫] এম.আই.এ সুপার বোউলের খেলা চলাকালীন অর্ধকালীন সময়ে অঙ্গুলি দেখান[৫][৬৯] জাতীয় ফুটবল লীগ, এন.বি.সি, এবং এম.আই.এ এর জন্য পরবর্তীতে ক্ষমা চায়।[৫][৭০] কিড রকের এলবাম Devil Without a Cause নামে যে সিডি(কমপ্যাক্ট ডিস্ক) বের হয়, সেখানে কভার ফটো হিসেবে তার মধ্যাঙ্গুলী ব্যবহার করা হয়। মোবি গ্রেপের প্রথম এলবাম হচ্ছে Moby Grape। সেখানের ব্যাণ্ড সদস্য ডন স্টিভেনসন মধ্যাঙ্গুলী ব্যবহার করে পাখি তৈরী করার সময় ক্যামেরায় ধরা পড়েন।

মোটরগাড়ি চালানোর সংস্কৃতিতে একজন চালক দেখা যায়; বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালানোর জন্য অন্য চালককে এই ঈঙ্গিত করে থাকে।[৭১]

মধ্যাঙ্গুলী দেখানোটাইউনিকোডেরও অন্তর্ভুক্ত হয়ে গেছেU+1F595 🖕 [৭২]

অনেকসময় মিডিয়া; কেও মধ্যম আঙ্গুলী দেখালে জনসম্মুখে এটা প্রচার চেষ্টা করে যে তর্জনী দেখাতে গিয়ে মধ্যম অঙ্গুলি ভুল করে দেখিয়ে ফেলা হয়েছে।[৬৩][৭৩][৭৪] উদাহরণস্বরুপ: ডন মেরিডিটের নাম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। তিনি ১৯৭২ সালে মানডে নাইট ফুটবল গেম চলাকালীন সময়ে ধারাভাষ্যকার ছিলেন। তিনি একজন বিষন্ন ওয়লার হোস্টন ভক্ত ক্যামেরার সামনে অঙ্গুলী দেখানোকে ব্যখ্যা করেন এইভাবে যে, "সে মনে করে তারা সর্বশেষ্ঠ এবং তারা সবকিছুতে প্রথম।[৭৫] একজন আইনবিষয়ক অধ্যাপক ইরা রবিনস বিশ্বাস করেন, এইঅঙ্গুলি প্রদর্শন কোনো প্রকার অশোভন ইঙ্গিত নয়।[৫] National Institute on Media and the Family এর প্রতিষ্ঠাতা শারীরতাত্ত্বিক ডেভিড ওয়ালস, দেখিয়েছেন কিভাবে "মধ্যম অঙ্গুলি প্রদর্শন" অসম্মান করার সংস্কৃতি হিসেবে সবার কাছে ব্যাপকভাবে গৃহিত হচ্ছে।[৫৭]

গুগল স্ট্রিট ভিউ Wisconsin Governor's Mansion এর আসপাশ থেকে একটি ছবি তুলে। তখন চলছিল ২০১১ সালের স্কট ওয়াকারের শাসনকাল। সেসময় একজন প্রাতঃভ্রমণকারী সেই ম্যানসনকে উদ্দেশ্য করে এই মধ্যমাঙ্গুলি প্রদর্শন করে।[৭৬]

সমতুল্য ঈঙ্গিত[সম্পাদনা]

বাম দিকের ইশারাটি বিজয়ের প্রতীক হিসেবে সর্বজনের কাছে গৃহীত। অন্যদিকে ডান দিকের ইঙ্গিতটিকে আপত্তিকর ইশারা বলে ধরা হয়।

যুক্তরাষ্ট্র, আয়ারল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, এবং নিউজিল্যাণ্ডে V sign অপমানজনক হিসেবে ব্যবহৃত হয় যখন কাওকে এই ইঙ্গিতটি হাতকে উল্টো বা পিছন দিকে করে দেখানো হয়। যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ অস্ট্রেলিয়াতে এক কুটনৈতিক সফরের সময় ভুল করে এই সাইন দেখিয়ে ফেলেছিলেন।[৭৭]স্পেইন, পর্তুগাল, ব্রাজিল এবং ফ্রান্সে এই ইঙ্গিত ভিন্ন অর্থ বহন করে। এই দেশগুলোতে এই ইঙ্গিতের অর্থ হল: হাতকে মুষ্ঠিবদ্ধ করে উপরের দিকে তুলা,এবং অন্য হাত দিয়ে মুষ্ঠিবদ্ধ হাতকে স্পর্শ করা। এই ইঙ্গিতকে বলা হয় 'ব্রাস ডি'ওনার অথবা আইবেরিয়ান চড়। রাশিয়া, বেলারুশ, এবং ইউক্রেনের, মত দেশগুলোর বেশিরভাগ জনগণই এই ইঙ্গিতটিকে পশ্চিমা সংস্কৃতির মতই অপমানজনক ইঙ্গিত বলেই ধরে নেয়।[৫]

মুসলিম দেশগুলো এবং তাদের সংস্কৃতিতে বুড়ো আঙ্গুলকে উর্ধ্বমুখী করে দেখানো, পাশ্চাত্য সংস্কৃতির মধ্যম আঙ্গুল দেখানোর মত একই অর্থ বহিন করে।[৭৮] হাতের পাচ আঙ্গুলকে পতাকার মত করে তালুসমেত প্রদর্শন করাও গ্রিস সমাজে অশ্লীল ইঙ্গিত রুপে পরিচিত। এই ইঙ্গিত যাকে করা হয়, তাকে বুঝানো হয়, "তার পাচজন পিতা রয়েছে", এবং সে একজন অবৈধ সন্তান.[৭৮] এই ইঙ্গিতকে বলা হয় মোউটজা[৭৯] তুর্কি এবং স্ল্যাভিক রাজত্বে ফিগ সাইন (যা পরিচিত নাহ অথবা শিস নামে) মধ্যম অঙ্গুলি প্রদর্শনের ন্যায় অশ্লীল ইঙ্গিত বহন করে। এই ইঙ্গিত দুই ধরনের অর্থ বহন করে। একটি অর্থ হচ্ছে কেও যদি কোনো অনুরোধ করে,এবং তার অনুরোধ প্রত্যাখানের সময় এই ইঙ্গিত করা হয়। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই ইঙ্গিত যাকে করা হয়, তাকে বুঝানো হয়, সে একজন নারী, এবং সর্বদাই সে কামের বস্তু। দুই আঙ্গুল দ্বারা নারীর যোনিকেই বুঝানো হয়। এই ভঙ্গিটা করার সময়, মধ্যমা এবং তর্জনিকে বাকিয়ে তালু স্পর্শ করতে হয়, আর বৃদ্ধাঙ্গুলিকে ডদুই আঙ্গুলের মধ্যে প্রবেশ করিয়ে তীর্যকভাবে রাখতে হয়। ইন্দোনেশিয়া, তুর্কি এবং চায়নাতে এই ঈঙ্গিত একইরুপ অশ্লীল অর্থ বহন করে।[৮০]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Kipfer, Barbara Ann; Chapman, Robert L. (২০০৮)। American Slang। HarperCollins। পৃষ্ঠা 165। আইএসবিএন 978-0-06-117947-1ওসিএলসি 191931926 
  2. Rosewarne, Lauren (২০১৩)। American Taboo: The Forbidden Words, Unspoken Rules, and Secret Morality of Popular culture। পৃষ্ঠা 51। 
  3. Diogenes Laertius"Lives of Eminent Philosophers VI.2.34" (Ancient Greek ভাষায়)। Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  4. Oricchio, Michael (জুন ২০, ১৯৯৬)। "Davis' Infamous Finger Salute Has Had a Big Hand in History; Folklorists: Roots Go Back At Least 2,000 Years To Ancient Rome"San Jose Mercury News। পৃষ্ঠা 16A। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৯, ২০১২  (সদস্যতা প্রয়োজনীয়)
  5. Nasaw, Daniel (ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১২)। "When did the middle finger become offensive?"BBC News Magazine। BBC। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১২ 
  6. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Corbill নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  7. Malina, Bruce J. (২০০১)। The New Testament World: Insights from Cultural Anthropology (3 সংস্করণ)। Louisville: Westminster John Knox Press 
  8. Liddell, Henry George; Robert Scott (১৯৪০)। "A Greek–English Lexicon: κατάπυγον"Oxford University Press (via Perseus Project)। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  9. Halperin, David M.; Winkler, John J. (১৯৯২)। Before Sexuality: The Construction of Erotic Experience in the Ancient Greek WorldPrinceton University Press। পৃষ্ঠা 186। আইএসবিএন 978-0-691-03538-3 
  10. Liddell, Henry George; Robert Scott (১৯৪০)। "A Greek–English Lexicon: κατά"Oxford University Press (via Perseus Project)। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  11. Liddell, Henry George; Robert Scott (১৯৪০)। "A Greek–English Lexicon: πυγή"Oxford University Press (via Perseus Project)। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  12. Cohen, Beth (২০০০)। Not the classical ideal: Athens and the construction of the other in Greek artBrill। পৃষ্ঠা 186। 
  13. Calame, Claude; Lloyd, Janet (১৯৯৯)। The Poetics of Eros in Ancient GreecePrinceton University Press। পৃষ্ঠা 136। আইএসবিএন 978-0-691-04341-8 
  14. Dover, K.J. (১৯৬৮)। Aristophanes CloudsOxford University Press। পৃষ্ঠা xvii, 181। আইএসবিএন 0-19-814395-8 
  15. Adams, J.N. (১৯৮২)। The Latin Sexual VocabularyJohns Hopkins University Press। পৃষ্ঠা 39। 
  16. Aristophanes"Clouds (ll. 650-6)"Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  17. Aristophanes"Peace (ll. 546-9)" (Ancient Greek ভাষায়)। Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  18. Liddell, Henry George; Robert Scott (১৯৪০)। "A Greek–English Lexicon: σκιμαλίζω"Oxford University Press (via Perseus Project)। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  19. "Suda On Line: Ἐσκιμάλισεν"। The Stoa Consortium। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  20. Erasmus (১৯৯২)। Adages III.iii.87University of Toronto Press। পৃষ্ঠা 311। আইএসবিএন 978-0-802-02831-0 
  21. Liddell, Henry George; Robert Scott (১৯৪০)। "A Greek–English Lexicon: σιφνιάζω"Oxford University Press (via Perseus Project)। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  22. Henderson, Jeffrey (১৯৭৫)। The Maculate Muse: Obscene Language in Attic ComedyYale University Press। পৃষ্ঠা 213। আইএসবিএন 978-0-300-01786-1 
  23. "Suda On Line: Σιφνιάζειν"। The Stoa Consortium। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  24. Arrian"Discourses of Epictetus III.2.i"Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  25. Persius"Satires II.33" (Latin ভাষায়)। Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  26. Erasmus (১৯৯২)। Adages II.iv.68University of Toronto Press। পৃষ্ঠা 225–6। আইএসবিএন 978-0-802-05954-3 
  27. Petronius"Satyricon 131" (Latin ভাষায়)। Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  28. Martial"Epigrammata VI.70.5" (Latin ভাষায়)। Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  29. Martial"Epigrammata II.28.1–2" (Latin ভাষায়)। Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  30. Williams, Craig Arthur (২০১০)। Roman HomosexualityOxford University Press। পৃষ্ঠা 223। আইএসবিএন 978-0-195-38874-9 
  31. Juvenal"Satire X.52-3" (Latin ভাষায়)। Perseus Project। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  32. Corbeill, Anthony (২০০৩)। Nature Embodied: Gesture in Ancient RomePrinceton University Press। পৃষ্ঠা 6। আইএসবিএন 978-0-691-07494-8 
  33. Achorn, Edward (২০১০)। Fifty-nine in '84: Old Hoss Radbourn, Barehanded Baseball, and the Greatest Season a Pitcher Ever Had। Smithsonian Books। পৃষ্ঠা 24। আইএসবিএন 978-0-06-182586-6 
  34. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Th Digit Affair নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  35. "Top aide put on spot over Trudeau's one-finger gesture"The Ottawa Citizen। আগস্ট ২৫, ১৯৮২। পৃষ্ঠা 11। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  36. "One-finger salute crude to Ont. Film Review Bd."Toronto। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৯, ২০১৫ 
  37. "Bush Giving Middle Finger - Bush Middle Finger Video"About.com Political Humor 
  38. Dolan, Laura; Flores, Rosa; McCaughan, Tim (সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৩)। "Weiner dodges sexting partner, flips the bird as he rides off"CNN.com। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৩ 
  39. Freeman, Roger A. (১৯৯০)। Mighty Eighth War Diary। Motorbooks Intl। আইএসবিএন 978-0879384951 
  40. The Ragged Irregular, Vol. 4, No. 3, April 1971. accessed online 1 Aug 2012 p.3
  41. টেমপ্লেট:Snopes
  42. "Raising middle finger not obscene, judges say"The Miami News। Associated Press। ডিসেম্বর ২৮, ১৯৭৬। পৃষ্ঠা 2A। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  43. "Leonard Backing Court Appeal On Middle Finger"The Hour। United Press International। জানুয়ারি ৮, ১৯৭৭। পৃষ্ঠা 5। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  44. Mulligan, Hugh A. (জানুয়ারি ৩০, ১৯৭৮)। "The Moving Finger Writes Legal History"The Evening Independent। পৃষ্ঠা 19-A। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  45. Reed Ward, Paula (মার্চ ১৪, ২০০৬)। "Middle finger salute leads to federal lawsuit"Pittsburgh Post-Gazette। পৃষ্ঠা B1। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১২ 
  46. "A fatal finger gesture"The Star। এপ্রিল ১৭, ২০১০। এপ্রিল ১৭, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৯, ২০১২ 
  47. "Dubai: Deportation for finger gesture man – News"। Scotsman.com। জানুয়ারি ৯, ২০১১। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৯, ২০১২ 
  48. "Daily News - Google News Archive Search"google.com 
  49. The Post and Courier – Google News Archive Search
  50. "MOMA – The Collection – Ai Weiwei. Study of Perspective – Tiananmen Square"Museum of Modern Art। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ১, ২০১২ 
  51. "Czech floating finger sends president message"BBC News 
  52. "Cobra Starship's 'Middle Finger' Video Is Bird-Flipping Fun – Music, Celebrity, Artist News"। MTV.com। জানুয়ারি ১৯, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৯, ২০১২ 
  53. "Middle finger sculpture pops up in front of Milan Stock Exchange"National Post। সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১০। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৯, ২০১২ 
  54. "The Story Behind Johnny Cash's Infamous Middle Finger Photo ::Johnny Cash News"। antiMusic.com। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৯, ২০১২ 
  55. "The Triggerman" (জুলাই ১৮, ২০১০)। "Johnny Cash's Famous Middle Finger"SavingCountryMusic.com। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ২, ২০১২ 
  56. "Milwaukee Journal Sentinel - Google News Archive Search"google.com 
  57. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Silent Viions: Discovering Early Hollywood and New York Through the Films of Harold Lloyd নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  58. "Johnny Manziel fined $12K for obscene hand gesture on Monday Night Football"Yahoo Sports। আগস্ট ২২, ২০১৪। 
  59. Waldman, Katy। "Baseball and the bird."Slate Magazine। Slate.com। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৯, ২০১২ 
  60. Laverty, Gene (এপ্রিল ২৫, ২০০৭)। "Montoya Fined $10,000 by Nascar for Finger Gesture Caught by TV"। Bloomberg। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  61. "Through the years with the crudest finger in sports"Sports Illustrated। ফেব্রুয়ারি ৫, ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  62. Wulf, Steve (এপ্রিল ৫, ১৯৮৯)। "All My Padres"Sports Illustrated। জুলাই ৯, ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা 
  63. "NFL fines Titans owner Bud Adams $250,000 for obscene gesture"Sporting News। Aol.sportingnews.com। Associated Press। নভেম্বর ১৬, ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  64. Mike Florio (নভেম্বর ১৮, ২০০৯)। "Could Bud Adams' middle finger endear NFL owners to fans?"Sporting News। Aol.sportingnews.com। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  65. "WTF! Ariana Grande & Jennifer Lawrence Middle Finger Drama! - Hollywire" 
  66. Kaufman, Gil (ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১২)। "M.I.A. Super Bowl Middle Finger Joins Long List Of Celebrity Flip-Offs"। MTV.com। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৯, ২০১২ 
  67. Collett, Mike। "Adele turns tables on TV execs with finger gesture"। Reuters। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  68. Gardner, Tim (ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১২)। "M.I.A. flips middle finger during Super Bowl halftime show"। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১২ 
  69. Frere-Jones, Sasha (ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১২)। "M.I.A. Shouldn't have apologized"The New Yorker। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১২ 
  70. Trumble, Angus (২০১০)। The Finger: A Handbook। Melbourne University Publishing। পৃষ্ঠা 192। আইএসবিএন 9780522857696 
  71. "Middle Finger Emoji"Emojipedia 
  72. Kenneally, Tim (ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১২)। "Madonna's Super Bowl Halftime Show Edges Out the Game"reuters.com। জুলাই ৯, ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা 
  73. Stevenson, Chris (এপ্রিল ২১, ২০১১)। "Bruins edge Habs early in OT"The Kingston Whig-Standard। QMI Agency। জুলাই ৯, ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা 
  74. "Monday Night Football"Fun Facts & Information। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২, ২০১৫ 
  75. Snider, Christian (জানুয়ারি ৬, ২০১৪)। "The new Wisconsin salute"Milwaukee Journal Sentinel 
  76. "The Prescott Courier - Google News Archive Search"google.com 
  77. "What's A-O.K. in the U.S.A. Is Lewd and Worthless Beyond"The New York Times। আগস্ট ১৮, ১৯৯৬। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ১১, ২০০৮ 
  78. Kass, John (অক্টোবর ৯, ২০০৯)। "Curses! Hand it to the feds to insult us on every corner"Chicago Tribune। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 
  79. Kleinman, Zoe (আগস্ট ১৬, ২০১০)। "How the internet is changing language"BBC News। Bbc.com। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১১, ২০১২ 

উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "Silent Visions: Discovering Early Hollywood and New York Through the Films of Harold Lloyd" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।

উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "The Digit Affair" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃস্থ লিঙ্ক[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Gestures