ভার্চুয়াল বিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

অনলাইন বিদ্যালয় (ভার্চুয়াল বিদ্যালয় বা ই- বিদ্যালয় বা সাইবার বিদ্যালয়)সম্পূর্ণরূপে বা প্রাথমিকভাবে অনলাইন মাধ্যমে বা ইন্টারনেট দিয়ে ছাত্রদের শেখায় । এটা সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে যে " মুক্ত শিক্ষাদানে এক বা একাধিক প্রযুক্তি শিক্ষাতে ব্যবহার করা হয়। [১] বর্তমানে অনলাইন শিক্ষা সারা বিশ্বে বিদ্যমান এবং শিক্ষার জন্য তা ব্যবহার করা হয়। সব স্তরের শিক্ষাতে ব্যবহার করা হয় (কেজি-১২, কলেজ বা স্নাতক বিদ্যালয়)।

ভার্চুয়াল শিক্ষা উচ্চ বিদ্যালয় বা কলেজ পর্যায়ে সর্বাধিক ব্যবহৃত হয়। ৩০ বা ততোধিক বয়সের শিক্ষার্থীরা উচ্চতর হারে অনলাইনে প্রোগ্রাম পড়াতে ঝোঁকে। এই গোষ্ঠীটি অনলাইন শিক্ষার জনসংখ্যার ৪১% উপস্থাপন করে। যখন ২৪-২৯ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের ৩৫.৫% এবং ১৫-২৩ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের ২৪.৫% ভার্চুয়াল শিক্ষায় অংশগ্রহণ করে। [২]

ভার্চুয়াল শিক্ষা ক্রমবর্ধমান বিশ্বব্যাপী ব্যবহৃত হচ্ছে। বর্তমানে ৪,৭০০ টিরও বেশি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে যা তাদের শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইন কোর্স সরবরাহ করে। [৩]২০১৫ সালে, ৬ মিলিয়নেরও বেশি শিক্ষার্থী অনলাইনে কমপক্ষে একটি কোর্স নিচ্ছিল, এই সংখ্যাটি আগের বছরের তুলনায় ৩.৯% বৃদ্ধি পেয়েছে। উচ্চশিক্ষার ২৯.৭% শিক্ষার্থী কমপক্ষে একটি ব্যবধান কোর্স করছে। ক্যাম্পাসে অধ্যয়নরত মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২০১২ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে একচেটিয়াভাবে ৯৭১,৩১৭ জন নেমেছে। [১] বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যেহেতু কলেজ পর্যায়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বাড়ছে, তাই ব্যবধান শিক্ষায় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর সংখ্যাও বাড়বে। [২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৯০ এর দশকের মাঝামাঝি [৪] সম্পূর্ণ ভার্চুয়াল বিদ্যালয়ের আগমন দেখা যায়। আজকের ভার্চুয়াল বিদ্যালয় অনেক চিঠিপত্র বিদ্যালয়ের বংশধর। আগের দিনের অনলাইন বিদ্যালয় অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, উত্তর আমেরিকা এবং যুক্তরাজ্যে সাধারণত শুরু হয়েছিল। যেখানে জনসংখ্যার ঘনত্ব কম রেখে প্রচলিত উপায়ে বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করা কঠিন এবং ব্যয়বহুল ছিল। [৫]

কোভিড-১৯ মহামারীটি অনলাইন বিদ্যালয় শিক্ষা নাটকীয়ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছিল। জনবহুল যায়গার মাধ্যমে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রোধ করার জন্য বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশের সরকার '''স্টে-হোম ম্যান্ডেট''' গঠন করেছিল এবং অনেক বিদ্যালয় তাদের দরজা বন্ধ করে দিয়েছিল।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Allen, Elaine (মে ২০১৭)। "Distance Education Enrollment Report 2017" (PDF) 
  2. "25 Surprising Or Little Known Facts About Online Education"Online Schools Center (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-১০-২১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-২৮ 
  3. Friedman, Jordan (জানুয়ারি ১১, ২০১৮)। "Studey: More Students are Enrolling in Online Courses"U.S News 
  4. Barbour, Michael K.; Reeves, Thomas C. (ফেব্রুয়ারি ২০০৯)। "The reality of virtual schools: A Review of the literature": 402–416। ডিওআই:10.1016/j.compedu.2008.09.009 
  5. "ICT Assisted Project Based Learning: eLearning in Aviation"ডিওআই:10.13140/rg.2.1.4472.3043