বোররে ভেড়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বোররে
Boreray Ram.jpg
বোররে ভেড়া
Conservation statusCritical
Country of originস্কটল্যান্ড
Distributionস্কটল্যান্ড
Useকনজারভেশন পশুচারণ, মাংশ, উল
Traits
WeightMale: ৪৫ কেজি
 Female: ৩০ কেজি
HeightMale: ৫৫ সে.মি.
 Female: ৫৫ সে.মি.
ভেড়া
Ovis aries
টুইড, বোররে ভেড়ার পশম থেকে তৈরি পণ্য।

বোররে একটি ভেড়ার জাত যার উৎপত্তি স্কটল্যান্ডের পশ্চিম তীরের বাইরে সেন্ট কিল্ডা দ্বীপপুঞ্জে এবং বন্য প্রাণী ‎হিসেবে বোররে নামক একটি দ্বীপে টিকে আছে।

এই প্রজাতিটি বোররে ব্লাকফেইস বা হেব্রিডিয়ান ব্লাকফেইস[১] নামেও পরিচিত, এটি একসময় মাংস এবং পশম ‎উৎপাদনের জন্য পালা হত কিন্তু এখন প্রধানত সংরক্ষণের জন্য ব্যবহার করা হয়। বোররে উত্তর ইউরোপীয় শর্ট-‎টেইল ভেড়ার গ্রুপের অন্তর্ভুক্ত প্রজাতি সমূহের মধ্যকার একটি প্রজাতি।

এটি যুক্তরাজ্যে বিরলতম ভেড়ার প্রজাতি। এটা একমাত্র প্রজাতি যেটি রেয়ার ব্রীড সারভাইভাল ট্রাস্ট কর্তৃক ‎‎“কেটাগরী ২: এনডেঞ্জার্ড” শ্রেণীভুক্ত করা হয়েছে কারণ জানামতে এরা ৩০০-৫০০ এরও কম সংখ্যায় টিকে আছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আঠার শতকের শেষভাগ অবধি স্কটিশ উচ্চ ভূমি ও দ্বীপ সমূহ জুড়ে স্কটিশ ডানফেইস বা ওল্ড স্কটিশ শর্টউল নামে ‎এক ধরণের গৃহপালিত ভেড়া পালন করা হত যা সম্ভবত লৌহ যুগের আগ পর্যন্ত পুরো উত্তর এবং পশ্চিম ইউরোপ ‎জুড়ে পালনকৃত ভেড়ার অনুরূপ ছিল। ডানফেইসের একটি স্থানীয় প্রজাতি সেন্ট কিল্ডার দুটি প্রধান দ্বীপ- বোররে এবং ‎হিরটার ছোট খামারীরা পালন করত যারা সেন্ট কিল্ডা দ্বীপ পুঞ্জের বৃহত্তম দ্বীপ হিরটায় বাস করত।[২]

আঠার শতকের মাঝামাঝি খামারীদের ভেড়াগুলোকে “সবচেয়ে ক্ষুদ্রাকৃতির” হিসাবে বর্ণনা করা হত যেগুলোর ‎খাটো, মোটা পশম এবং সবগুলো ছিল শিং বিশিষ্ট- সাধারণত পুরুষের কিন্তু প্রায়শই পুরুষ-স্ত্রী উভয়েরই। সে সময় ‎এই ভেড়াগুলোর প্রায় ১,০০০ টি ছিল হিরটাতে এবং প্রায় ৪০০ টি বোররেতে ছিল।[৩]

উনিশ শতকের শেষের দিকে খামারীদের ভেড়াগুলোকে স্কটিশ ব্লাকফেইসের[৪] সাথে সঙ্করায়ণ করা হয় যেগুলো তখন ‎থেকে স্কটল্যান্ডের পুরো মূল ভূ-খন্ড জুড়ে ডানফেইসকে প্রতিস্থাপিত করে।[৫] ডানফেইস থেকে নেমে আসা অন্যান্য ‎প্রজাতি গুলোর মধ্যে রয়েছে নর্থ রোনাল্ডসে এবং শীটল্যান্ড।[৬]

সেন্ট কিল্ডার অধিবাসীদেরকে স্থানান্তর করার আগ পর্যন্ত এই ভেড়া গুলো পালন করা হত।[৭] যাহোক, ১৯৩০ সালে ‎যখন সেন্ট কিল্ডার মানব বসতিকে স্থানান্তর করা হয় তখন হিরটার ভেড়া গুলোকেও সরিয়ে ফেলা হয় এবং ১৯৩২ ‎সালে সোয়ে দের দ্বারা প্রতিস্থাপন করা হয়, যেগুলো এখন পর্যন্ত সেখানে বাস করছে এবং সোয়ে দ্বীপেও আছে। ‎ইতোমধ্যে বোররের বাকী পরিত্যক্ত ভেড়া গুলো বন্য হয়ে যায়;[৪] এগুলোই খামারীদের একমাত্র টিকে থাকা ভেড়া এবং ‎ডানফেইসের টিকে থাকা অল্প কিছু উত্তসুরীদের মধ্যে একটি। এর মানে তারাই আসল এবং অপরিবর্তীত ভেড়া ‎যেগুলো দ্বীপটিতে পালন করা হত।[৮] ১৯৭০ এর দশকে মূল ভূখণ্ডের প্রজননের জন্য ভিত্তি দল তৈরি করার জন্য এদের মধ্য থেকে আধা ডজন ‎ভেড়াকে রপ্তানী করা হয় কিন্তু বেশির ভাগ বোররে গুলো দ্বীপেই থেকে যায়।[৯]

বৈশিষ্টসমূহ[সম্পাদনা]

দুটি বোররে ভেড়ী, একটি গাঢ় রংয়ের যা সাধারণত দেখা যায় না

বোররে ভেড়াকে সোয়ে ভেড়ার সাথে যেগুলোও সেন্ট কিল্ডা দ্বীপ পুঞ্জ থেকে আগত, গুলিয়ে ফেলা উচিত হবেনা ‎আবার হেব্রিডিয়ান ভেড়ার সাথেও মিলানো যাবে না, যেগুলোকে আগে সেন্ট কিল্ডা নামেই ডাকা হত যদিও তারা ‎সম্ভবত প্রকৃতপক্ষে সেন্ট কিল্ড ভেড়া থেকে উদ্ভূত নয়।[১০][১১] সোয়ে ভেড়া গুলো বোররে ভেড়া থেকে ছোট এবং ‎এগুলোর ভেড়ীদের ওজন ২০ থেকে ২৩ কেজির মধ্যে। তাদের পশম সাধারনত কালো অপর দিকে বোররে ভেড়া ‎সাদা বা তামাটে।[১২] বোররে ভেড়া গুলো বোররে ব্লাকফেইস এবং হেব্রিডিয়ান ব্লাকফেইস নামেও পরিচিত।[১]

লম্বা লেজ বিশিষ্ট প্রজাতি (স্কটিশ ব্লাকফেইস) থেকে আংশিক উদ্ভূত হলেও তাদের দৃশ্যমান বৈশিষ্ট্যের কারণে ‎বোররে ভেড়াকে উত্তর ইউরোপীয় শর্ট-টেইল ভেড়ার দলে ফেলা হয়। এরা বৃটিশ দ্বীপ পুঞ্জের মধ্যে ক্ষুদ্রাকৃতি ভেড়ার ‎অন্তর্ভুক্ত, প্র্রাপ্ত বয়স্ক ভেড়ীর ওজন ২৮ কেজি (৬২ পাউন্ড) এবং উচ্চতা কুঁজ পর্যন্ত ৫৫ সেমি (২২ ইঞ্চি)।[৮]

তাদের প্রাকৃতিক ভাবেই খাটো লেজ ফলে কাটার প্রয়োজন হয় না। তারা প্রাকৃতিক ভাবে তাদের পশম পরিবর্তন ‎করতে পারে ফলে প্রতি বছর পশম কাটতে হয়না যদিও বয়স্করা এত সহজে পশম পরিবর্তন করে না তাই কিছু পশম ‎কাটারও প্রয়োজন পড়ে।[২]  শরীরের পশমের রং বাদামি বা ক্রীম সাদা যদিও সোয়ে ভেড়ার মত গাঢ় রংয়ের ও হয়ে ‎থাকে। খসখসে মানের, এই পশম প্রধানত পশমী কাপড় বা গালিচার সুতা তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। পশমী কাপড় ‎‎(টুইড) এক ধরনের খসখসে মোটা কাপড়, বিশেষত স্কটল্যান্ডে তৈরি হয়। এটার রং মিশ্র ফুটফুটে।[১৩] এদের মাথা এবং ‎পা পশম বিহীন এবং একেক প্রাণীতে একেক পরিমানের সাদা এবং কালর সমন্বয়ে চিত্রিত।[১৪]

পুরুষ এবং স্ত্রী উভয় প্রকার বোররে ভেড়াতে শিং দেখা যায়। ভেড়ীর শিং ভেড়ার চেয়ে কম পুরু এবং যখন বাঁকে ‎তখন ৩৬০ ডিগ্রীর বেশি পেঁচানো হয় না। বয়ঃপ্রাপ্ত ভেড়ার শিং বিশেষ ভাবে বড় এবং পেঁচানো হয় যা কারুশিল্প ‎যেমন মেষপালকদের ক্রুক তৈরিতে ব্যবহৃত হয়।[১][৯] এই প্রজাতির ভেড়াগুলোর শিংকে একজন কৃষক “আকর্ষণীয় ‎এবং গৌরবের” বলে অভিহিত করে থাকেন।[১৫]

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

১৯৯৯ সালের গণনা অনুযায়ী ৭৪ টি ভেড়ী সহ ৮৪ টির কম। ২০০২ সালে ৯২ থেকে ১০০ টির ভিতরে যার মধ্যে ৯২ টি ‎ভেড়ী এবং পুরুষ ভেড়ার সংখ্যা গণনা অনুযায়ী ৭ টির কম। ২০১২ সালে ২০৪ টি ভেড়ী খামার বইয়ে নথিভুক্ত করা ‎হয়।[১৬] রেয়ার ব্রীড সারভাইভাল ট্রাস্টের মতে যুক্তরাজ্যে এরা ৩০০-৫০০ টির কম সংখ্যায় আছে, তাই এরা “ক্যাটাগরী ‎২:এনডেঞ্জার্ড” তালিকা ভুক্ত। এই ক্যাটাগরীতে এগুলোই একমাত্র প্রজাতি এবং সেজন্যই এরা যুক্তরাজ্যের বিরলতম ‎ভেড়ার প্রজাতি।[১৭]

খামারে ব্যবহার[সম্পাদনা]

প্রাথমিক ভাবে এদেরকে মাংস এবং পশমের জন্য পালন করা হত কিন্তু এদের দুষ্প্রাপ্যতার কারণে এখন প্রধানত ‎সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে পালন করা হয়, পালন করা হয় কারণ যেহেতু এদের অধিকাংশই এখন বন্য বলে ধারণা করা হয়।[১৮][১৯]

উৎপত্তির স্থানীয় অবস্থার কারণে বোররে ভেড়া চারণ সংরক্ষণের জন্য খুবই উপযুক্ত, এটি হচ্ছে সেই চারণ যেখানে ‎কোন নির্দিষ্ট এলাকায় জীব-বৈচিত্র এবং প্রকৃতি যাহোক রেয়ার ব্রীড ‎সারভাইভাল ট্রাস্ট বিশ্বাস করে যে, প্রজাতিটিকে যদি আরো উন্নত করা হয় তবে এটি আরো কাজে লাগানো যাবে।[৯]

সাহিত্যে[সম্পাদনা]

এলান টিচমার্শ তাঁর বই The complete countryman এ বলেন যে, ‘একটি বৃহৎ সংখ্যক জনগোষ্ঠী বিরল প্রজাতি ‎গুলো যেমন, সোয়ে এবং বোররে পোষা প্রাণী হিসেবে পালন করে থাকে।’ এটা নির্দেশ করে যে প্রজাতি গুলো মূল ‎স্রোতে গ্রহন যোগ্যতা অর্জন করছে।[২০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  • Borerays, British Coloured Sheep Breeders Association
  • "Boreray sheep"। Soay Sheep Society: Friends of the Soay and Boreray। ২০১২-০৫-১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৭-১০ 
  • The Sheep of St. Kilda
  • The Rare Breeds Survival Trust