বি. সন্ধ্যা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বি. সন্ধ্যা
জন্ম (1963-09-27) ২৭ সেপ্টেম্বর ১৯৬৩ (বয়স ৫৬)
বাসস্থানকোচি, কেরালা, ভারত
পেশাপুলিশ প্রধান
কার্যকাল১৯৮৮-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীমধু কুমার
সন্তানএক
পিতা-মাতাএস. ভারাথাদাস, কার্থ্যায়নী আম্মা

ড. বি. সন্ধ্যা আইপিএস কেরালা পুলিশ একাডেমির প্রধান হিসেবে কর্মরত আছেন। এই পদে আসার আগে তিনি কেরালা পুলিশের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর জেনারেল অব পুলিশ পদে কর্মরত ছিলেন।[১] ড. বি. সন্ধ্যাকে ভারতের কেরালা রাজ্যের অন্যতম প্রভাবশালী মহিলা হিসেবে ধরা হয়।

জন্ম[সম্পাদনা]

১৯৬৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ২৭ তারিখে ভারতের কেরালা রাজ্যের কোট্টায়ম জেলার পালৈয়ে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার পিতার নাম এস. ভারতদাস এবং মাতার নাম ভি. এল. কার্থ্যায়নী আম্মা।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

১৯৯৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার ওলোংগং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিষয়ে ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। এরপর, ১৯৯৯ সালে পন্ডিচেরি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিজিডিবিএ পাস করেন। ২০০৫ সালে পিলানিতে অবস্থিত বিড়লা ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি অ্যান্ড সাইন্স থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৮৮ সালে ভারতীয় সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবার পর তিনি ভারতীয় পুলিশ সেবায় যোগ দেন। তিনি শোরানুরে সহকারি পুলিশ সুপার, আলাথপুরএ যুগ্ম পুলিশ সুপার, সিবিসিআইডি ও কুন্নুরএ পুলিশ সুপার, কোল্লমত্রিশূরে জেলা পুলিশ সুপার, প্রধান কার্যালয় তিরুবনন্তপুরমে অ্যাসিস্ট্যান্ট ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ এবং তিরুবনন্তপুরমে ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি এরপর অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর জেনারেল অব পুলিশ পদে যোগদান করেন। এরপর ২০১৮ সালে তাকে কেরালা পুলিশ একাডেমিতে বদলি করা হয়।[৩] বর্তমানে তিনি সেখানেই কর্মরত আছেন।

বি. সন্ধ্যা কেরালার প্রাক্তন মন্ত্রী পি. জে. জোসেফের বিরুদ্ধে আনা যৌন হয়রানির অভিযোগের তদন্তের সাথে যুক্ত ছিলেন।[৪]

২০০৯ সালে তিনি কেরালায় জনমৈত্রী সুরক্ষা প্রকল্প (কেরালার কমিউনিটি পুলিশ বিষয়ক প্রকল্প) বাস্তবায়ন করেন, যা কমিউনিটি পুলিশ বিষয়ক একটি সফল প্রকল্প।[২][৫][৬] প্রকল্পটি দেশজুড়ে প্রশংসিত হয়। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য তিনিও ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হন।

পুরষ্কার[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে তিনি প্রেসিডেন্ট'স পুলিশ মেডেল অর্জন করেন।[৭] ২০১০ সালে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব উইমেন পুলিশ কর্তৃক পুরস্কারে ভূষিত হন।[২] এছাড়াও তার লেখা উপন্যাস নীলাকদু ভেলিয়ুদে ২০০৭ সালে এদাসসেরি পুরস্কার পায়। এছাড়াও তিনি গোপালকৃষ্ণান কোলাঝি স্মৃতি শিশুসাহিত্য পুরস্কার, আবুদাবি শক্তি পুরস্কার ও কুঞ্জুন্নি পুরস্কারে ২০১৩ এ ভূষিত হন।

সৃষ্টিশীল কর্ম[সম্পাদনা]

বি. সন্ধ্যা পুলিশ বিভাগে চাকরির পাশাপাশি চালিয়ে যাচ্ছেন সাহিত্যচর্চা। এছাড়া, তিনি প্রকাশ করেছেন বহু গবেষণা পত্র। এছাড়া কেরালা পুলিশের ইতিহাস সম্পর্কিত একটি ওয়েবসাইট তার ধারণায় পরিচালিত হয়।[৮]

গ্রন্থতালিকা[সম্পাদনা]

তার লেখা বইগুলো হল:

শিশুসাহিত্য[সম্পাদনা]

  • থারাট্টু, বইটির জন্য তিনি গোপালকৃষ্ণান কোলাঝি স্মৃতি শিশুসাহিত্য পুরস্কার পান
  • বালাভাদি
  • কাট্টারেন্টে কুট্টুকারি
  • এথ্রা নাল্লা আম্মু, বইটির জন্য তিনি কুঞ্জুন্নি পুরস্কার ২০১৩ পান
  • আত্তাক্কিল্লিকুন্নিলে আথভুদাঙ্গাল, বইটির জন্য তিনি আবুদাবি শক্তি পুরস্কার ২০১২ পান

কবিতার বই[সম্পাদনা]

  • রান্থাল ভিলাক্কু
  • নীরুমারুথিলেউপ্পান
  • চেম্পাকাম নি মাদাঙ্গিপ্পোকালে
  • নির্বাচিত কবিতা

উপন্যাস[সম্পাদনা]

  • নীলাক্কদুভেলিতুদে কাভ্লক্কারি
  • ইথিহাসান্থিনে ইথালুকাল

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তিনি ড. কে. মধুকুমারের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। তার স্বামী ড. কে. মধুকুমার কেরালা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক পদে কর্মরত আছেন। তাদের একটি মেয়ে আছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ADG P B. Sandhya's poem lands her in trouble"। Madhyamam। ৩ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৫, ২০১৫ 
  2. "2010 Award Recipients"। International Association of Women Police। ১১ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মার্চ ২০১৩ 
  3. https://www.thenewsminute.com/article/adgp-sandhya-transferred-officer-dealing-high-profile-cases-including-dileeps-75072
  4. India eNews
  5. "News Archive"। Kerala Police। ৪ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মার্চ ২০১৩ 
  6. "Influence of Janamaithri Suraksha Project on the Communities"। Kerala Police। ৮ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মার্চ ২০১৩ 
  7. "Police Medal Winners"। Kerala Police। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মার্চ ২০১৩ 
  8. "KPA expects changes in police force"The Hindu। Chennai, India। ১৪ জুন ২০০৬।