বিপ্লবী সমাজতন্ত্রী (মিশর)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বিপ্লবী সমাজবাদীরা (আরবি: الاشتراكيون الثوريون‎‎; মিশরীয় আরবি: elʔeʃteɾˤɑkejˈjiːn essæwɾejˈjiːn) (আরএস) মিশরের একটি ট্রটস্কিবাদী সংগঠন, যার উৎপত্তি ' নিচে থেকে সমাজতন্ত্র ' ঐতিহ্যে। নেতৃস্থানীয় আরএস সদস্যদের মধ্যে আছেন সমাজবিজ্ঞানী সামেহ নাগুইব।[১][২] সংগঠনটি সমাজতান্ত্রিক নামে একটি সংবাদপত্র প্রকাশিত করে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ট্রটস্কিবাদ দ্বারা প্রভাবিত ছাত্রদের ছোট বৃত্তের মধ্যে এই দলটি ১৯৮০-এর দশকের শেষের দিকে শুরু হয়েছিল। বর্তমান নামটি ১৯৯৫ সালের এপ্রিল মাসের মধ্যে গ্রহণ করা হয়, আরএস কয়েকজন সক্রিয় সদস্য দ্বিতীয় ফিলিস্তিনি ইন্তিফাদার কর্তৃক কয়েকশো থেকে বৃদ্ধি পেয়েছিল, যখন মিশরীয় বামেরা অনেকটা আত্মগোপনে ছিল।[৩] প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারকের অধীনে স্বাধীনভাবে সংগঠিত হতে না পারা সত্ত্বেও[৪][৫] ফিলিস্তিনি সংহতি আন্দোলনে তাদের অংশগ্রহণের কারণে দলের সদস্যপদ এখনও বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে। ইন্তিফাদা মিশরীয় যুবকদের উপর একটি মৌলবাদী প্রভাব ফেলতে দেখা গিয়েছিল, যা মোবারক শাসনের অধীনে দীর্ঘদিন ধরে দমন করা তৃণমূল স্তরের সক্রিয়তা পুনরায় প্রতিষ্ঠা করতে সাহায্য করেছিল।[৬]

নিষিদ্ধ মুসলিম ব্রাদারহুডের সাথে আরএস'র সম্পর্ক মিশরের আগের বামপন্থী সংগঠনগুলির থেকেও আলাদা, যা মিশরীয় কমিউনিস্ট পার্টির মতো একই অবস্থানে ছিল, যা সাধারণত ইসলাম ধর্মকে ফ্যাসিবাদের সাথে তুলনা করে। আরএস অবশ্য "কখনো ইসলামীদের সাথে, কখনো রাষ্ট্রের সাথে" এই স্লোগানকে এগিয়ে নিয়ে যায়। ব্রিটেনের সমাজতান্ত্রিক ওয়ার্কার্স পার্টির ক্রিস হারম্যান তার বই, দ্য প্রফেট অ্যান্ড দ্য প্রলেটারিয়েট-এ স্লোগানটি তৈরি করেছিলেন[৭] যা আরবিতে অনুবাদ করা হয়েছিল এবং ১৯৯৭ সালে আরএস দ্বারা ব্যাপকভাবে বিতরণ করা হয়েছিল। আরএস এভাবে ব্রাদারহুডের সাথে প্রচারণা চালাতে সক্ষম হয়েছে, উদাহরণস্বরূপ ইন্টিফাদাপন্থী ও যুদ্ধবিরোধী আন্দোলনের সময়কে উল্লেখ করা যায়।[৮]

২০১১-এর মিশরীয় বিপ্লব[সম্পাদনা]

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার ইতিহাসের অধ্যাপক মার্ক লেভাইনের মতে, আরএস "প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারক -এর পরবর্তী সময়ে " তাহরির (মিশরীয় বিপ্লবের সময়) এবং এখন শ্রমিক আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল।[৯]

মিশরীয় বিপ্লবের প্রথম দিন উপলক্ষে ২৫ ই জানুয়ারি ২০১১ সালের জন্য মিশরীয় দূর-বাম এবং ৬ এপ্রিল যুব আন্দোলনের সাথে আরএস দাবি করেছে যে তারা আন্দোলনে মূল ভূমিকা পালন করেছে। নিরাপত্তা বাহিনীর একাগ্রতা এড়াতে বিভিন্ন বাহিনী পূর্বে তাহরির স্কোয়ারে অগ্রসর হওয়ার আগে কায়রোর বিভিন্ন স্থানে একযোগে বিক্ষোভ দেখানোর মতো বিভিন্ন বাহিনী পূর্বে মিলিত হয়েছিল ও কৌশলগুলি তৈরি করেছিল।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Conversation with an Egyptian socialist"। Socialist Worker (US)। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  2. Levinson, Charles (১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "Splits Emerge Among Egypt's Young Activists"The Wall Street Journal। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  3. "What's left of Egypt's Left"। Al-Masry Al-Youm। ২৬ মার্চ ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  4. "Egyptian revolutionary: 'We are changed forever'"Socialist Worker (Britain)। Socialist Worker (UK)। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১১। ১৬ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  5. "Egyptian socialists: 'This won't stop at Mubarak'"Socialist Worker (Britain)। Socialist Worker (UK)। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১১। ১৬ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  6. "Revolutionary Socialists (Egypt)"। Links International Journal of Socialist Renewal। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  7. "The prophet and the proletariat"। REDS – Die Roten। ১৯৯৪। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  8. "Comrades and Brothers"। Middle East Report। ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  9. "Breathless in Egypt"। Al Jazeera। ১০ মে ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩