বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র
Bangladesh Public Administration Training Centre (BPATC).jpg
বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রবেশ পথ
গঠিত১৯৮৪
সদরদপ্তরসাভার, বাংলাদেশ
যে অঞ্চলে কাজ করে
বাংলাদেশ
দাপ্তরিক ভাষা
বাংলা
রেক্টর (সচিব)
মোঃ রকিব হোসেন
ওয়েবসাইটবাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র বা বিপিএটিসি (BPATC= Bangladesh Public Administration Training Centre) একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রশিক্ষণমূলক প্রতিষ্ঠান যা সরকারি, বেসরকারি ও স্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। এটি ঢাকা জেলার সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে অবস্থিত। এছাড়া এর প্রশাসনিক তত্ত্বাবধানে ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের সদর দপ্তরে চারটি আঞ্চলিক লোকপ্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রয়েছে।[১]

প্রতিষ্ঠাকাল[সম্পাদনা]

প্রতিষ্ঠানটি ২৮ এপ্রিল, ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র অধ্যাদেশ ১৯৮৪ দ্বারা গঠিত ও পরিচালিত।[১]

প্রশাসনিক অবকাঠামো[সম্পাদনা]

১৯৮৪ সালের ২৬ নং অর্ডিন্যান্সের আওতায় লোকপ্রশাসন ও ব্যবস্থাপনার জন্য প্রতিষ্ঠানটি একটি সমন্বিত জাতীয় স্বায়ত্তশাসিত প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। সরকারের একজন সচিব এর প্রধান কর্মকর্তা। তার পদবী রেক্টর। রেক্টরের অধীনে পাঁচটি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম-সচিব পর্যায়ে রয়েছে পাঁচজন পরিচালক। বিভাগগুলো হলো: ব্যবস্থাপনা ও লোকপ্রশাসন, কর্মসূচি প্রণয়ন ও পর্যবেক্ষণ, উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক বিষয়াদি, গবেষণা ও নির্দেশনা এবং প্রকল্প প্রণয়ন। একজন মন্ত্রীর সভাপতিত্বে ১২-সদস্য বিশিষ্ট বোর্ড অব গভর্নরস প্রতিষ্ঠানটির সাধারণ নীতিমালা নির্ধারণ করে।[২]

কার্যক্রম[সম্পাদনা]

এ প্রতিষ্ঠানের বিশেষ উদ্দেশ্য হচ্ছে জাতীয় পর্যায়ে লোকপ্রশাসনের ব্যবস্থাপনা ও উন্নয়নের জন্য সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও কলাকৌশল শিক্ষাদানের মাধ্যমে তাঁদের উন্নয়ন সাধন করা। সে উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসে নবনিযুক্ত ক্যাডারদের মৌলিক প্রশিক্ষণ, মধ্যম স্তরের ও সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তাদের চাকুরিকালীন প্রশিক্ষণ এবং পাবলিক করপোরেশন, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ প্রদান। এছাড়া উল্লেখযোগ্য কার্যক্রমের মদ্যে রয়েচেহ লোকপ্রশাসন, ব্যবস্থাপনা ও উন্নয়ন বিষয়ে গবেষণা পরিচালনা, প্রশাসন ও উন্নয়ন বিষয়ক সমস্যা সমাধানে সরকারকে পরামর্শ দান, প্রশাসন ও উন্নয়ন বিষয়ক বই, সাময়িকী ও প্রতিবেদন প্রকাশ, গ্রন্থাগার ও পাঠকক্ষ প্রতিষ্ঠা ও পরিচালনা এবং অধ্যাদেশে বর্ণিত অন্যান্য বিষয় বাস্তবায়ন করা। সরকার লোকপ্রশাসন বিষয়ে প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পর্কিত অন্যান্য কাজ সম্পাদনের জন্যও বিপিএটিসি-কে নির্দেশ দিতে পারে।

ক্যাডার ও নন-ক্যাডারভুক্ত সকল সরকারি কর্মকর্তা বিপিএটিসি-র প্রশিক্ষণের আওতাধীন। নবনিযুক্ত বিসিএস ক্যাডার কর্মকর্তা থেকে উর্ধ্বতন নীতিনির্ধারক এর অন্তর্ভুক্ত। বিপিএটিসি-র প্রশিক্ষণ কর্মসূচি সার্বিকভাবে দুই শ্রেণিতে বিভক্ত: একটি মৌলিক কোর্স, অন্যটি স্বল্পমেয়াদি বিশেষ কোর্স। স্বল্পমেয়াদি কোর্সের মেয়াদ ১-৪ সপ্তাহ মেয়াদের এবং মৌলিক কোর্সের মেয়াদ ১০-১৬ সপ্তাহ।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]