বরাকাহ পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র

স্থানাঙ্ক: ২৩°৫৮′০৪″ উত্তর ৫২°১৩′৫৪″ পূর্ব / ২৩.৯৬৭৭৮° উত্তর ৫২.২৩১৬৭° পূর্ব / 23.96778; 52.23167
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বরাকাহ পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র
Barakah nuclear power plant.jpg
বরাকাহ পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র
অফিসিয়াল নামمحطة براكة للطاقة النووية
দেশসংযুক্ত আরব আমিরাত
অবস্থানপ্রায়. রুবাসের ৫০ কিলোমিটার পশ্চিমে
স্থানাঙ্ক২৩°৫৮′০৪″ উত্তর ৫২°১৩′৫৪″ পূর্ব / ২৩.৯৬৭৭৮° উত্তর ৫২.২৩১৬৭° পূর্ব / 23.96778; 52.23167
অবস্থানির্মাণাধীন
নির্মাণ শুরুইউনিট ১: ১৯ জুলাই ২০১২
ইউনিট ২: ১৬ এপ্রিল ২০১৩
ইউনিট ৩: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৪
ইউনিট ৪: ৩০ জুলাই ২০১৫
নির্মাণ ব্যয়$২৪.৪ বিলিয়ন ডলার
মালিকইএনইসি
পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র
চুল্লির ধরনপিডব্লিউআর
চুল্লী সরবরাহকারীকেপসিও
বিদ্যুৎ উৎপাদন
তৈরি ও মডেলএপিআর-১৪০০
Units under const.৪ × ১৩৪৫ মেগাওয়াট
তাপীয় ক্ষমতা৪ × ৩৯৮৩ মেগাওয়াটth
নামফলক ধারণক্ষমতা৫৩৮০ মেগাওয়াট (সমাপ্তির পরে)

বারাকাহ পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র (আরবি: محطة براكة للطاقة النووية) সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র, আরব উপদ্বীপের প্রথম পারমাণবিক শক্তি কেন্দ্র এবং আরব বিশ্বের প্রথম বাণিজ্যিক পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র। এটি এখনও নির্মাণাধীন রয়েছে। এটিতে চারটি এপিআর-১৪০০ পারমাণবিক চুল্লি রয়েছে, যার মোট ক্ষমতা ৫,৬০০ মেগাওয়াট।[১] কেন্দ্রটি আবুধাবির ঘারবিয়া অঞ্চলে পারস্য উপসাগরের উপকূলে পারস্য উপসাগর এবং ই১১ মহাসড়কের মধ্যবর্তী স্থানে, রুবাসের ৫০ কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০০৯ সালের ডিসেম্বরে আমিরাত পারমাণবিক শক্তি কর্পোরেশন (এএনইসি) সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য কোরিয়া বৈদ্যুতিক শক্তি কর্পোরেশনকে (কেইপিসিও) নেতৃত্বে দেওয়ার জন্য ২০ বিলিয়ন ডলার দরপত্র প্রদান করে। ধারাবাহিকভাবে চারটি এপিআর-১৪০০ পারমাণবিক চুল্লী তৈরির জন্য বারাকাহকে স্থান হিসাবে বেছে নেওয়া হয়। প্রথম ইউনিটটি ২০১৭ সালে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করার পরিকল্পনা করেছিল।[২][৩][৪]

কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি লি ময়ুং-বাক'র উপস্থিতিতে ১৪ ই মার্চ ২০১১ সালে কেন্দ্রটির নির্মাণের জন্য ভূমিপূজা (গ্রাউন্ড ব্রেকিং) অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।[৫] প্রথম ইউনিটটির নির্মাণ কাজ ২০১২ সালের শেষ দিকে তার নির্ধারিত তারিখের আগে ১৮ জুলাই ২০১২ সালে[৬][৭] বিকেলে শুরু হয়। ফুকুশিমা দাইচি পারমাণবিক বিপর্যয়ের প্রেক্ষাপটে বিলম্বের পরেও এটি ঘটে।[৮] ২০১৩ সালের মে মাসে দ্বিতীয় ইউনিটে নির্মাণকাজ শুরু হয়, এরপরে নির্মাণ শেষ হতে পাঁচ বছর সময় লাগবে বলে আশা করা হয়।[৯] প্রথম নিরাপত্তা সম্পর্কিত কংক্রিটটি সেপ্টেম্বর ২০১৪ সালে ইউনিট ৩ এর জন্য ঢালা হয়।[১০] সেপ্টেম্বরে ২০১৫ সালে ইউনিট-৪ এর নির্মাণ শুরু হয়।[১][১১]

২০১১ সালে ব্লুমবার্গ থেকে জানা যায় যে বিশদ অর্থ চুক্তির পরে নির্মাণ ব্যয়কে ৩০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রাখা হয়েছে: ১০ বিলিয়ন ডলার ইক্যুইটি, ১০ বিলিয়ন ডলার এক্সপোর্ট-ক্রেডিট এজেন্সি ঋণ এবং ব্যাংক ও সার্বভৌম ঋণ থেকে ১০ বিলিয়ন ডলার। পরিচালনা, রক্ষণাবেক্ষণ এবং জ্বালানী সরবরাহ চুক্তি থেকে দক্ষিণ কোরিয়া আরও ২০ বিলিয়ন ডলার আয় করতে পারে।[১২] ব্লুমবার্গের পরে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি মূল্যটিকে ২৫ বিলিয়ন ডলার হিসাবে নির্দেশ করে।[১৩]

২০১৪ সালে, বারাকাহ ১ চুল্লীটি নির্মাণ স্থানে সরবরাহ করা হয় এবং বারাকাহ ৩ ও ৪ এর জন্য স্থান প্রস্তুতের কাজ শুরু হয়।[১৪][১৫] ইতোমধ্যে, বারাকাহ ১ এর জন্য কংক্রিট-ও-ইস্পাত দ্বারা নির্মিত চুল্লীর ধারণ ভবন ২০১৫ সালের জানুয়ারী মাসে সম্পন্ন হয়।[১]

মার্চ ২০১৫ সালে, এনইইসি ১ নং এবং ২ নং ইউনিটের পরিচালনার লাইসেন্সের জন্য পারমাণবিক নিয়ন্ত্রণের জন্য ফেডারেল কর্তৃপক্ষর (এফএনআর) কাছে আবেদন করে।[১৬]

২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে, ইউনিট ৪ এর জন্য প্রথম কংক্রিট ঢালাই দেওয়া হয়, তখন ১৮,০০০ জনেরও বেশি কর্মী ৪ টি ইউনিট নির্মাণের জন্য কাজ করছিল।[১৭]

ইউনিট[সম্পাদনা]

ইউনিট ধরন নির্মাণ শুরু পরিচালনা শুরু
(তালিকাভুক্ত)
মন্তব্য
বরাকাহ ১ এপিআর-১৪০০ ১৯ জুলাই ২০১২ ২০১৯ [৪][১৮][১৯][২০]
বরাকাহ ২ এপিআর-১৪০০ ১৬ এপ্রিল ২০১৩ ২০১৯ [২০][২১]
বরাকাহ ৩ এপিআর-১৪০০ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ২০২০ [২০][২২]
বরাকাহ ৪ এপিআর-১৪০০ ৩০ জুলাই ২০১৫ ২০২১ [২০][২৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Barakah Nuclear Power Plant, Abu Dhabi, United Arab Emirates"। power-technology। ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৫ 
  2. "UAE Nuclear Power Plants"BBC News। ২৭ ডিসেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০১০ 
  3. "Quarter of UAE's power from nuclear energy by 2020"Emirates 24/7। Dubai Media। মার্চ ১৭, ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৩-২২ 
  4. "Barakah plant delay sets back clean energy target"gulfnews.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-১৯ 
  5. "Pres. Lee Attends Groundbreaking Ceremony for UAE's Nuclear Plant"Arirang TV। মার্চ ১৪, ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৩-২২ 
  6. "Construction under way at Barakah"। World Nuclear News। জুলাই ১৯, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৭-১৯ 
  7. "ENEC Starts Construction of UAE's First Nuclear Energy Plant"Gulfnews। জুলাই ২০, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৭-১৯ 
  8. "UAE's Nuclear Watchdog Says To Review Atomic Energy Plans"। Zawya Dow Jones। মার্চ ২২, ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৩-২২ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  9. "UAE pours first concrete for Barakah 2"। Nuclear Engineering International। ২৯ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৩ 
  10. "Construction starts on third Barakah unit"World Nuclear News। ৮ মে ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০১৫ 
  11. "UAE's fourth power reactor under construction"World Nuclear News। ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  12. Ayesha Daya and Stefania Bianchi (২৪ নভেম্বর ২০১১)। "U.A.E.'s Nuclear Power Program Said to Cost $30 Billion"Bloomberg Businessweek। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১১ 
  13. Sharif, Matthew Martin Arif। "Abu Dhabi Said to Revive Debt Plan for First Nuclear Plant"Bloomberg.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-১২-২৮ 
  14. "Barakah 1 reactor vessel delivered"। World Nuclear News। ৩০ মে ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১৫ 
  15. "Work to start on third and fourth Barakah units"। World Nuclear News। ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১৫ 
  16. "UAE's ENEC submits plan to run first two nuclear reactors"Arabian Business। ২৮ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০১৫ 
  17. "UAE's fourth power reactor under construction"। World Nuclear News। ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  18. "Barakah 1"Power Reactor Information System (PRIS)International Atomic Energy Agency (IAEA)। ২১ অক্টোবর ২০১৬। ২০১৬-১০-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৬ 
  19. "Nuclear Power in the United Arab Emirates"Information Papers: Country BriefingsWorld Nuclear Association (WNA)। জুলাই ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৬ 
  20. "Major components installed at final Barakah unit"World Nuclear News। ১৪ আগস্ট ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৫ আগস্ট ২০১৭ 
  21. "Barakah 2"PRIS। IAEA। ২১ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৬ 
  22. "Barakah 3"PRIS। IAEA। ২১ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৬ 
  23. "Barakah 4"PRIS। IAEA। ২১ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]