ফ্লোরেন্স খোরিয়াটি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফ্লোরেন্স কে
Florence Khoriaty.jpg
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম নামফ্লোরেন্স খোরিয়াটি
জন্ম৫ ফেব্রুয়ারি, ১৯৮৩
ধরনপপ, জ্যাজ
পেশাসঙ্গীতশিল্পী, গীতিকার
বাদ্যযন্ত্রসমূহকন্ঠ্য
কার্যকাল২০০৪-বর্তমান
লেবেলপ্রোডাকশন রেড ব্লুজ
ইউনিভার্সাল মিউজিক কানাডা
ওয়েবসাইটhttp://florencek.com

ফ্লোরেন্স খোরিয়াটি (জন্ম: ৫ ফেব্রুয়ারি, ১৯৮৩) হলেন কানাডার কেবেকের একজন পপ সঙ্গীতশিল্পী এবং গীতিকার[১] যিনি ইংরেজি, ফরাসি, ইতালীয়, স্পেনীয় এবং পর্তুগিজ ভাষায় সঙ্গীত পরিবেশন করেন। তিনি ফ্লোরেন্স কে নামেই সমধিক পরিচিত।[২]

তিনি সঙ্গীতশিল্পী হ্যানি খোরিয়াটি এবং নাটালি চোকায়েটের কন্যা। শিল্পী পরিবারে বড় হওয়ায় খুব দ্রতই তিনি সঙ্গীত চর্চা ও পিয়ানো বাজানো শুরু করেছিলেন এবং তিনি তার মায়ের সাথে দ্বৈত সঙ্গীতও গেয়েছিলেন।

২০০৫ সালে তিনি নিজের প্রথম অ্যালবাম "লিভ অ লায়ন ডি'অর" প্রকাশ করেছিলেন। তার পরের বছর অর্থাৎ ২০০৬ সালে বোসা ব্লু শিরোনামে তিনি নিজের দ্বিতীয় অ্যালবাম প্রকাশ করেছিলেন, যা ২০০৭ সালে গালা ডি ল'আডিস্কে বিশ্বসেরা সঙ্গীত অ্যালবাম হিসেবে প্রিক্স ফেলিক্স পুরস্কার জিতেছিল।[৩] তাঁর তৃতীয় অ্যালবাম লা হিস্তোরিয়া দে লোলা ২০০৮ সালে এবং চতুর্থ অ্যালবাম হাভানা অ্যাঞ্জেলস ২০১০ সালে প্রকাশিত হয়েছিল।

তারপরে তিনি ইউনিভার্সাল মিউজিক কানাডার সাথে একটি বিতরণ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছিলেন, যার ফলে ২০১৩ সালে তাঁর "আই'এম লিভিং ইউ" অ্যালবামটি বিস্তৃত পরিসরে বিতরিত হয়েছিল।[৪] পরবর্তীকালে এই অ্যালবামটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২০১৫ সালে প্রকাশিত হয়েছিল এবং ৫৮ তম বার্ষিক গ্র্যামি পুরস্কার অনুষ্ঠানে প্রযোজক ল্যারি ক্লেইনের জন্য গ্র্যামি পুরস্কারের মনোনয়ন পেয়েছিল।[৫][৬] ২০০৯ সালে তিনি মন্দিয়াল দে কালচার্স দো দ্রামন্দভিল (Mondial des cultures de Drummondville) উৎসবের মুখপাত্র ছিলেন।[৭]

২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে তিনি সিবিসি রেডিও ওয়ান এবং সিবিসি সঙ্গীতে সে'এস্ত ফরমিদাবল শীর্ষক একটি ফরাসি সঙ্গীতানুষ্ঠানে সঞ্চালিকা হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন।[৮]

উল্লেখযোগ্য সঙ্গীত[সম্পাদনা]

  • লাইভ অ লায়ন ডি'অর (২০০৫)
  • বোসা ব্লু (২০০৬)[৯]
  • লা হিস্তোরিয়া দে লোলা (২০০৮)
  • হাভানা অ্যাঞ্জেলস (২০১০)
  • আই'এম লিভিং ইউ (২০১৩)
  • এ নিউ ক্রিসমাস (২০১৫)[১০]
  • এস্ত্রেলাস (২০১৮)[১১]
  • ফ্লোরেন্স (২০২০)[১২]

এগুলোর পাশাপাশি তিনি ফ্র্যাংকলিন এবং অ্যাডভেঞ্চারস অফ দ্য নোবাল নাইটসেও কাজ করেছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Singer Florence K credits relies on yoga to stay strong and connected to her daughter". Toronto Star, November 25, 2013.
  2. "Hamilton bands pick up multiple Juno nominations". CBC Hamilton, February 4, 2014.
  3. "ADISQ starts the home fires burning with L'Autre Gala; Oliver Jones, Yann Perreau, Gregory Charles among winners at the preliminary ceremony". Montreal Gazette, October 25, 2007.
  4. "Florence K: de la reconstruction à la renaissance". La Presse, October 6, 2013.
  5. "Grammy Nominees 2016: A Nominations Refresher List Before The Feb. 15 Award Show". International Business Times, February 14, 2016.
  6. "Florence K se lance à la conquête du public new-yorkais". Le Devoir, June 8, 2015.
  7. "Florence K will mix it up in her cultural exchange". Montreal Gazette, June 27, 2009.
  8. "Jim Corcoran bids farewell to A Propos". CBC Music, August 20, 2018.
  9. "Bossa Blue"Florence K (ফরাসি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-১০ 
  10. "A New Christmas"Florence K (ফরাসি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-১০ 
  11. "Estrellas"Florence K (ফরাসি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-১০ 
  12. "Florence"Florence K (ফরাসি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-১০