ফোড়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফোড়া
বিশেষত্বত্বকবিজ্ঞান, general surgery, সংক্রামক রোগ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
লক্ষণলালচে ভাব,ব্যথা,ফোলা।[১]
সাধারণ সূত্রপাতদ্রুত
স্থিতিকালনির্দিষ্ট না।
কারণব্যাক্টেরিয়া (প্রায়শ MRSA)[১]
ঝুঁকির ফ্যাক্টরশিরাপথে ওষুধের ব্যবহার।[২]
রোগনির্ণয়ের পদ্ধতিআল্ট্রাসাউন্ড, সিটি স্ক্যান[১][৩]
পার্থক্যজনিত নির্ণয়সেলুলাইটিস, সিবেসাস সিস্ট, নেক্রোটাইজিং ফাসাইটিস[৩]
চিকিত্সাকেটে পুঁজ বের করা।[৪]
চিকিত্সাঅ্যান্টিবায়োটিক
পুনরাবৃত্তির হার~১% প্রতিবছর (যুক্তরাষ্ট্র)[৫]
মৃত্যুবিরল

ফোড়া (ইংরেজি: abscess) ও (টেমপ্লেট:Lang-lat) হলো শরীরে টিস্যুর মধ্যে পুঁজ জমা হওয়া। ফোড়ার জায়গা লালচে ও উষ্ণ হয়ে যায়, ব্যথা হয়, ফুলে যায়। ফোলার উপরে চাপ দিলে মনে হবে ভিতরে তরল জমে আছে।[১] যতদূর ফোলা থাকে লালচে ভাব তার চেয়েও বেশিদূর পর্যন্ত থাকে।[৬] কার্বাঙ্কল ও বয়েল হলো ফোড়ার দুটি প্রকারভেদ। এরা লোমকূপের স্থানে হয়।কার্বাঙ্কলের আকার বড়ো হয়।[৭]

ফোড়া হয় মূলত ব্যাক্টেরিয়া সংক্রমণের জন্য।[৮] প্রায়শই একটি ফোড়ায় কয়েকটি ভিন্ন ভিন্ন জীবাণু পাওয়া যায়।[৬] যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের অনেক এলাকায় যে ব্যাক্টেরিয়া দিয়ে সবচেয়ে বেশি ফোড়া হয় তা হলো মেথিসিলিন প্রতিরোধী স্টাফাইলোকক্কাস অরিয়াস[১] বিরল ক্ষেত্রে পরজীবী দিয়ে ফোড়া হতে পারে বিশেষত উন্নয়নশীল বিশ্বে।[৩] চামড়ার ফোড়া খালি চোখে দেখেই নির্ণয় করা হয়। [১] রোগ নির্ণয়ে জটিলতার ক্ষেত্রে আল্ট্রাসাউন্ডের সহায়তা নেওয়া যেতে পারে।[১] পায়ুপথের চারপাশে ফোড়ার ক্ষেত্রে সিটি স্ক্যানের সাহায্যে এই ইনফেকশনের গভীরতা নির্ণয় করা যেতে পারে।[৩]

ফোড়ার চিকিৎসার মূল বিষয় হলো সেটি কেটে উন্মুক্ত করে পুঁজ বের করে ফেলা।[৪] ত্বকের ফোড়ার চিকিৎসায় স্বাস্থ্যবান মানুষের ক্ষেত্রে অ্যান্টিবায়োটিকের ব্যবহার না করলেও চলে। [১][১][৯] ফোড়া কেটে পুঁজ বের করার পর সেটি উন্মুক্ত অবস্থায় না রেখে বন্ধ করে দিলে দ্রুত আরোগ্যলাভ হতে পারে।[১০] শুধু সুচ দিয়ে পুঁজ বের করে আনা ফোড়া ভালো হওয়ার জন্য যথেষ্ট না।[১]

ত্বকের ফোড়া প্রায়শই হয় এবং সাম্প্রতিক সময়ে এর হার অনেক বেড়েছে।[১] শিরাপথে ওষুধ ব্যবহারের ক্ষেত্রে এই ঝুঁকির হার প্রায় ৬৫%।[২] ২০০৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ৩.২ মিলিয়ন ব্যক্তি ফোড়া নিয়ে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি হয়েছিল।[৫] ২০০৮ সালে অস্ট্রেলিয়াতে প্রায় ১৩০০০ রোগী ফোড়া নিয়ে হাসপাতালে আসে।[১১]

ফোড়া

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Singer, Adam J.; Talan, David A. (মার্চ ১৩, ২০১৪)। "Management of skin abscesses in the era of methicillin-resistant Staphylococcus aureus" (PDF)The New England Journal of Medicine370 (11): 1039–47। doi:10.1056/NEJMra1212788PMID 24620867 
  2. Langrod, Pedro Ruiz, Eric C. Strain, John G. (২০০৭)। The substance abuse handbook। Philadelphia: Wolters Kluwer Health/Lippincott Williams & Wilkins। পৃষ্ঠা 373। আইএসবিএন 9780781760454 
  3. Marx, John A. Marx (২০১৪)। "Skin and Soft Tissue Infections"। Rosen's emergency medicine : concepts and clinical practice (8th সংস্করণ)। Philadelphia, PA: Elsevier/Saunders। পৃষ্ঠা Chapter 137। আইএসবিএন 1455706051 
  4. American College of Emergency Physicians, "Five Things Physicians and Patients Should Question", Choosing Wisely: an initiative of the ABIM Foundation, American College of Emergency Physicians, সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ২৪, ২০১৪ 
  5. Taira, BR; Singer, AJ; Thode HC, Jr; Lee, CC (মার্চ ২০০৯)। "National epidemiology of cutaneous abscesses: 1996 to 2005."। The American journal of emergency medicine27 (3): 289–92। doi:10.1016/j.ajem.2008.02.027PMID 19328372 
  6. Elston, Dirk M. (২০০৯)। Infectious Diseases of the Skin.। London: Manson Pub.। পৃষ্ঠা 12। আইএসবিএন 9781840765144 
  7. Marx, John A. Marx (২০১৪)। "Dermatologic Presentations"। Rosen's emergency medicine : concepts and clinical practice (8th সংস্করণ)। Philadelphia, PA: Elsevier/Saunders। পৃষ্ঠা Chapter 120। আইএসবিএন 1455706051 
  8. Cox, Carol Turkington, Jeffrey S. Dover ; medical illustrations, Birck (২০০৭)। The encyclopedia of skin and skin disorders (3rd সংস্করণ)। New York, NY: Facts on File। পৃষ্ঠা 1। আইএসবিএন 9780816075096 
  9. Fahimi, J; Singh, A; Frazee, BW (জুলাই ২০১৫)। "The role of adjunctive antibiotics in the treatment of skin and soft tissue abscesses: a systematic review and meta-analysis."। CJEM17 (4): 420–32। doi:10.1017/cem.2014.52অবাধে প্রবেশযোগ্যPMID 26013989 
  10. Singer, Adam J.; Thode, Henry C., Jr; Chale, Stuart; Taira, Breena R.; Lee, Christopher (মে ২০১১)। "Primary closure of cutaneous abscesses: a systematic review" (PDF)The American Journal of Emergency Medicine29 (4): 361–6। doi:10.1016/j.ajem.2009.10.004PMID 20825801 
  11. Vaska, VL; Nimmo, GR; Jones, M; Grimwood, K; Paterson, DL (জানু ২০১২)। "Increases in Australian cutaneous abscess hospitalisations: 1999-2008."। European Journal of Clinical Microbiology & Infectious Diseases31 (1): 93–6। doi:10.1007/s10096-011-1281-3PMID 21553298 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

শ্রেণীবিন্যাস
বহিঃস্থ তথ্যসংস্থান

টেমপ্লেট:Diseases of the skin and appendages by morphology টেমপ্লেট:Cutaneous infections