স্থানাঙ্ক: ৫৮°৫৯′০৭″ উত্তর ৬°১১′০৩″ পূর্ব / ৫৮.৯৮৫২° উত্তর ৬.১৮৪৩° পূর্ব / 58.9852; 6.1843

প্রাইকেস্টোলেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
প্রাইকেস্টোলেন
Prekestolen
Lysefjorden - Man standing on Preikestolen.JPG
লিউসেফর্ড থেকে তোলা প্রাইকেস্টোলেনের দৃশ্য
সর্বোচ্চ বিন্দু
উচ্চতা৬০৪ মিটার (১,৯৮২ ফুট)
স্থানাঙ্ক৫৮°৫৯′০৭″ উত্তর ৬°১১′০৩″ পূর্ব / ৫৮.৯৮৫২° উত্তর ৬.১৮৪৩° পূর্ব / 58.9852; 6.1843[১]
ভূগোল
লুয়া ত্রুটি মডিউল:অবস্থান_মানচিত্ এর 480 নং লাইনে: নির্দিষ্ট অবস্থান মানচিত্রের সংজ্ঞা খুঁজে পাওয়া যায়নি। "মডিউল:অবস্থান মানচিত্র/উপাত্ত/Rogaland" বা "টেমপ্লেট:অবস্থান মানচিত্র Rogaland" দুটির একটিও বিদ্যমান নয়।
অবস্থানরোগাল্যান্ড, নরওয়ে
টপো মানচিত্রটেমপ্লেট:M711
ভূতত্ত্ব
পর্বতের ধরনGranite

প্রাইকেস্টোলেন বা প্রেকেস্টোলেন ( ইংরেজি: "The Pulpit Rock", "Pulpit", or "Preacher’s Chair" ) নরওয়ের রোগাল্যান্ড কাউন্টিতে,স্ট্র্যান্ড পৌরসভায় অবস্থিত পর্যটক আকর্ষণকেন্দ্র । প্রাইকেস্টোলেন একটি পাহাড়ের একটি খাড়া ধার যা লিউসেফর্ড থেকে ৬০৪ মিটার (১,৯৮২ ফু) উপরে অবস্থিত । পাহাড়ের উপরে, প্রায় ২৫ বাই ২৫ মিটার (৮২ ফু × ৮২ ফু) ক্ষেত্রফলের সমপরিমাণ সমতলভূমি রয়েছে।প্রাইকেস্টোলেন ফর্ডের পশ্চিমাংশের কাছে এবং উত্তর পাশে অবস্থিত।

এই স্থানটির পর্যটন ২১শতকের প্রথম দিকে বৃদ্ধি পেয়েছে, ২০১২ সালে ১৫০,০০০ থেকে ২০০,০০০ দর্শক স্থানটি ভ্রমণ করেছে ,[২] যা এটিকে নরওয়ের সবচেয়ে পরিদর্শিত প্রাকৃতিক পর্যটন আকর্ষণে পরিণত করেছে । বেস জাম্পাররা প্রায়ই পাহাড় থেকে লাফ দেয়। এর ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তার কারণে, এই স্থানটির সবচেয়ে ব্যবহৃত পথ (৩.৮ কিলোমিটার (২.৪ মাইল) দীর্ঘ বৃদ্ধি) ২০১৩ সালে শেরপারা উন্নত করেছে।[৩]

নাম[সম্পাদনা]

এই স্থানটির পুরাতন স্থানীয় নাম হাইভ্যালাটন (বাংলায়: (কাঠশ্রমিক বা উড়োজাহাজের দাঁত)। প্রিকেস্টোলেন('া' ছাড়া) নামটি ১৯০০ সাল নাগাদ মুদ্রিত হয় যখন স্থানীয় পর্যটন সংস্থা স্ট্যাভাঞ্জার তুরিস্টফোরেনিং ট্রেকিং এর জন্য স্থানটির প্রচার করতে চেয়েছিলেন ।"ই-কার" পরে নরওয়েজিয়ান অফিসিয়াল স্থানীয় রূপ নিনোরস্কের সাথে যুক্ত করার জন্য ব্যবহার করা হয় এবং স্থানটি এখন স্থানীয় এবং আনুষ্ঠানিকভাবে "প্রাইকেস্টোলেন" নামে পরিচিতি লাভ করেছে।

প্রবেশদ্বার[সম্পাদনা]

ট্রেইল ম্যাপ এবং প্রোফাইল
প্রাইকেস্টোলেন
প্রাইকেস্টোলেন, জুন ২০০৯

প্রাইকেস্টোলেন পশ্চিম নরওয়ের রোগাল্যান্ড কাউন্টির রাইফিলকে জেলার দক্ষিণ অংশে অবস্থিত। নরওয়ের চতুর্থ বৃহত্তম শহর স্ট্যাভাঞ্জার , ইউরোপীয় শহরসমুহের মধ্যে যার সরাসরি বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে , প্রাইকেস্টোলেন থেকে মাত্র ২৫ কিলোমিটার (১৬ মাইল) দূরে অবস্থিত এবং প্রাইকেস্টোলেনের জন্য এতে পার্কিং সুবিধা রয়েছে।২০২০ সালের এপ্রিলে হুন্ডভ্যাগ টানেল খোলার সৌজন্যে, প্রায় ৪০ মিনিটে স্ট্যাভাঞ্জার থেকে নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে।

স্ট্যাভাঞ্জার থেকে প্রাইকেস্টোলেনের প্রবেশদ্বার হচ্ছে নরওয়েজিয়ান ন্যাশনাল রোড ১৩ (আরভি১৩) এবং টাউ শহর থেকে ফেরি। দক্ষিণ থেকে, আরভি১৩ এর মাধ্যমে স্যান্ডনেসের মাধ্যমে লরিভিকা থেকে ওনেস পর্যন্ত ফেরি চলাচল করে। রাস্তা সাধারণত খোলা থাকে এবং ফেরি সারা বছর ধরে চলাচল করে। তবে, তুষারপাতের কারণে, শীতকালে শীর্ষে আরোহণ করা সবসময় সম্ভব নয়।[৪]

গ্যালারি[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Preikestolen, Strand (Rogaland)" (Norwegian ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-১৪ 
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; Mikalsen নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. https://www.aftenbladet.no/lokalt/i/2PRKr/slik-ble-sherpa-stien-til-preikestolen
  4. "Top Hikes: The Pulpit Rock (Preikestolen)"NextStopNorway [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]