পিনাকী চট্টোপাধ্যায়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পিনাকী চট্টোপাধ্যায়
১৯৬৯ সালের আন্দামান অভিযানের শুরু.jpg
কলকাতার আউট্রাম ঘাটের ম্যান-ও-ওয়ার জেটি থেকে যাত্রা শুরুর সময় পিনাকী (বামে)
জন্ম২৮ মার্চ, ১৯৪৬
মৃত্যু২৪ সেপ্টেম্বর, ১৯৮৩
জাতিসত্তাবাঙালি
পিতা-মাতা
  • নীলিমা চট্টোপাধ্যায় (মাতা)

পিনাকী চট্টোপাধ্যায় (২৮ মার্চ, ১৯৪৬ - ২৪ সেপ্টেম্বর, ১৯৮৩) একজন দুঃসাহসী বাঙালি নৌ- অভিযাত্রী ও ক্রীড়াবিদ। মূল নাম ড. পিনাকীরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

পিনাকী চট্টোপাধ্যায় দক্ষ ক্রীড়াবিদ ও সাঁতারু ছিলেন। পেশায় কলিকাতা বিজ্ঞান কলেজের শারীরশিক্ষার অধ্যাপক। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্পোর্টস মেডিসিন কোর্স চালু করায় সক্রিয় ছিলেন। অভিযানপ্রিয় এই বাঙ্গালী ক্রীড়াবিদ ছিলেন 'এক্সপ্লোরার্স ক্লাবের সদস্য। কলকাতার 'সি এক্সপ্লোরার ইনস্টিটিউট' এর প্রতিষ্ঠাতা। পর পর দুবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্লু হয়েছিলেন[১][২]

আন্দামান অভিযান[সম্পাদনা]

১ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯ সালে কলকাতা মন'ওয়ার জেটি থেকে ভারতীয় নৌসেনার অফিসার লেফটেন্যান্ট এলবার্ট জর্জ ডিউকের সাথে সাধারণ পালহীন কাঠের নৌকায় করে আন্দামানে রওনা দেন তিনি। বিপদসংকুল এই সমুদ্র যাত্রায় তারা কয়েকবার নিখোঁজ হয়ে যান। শেষ পর্যন্ত ৮ মার্চ প্রায় একমাস পরে তারা আন্দামানে পোর্ট ব্লেয়ার, আবের্ডিন জেটিতে পৌছান। তাদের ডিংগি নৌকাটির নাম ছিলো কনোজি আংরে। এই নামকরণ করেছিলেন বিখ্যাত সাঁতারু মিহির সেন[১][৩][৪] পিনাকী এই অভিযানের পরে কলকাতা হতে নৌকায় ইন্দোনেশিয়া যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। সেই অভিযান বাস্তবায়িত হওয়ার আগেই তার মৃত্যু হয় দুর্ভাগ্যজনক ভাবে।[৫]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

পিনাকীর মৃত্যু রহস্যাবৃত। প্রখ্যাত সন্তরনবিদ হয়েও জলে ডুবে তার মৃত্যু হয় ২৪ শে সেপ্টেম্বর, ১৯৮৩[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. প্রথম খন্ড, সুবোধচন্দ্র সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু (২০০২)। সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান। কলকাতা: সাহিত্য সংসদ। পৃষ্ঠা ২৮৬। আইএসবিএন 81-85626-65-0 
  2. SANKAR SRIDHAR। "TAKE THE PLUNGE, IT'S SAFE WITH SCUBA"telegraphindia.com। দি টেলিগ্রাফ। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৭ 
  3. চিরঞ্জীব (১২.০৩.১৬)। "কানোজি আংরে"। আনন্দবাজার পত্রিকা। সংগ্রহের তারিখ ৩১.১২.২০১৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ=, |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  4. "Historical Expedition of 1969"। Sea Explorers' Institute। ২১.০১.২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৯.০১.১৭  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ=, |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  5. "এবাউট আস"seiindia.org। Sea Explorers’ Institute। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৭