নেতাজি সুভাষ বিদ্যানিকেতন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নেতাজি সুভাষ বিদ্যানিকেতনের মূল ভবন

নেতাজি সুভাষ বিদ্যানিকেতন উত্তর-পূর্ব ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের একটি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়। এটি ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলায় অবস্থিত। এনএসভি প্রথম শ্রেণী থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষা প্রদান করে। স্বাধীনতা সংগ্রামি নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর নামে এই বিদ্যালয়টির নামকরণ করা হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বিদ্যালয়ের সংস্কৃতি ভবনের সামনে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর আবক্ষ মূর্তি

নেতাজী সুভাষ বিদ্যানিকেতন ১৯৪৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ভাবাদর্শে নবীন ছাত্রদের নিঃস্বার্থ, নির্ভিক এবং স্বকীয়ভাবে গড়ে তুলতে বিদ্যালয় স্থাপনে ব্রতী হন পরিচালক মন্ডলীর প্রথম সম্পাদক স্বর্গীয় গোপাল বল্লভ সাহা। বিদ্যালয়ের প্রথম প্রধানশিক্ষকের দায়িত্ব নেন শ্রী সতীনাথ ভরদ্বাজ। ভারত স্বাধীনের প্রাক্কালে ভারত ভাগের কারণে আগরতলায় চলে আসা পরিবারের ছেলে মেয়েরা এই বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। পরবর্তীকালে,এই বিদ্যালয় শিক্ষাবিদ শ্রী হিরেন্দ্রনাথ নন্দীর নেতৃত্বে আরো বিকশিত হয়। বিদ্যালয়টিকে একটি ছোট্ট প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে উত্তর-পূর্ব ভারতের অন্যতম উচ্চশিক্ষার কেন্দ্রে পরিণত করার চেষ্টা করেছিলেন। শিক্ষার বিষয়ে অবদানের জন্য শ্রীযুক্ত নন্দীকে ভারতের রাষ্ট্রপতি স্বর্ণপদক প্রদান করেন। শ্রীযুক্ত নন্দী একজন নিষ্ঠাবান নেতাজি ভক্তও ছিলেন।

নেতাজী জয়ন্তী অনুষ্ঠানে আগরতলার রাস্তায় প্রভাত ফেরি

নেতাজি জয়ন্তী[সম্পাদনা]

নেতাজী জয়ন্তীর উপলক্ষ্যে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্তীরা নেতাজি ও ভারতীয় জাতীয় বাহিনী গঠন করে পথ ভ্রমনরত

প্রতি বছর মহাসমারহে বিদ্যালযয়ে ২৩ জানুয়ারিতে নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিন উদযাপন করা হয়। বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা প্রভাত ফেরি এবং নানা অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে সমারম্ভে এই দিনটি পালন করে। স্থানীয় জনগণও অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

প্রথাগত বিজ্ঞান ইতিহাস সাহিত্যের শিক্ষার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, খেলাধুলা ও শরীরচর্চার দিকেও জোর দেওয়া হয়।

প্রতিষ্ঠা দিবস[সম্পাদনা]

৩ মার্চ বিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠা দিবস। সেই দিন বিদ্যালয়ের "সংস্কৃতি ভবনে" সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালন করা হয়।

এখনকার অবস্থা[সম্পাদনা]

বর্তমানে গৌতম চক্রবর্তী প্রধান শিক্ষক হিসাবে নিযুক্ত আছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]