নেচার্স বেকন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নেচার্স বেকন
Nature's Beckon
ধরনবেসরকারী প্রকৃতিপ্রেমী সংস্থা
সদরদপ্তরধুবুরী, অসম ভারত
যে অঞ্চলে
উত্তর-পূর্ব ভারত
বন্য পক্ষী সংরক্ষণ ও পক্ষী নিরীক্ষণের ওপর নেচার্স বেকনের আয়োজন করা এক অনুষ্ঠান

নেচার্স বেকন (ইংরেজি) হল উত্তর পূর্ব ভারতের একটি বেসরকারী প্রকৃতিপ্রেমী সংগঠন। ১৯৮২ সালে সামাজিক উদ্যোগ সংস্থা অশোকের সদস্য[১] সৌম্যদ্বীপ দত্ত নেচার্স বেকনের প্রতিষ্ঠা করেন ও ১৯৯১ সালে সংগঠনটি ভারতের রেজিষ্ট্রার অফ সোসাইটীজ এক্ট বা সমিতি পঞ্জীকরণ আইনের অধীনে পঞ্জীয়ণ লাভ করে। সংগঠনটির মুখ্য কার্যালয় ধুবুরীতে অবস্থিত। আরম্ভ থেকেই নেচার্স বেকন বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ, এই বিষয়ে সজাগতা সৃষ্টি, পরিবেশ শিক্ষা, বৈজ্ঞানিক গবেষণা ও তথ্যসজ্জা, ও উত্তর-পূর্ব ভারতের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নর জন্য প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছে।[২][৩]

উদ্দেশ্যসমূহ[সম্পাদনা]

  • জনতার সহযোগীতায় অরণ্য ও বন্যপ্রাণীর সংরক্ষণ
  • বনানীকরণ ও জৈব-বৈচিত্র সংরক্ষণের সাথে অরণ্যের নিকটবর্তী গ্রামসমূহের কৃষকদের পরম্পরাগত শাকসবজি চাষ করতে উৎসাহ প্রদান
  • সাধারণ লোকের মধ্যে পরিবেশ সম্পর্কে সজাগতা গড়ে তোলা
  • শিক্ষার্থীদের পরিবেশ শিক্ষা দেয়ার সাথে পরিবেশ সংরক্ষণ কাজের জন্য প্রশিক্ষিত করে গড়ে তোলা
  • সামাজিক ন্যায়বিচারের জন্য কাজ করা
নেচার্স বেকনের একটি প’ষ্টার

লক্ষ্য[সম্পাদনা]

“নেচার্স বেকনের লক্ষ্য হল জনগণের লাভার্থে জনগণের সহযোগিতায় বন্যপ্রাণী, উদ্ভিদ ও এঁদের বাসস্থানসমূহের সংরক্ষণ, সুরক্ষা আর পরিবর্দ্ধন।” ("The mission of Nature's Beckon is working with the people to conserve, protect and increase wildlife, plants and their habitats for the continuing benefit of the people.")

উল্লেখনীয় সফলতা[সম্পাদনা]

নেচার্স বেকন ধুবুরী জিলার চক্রশীলা অভয়ারণ্য সোণালী বান্দরএর অবস্থিতি দাবী করে।[৪] চক্রশীলাকে অভয়ারণ্যের মর্যাদা প্রদান করাতে প্রকৃতিপ্রেমী সংগঠনটি মুখ্য ভূমিকা গ্রহণ করে। এরপরও উত্তর-পূর্ব ভারতের বিভিন্ন অরণ্যাঞ্চল ও জলাভূমিতে ভালেকেইবিধ লুপ্তপ্রায় জীব-জন্তু চিনাক্ত করার লগতে এনে বন্যপ্রাণীসমূহের সংরক্ষণে সংস্থাটি অগ্রণী ভূমিকা নিয়ে আসছে।[৪]

গ্রন্থ প্রকাশ[সম্পাদনা]

নেচার্স বেকন-এর সদস্যসমূহ রচনা করা ও রাষ্ট্রীয় তথা আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটে উপস্থাপন করা ইংরাজী ও অসমীয়া ভাষার কয়েকটি গ্রন্থ, গবেষণা পত্র, ও প্রবন্ধ প্রকাশ করেছে।

নেচার্স বেকনের গ্রন্থসমূহ:

গ্রন্থের নাম লেখক ভাষা
Chakrashila Wildlife Sanctuary সৌম্যদ্বীপ দত্ত, মৃদুপবন ফুকন ইংরাজী
অসমর অভয়ারণ্য ও রাষ্ট্রীয় উদ্যান সৌম্যদ্বীপ দত্ত, মৃদুপবন ফুকন অসমীয়া
অরণ্যর ছাঁ পোহর সৌম্যদ্বীপ দত্ত অসমীয়া
প্রকৃতি ও আমি দেবেন্দ্রনাথ শর্মা অসমীয়া
ধনেশ বিকাশ বরদলৈ, তুষার শইকীয়া অসমীয়া
অসমর প্রাইমেট সৌম্যদ্বীপ দত্ত অসমীয়া
প্রসঙ্গ প্রকৃতি রূপম বরুবা অসমীয়া
উদ্‌গীরণ সৌম্যদ্বীপ দত্ত অসমীয়া
প্রতিবাদ ও প্রত্যাশা সৌম্যদ্বীপ দত্ত অসমীয়া

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Ashoka International Website"। ১১ ডিসেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  2. Nature's Beckon Homepage
  3. "Authority involved in illegal wildlife trade: Nature's Beckon; Assam Times, India, 05 Feb. 2008."। ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  4. Achievements and activities of Nature's Beckon