নিতু চন্দ্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নিতু চন্দ্র
Neetu Chandra.jpg
জন্ম (1984-06-20) ২০ জুন ১৯৮৪ (বয়স ৩৬)
আর্রা, বিহার, ভারত
পেশাঅভিনেত্রী, চলচ্চিত্র প্রযোজক
কর্মজীবন২০০৫–বর্তমান
উচ্চতা১.৬৭ মিটার (৫ ফুট   ইঞ্চি)[১]
আত্মীয়
  • নিতিন চন্দ্র (ভাই)
  • অভিষেক চন্দ্র (ভাই)

নিতু চন্দ্র (জন্ম ২০ জুন ১৯৮৪) একজন ভারতীয় অভিনেত্রী, চলচ্চিত্র প্রযোজক এবং মঞ্চ অভিনেত্রী।[২] এছাড়াও তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত ধ্রুপদি নৃত্যশীল্পি এবং চতুর্থ ড্যান ব্ল্যাকবেল্টধারী একজন সক্রীয় ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব, যিনি তার দেশে তাইকোয়ান্ডো ও এনবিএর সাথে ঘনিষ্ঠ সংযুক্ততার ফলে বাস্কেটবলের প্রচারণায় সংযুক্ত হয়েছেন।[৩] চাম্পারান টকিস নামে তার নিজের একটি প্রোডাকশন হাউজ রয়েছে যেটি মিথিলা মাখন চলচ্চিত্রের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেছে। [৪] জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছিলেন তার ভাই নিতিন চন্দ্র। তার ভাই অভিষেক চন্দ্র হিন্দি চলচ্চিত্রের একজন ফ্যাশন ডিজাইনার।

প্রারম্ভিক জীবন ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

নিতু চন্দ্র ভারতের বিহারের আর্রায় জন্মগ্রহণ করেন। তার মাতৃভাষা হলো ভোজপুরী।[৫] তিনি নটরডাম, পাটনায় পড়াশোনা করেন এবং দিল্লির ইন্দ্রপ্রসাদ কলেজ থেকে অস্নাতক শিক্ষা সমাপ্ত করেন।[৬] এরপর তিনি মডেলিং শুরু করেন, এবং নিতু তার সফলতার জন্য তার মাকে কৃতিত্ব দেন, যিনি বিহারের পুর্ব চাম্পারানের একজন অধিবাসী।[৭] স্নাতক হওয়ার পর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বহু বিজ্ঞাপন ও ভিডিওতে তাকে দেখা যায়। তিনি দুইটি ড্যান ব্ল্যাকবেল্টধারী এবং ১৯৯৭ সালে বিশ্ব তাইকোয়ান্ডো চ্যাম্পিয়নশিপে হংকংয়ে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন।[৮]

নিতু চন্দ্রের ভাই নিতিন চন্দ্র দেশওয়া চলচ্চিত্রটিও পরিচালনা করেছেন।[৯]

অভিনয়-জীবন[সম্পাদনা]

২০০৫ সালে গরম মশলা চলচ্চিত্রে সুইটি নামে এক এয়ার হোস্টেস চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে হিন্দি চলচ্চিত্রে তার অভিষেক ঘটে। ২০০৬ সালে তিনি তেলেগু চলচ্চিত্র গোদাভারি-তে অভিনয় করেছিলেন। ২০০৭ সালে তাকে মধুর বান্দেরকারের ট্রাফিক সিগন্যাল চলচ্চিত্রে দেখা গিয়েছিল।

২০০৮ সালে তিনি দিবাকর ব্যানার্জী, রাহুল ডোলাকিয়া, অশ্বিনী ধীর এবং বিক্রমের পরিচালিত চারটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তার তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়া তামিল চলচ্চিত্র ইয়াভারুম নালাম ২০০৯ সালে মুক্তি পায়। এতে তিনি আর. মাধবনের বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন। ২০১০ সালে তাকে তিনটি হিন্দি চলচ্চিত্রে দেখা যায়, রান, অ্যাপার্টমেন্ট, নো প্রমলেম, যাতে তিনি বিশেষ দৃশ্যে অভিনয় করেন, এবং একটি তামিল চলচ্চিত্র থেরাধা বিলায়িয়াট্টু পিল্লাই

২০১১ সালে তার নিজের প্রযোজিত এবং এবং ভাই পরিচালিত ভোজপুরী চলচ্চিত্র দেশওয়া মুক্তি পায়।[১০]

২০১৩ সালে তিনি তামিল ভাষার অ্যাকশনধর্মী আমিরিন আধি-ভগবান চলচ্চিত্রে জয়ম রবির বিপরীতে অভিনয় করেন। তার অভিনীত একটি গ্রীক চলচ্চিত্র হোম সুইট হোম-এর দৃশ্যধারণ সমাপ্ত হয়েছে,[১১] যেখানে তিনি এক ভারতীয় মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন।[১২] তাকে চলচ্চিত্রটির জন্য গ্রীক ভাষা এবং তার নিজেকেই ডাব করা শিখতে হয়েছিল।[১৩] তার অভিনীত দুইটি হিন্দি চলচ্চিত্র কুসার প্রাসাদ কা ভুত এবং শুটার মুক্তি পেতে যাচ্ছে।[৫]

২০২০ সালে তাকে বেভারলি হিলসে হলিউড অনুষ্ঠান গোন অ্যান্ড আউটে বলিউড অভিনেতা স্যামি জন হ্যানয়ের সাথে দেখা যাবে। অষ্ঠানটিতে আরও রয়েছেন প্যাট্রিক সিম্পসন এবং পোল অ্যাটো।

অন্যান্য কাজ[সম্পাদনা]

চন্দ্র গিতাঞ্জলী ব্র্যান্ডের হুপের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসিডর হিসাবে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।[১৪] এছাড়াও তিনি মাইশুর স্যান্ডাল সোপের বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেছেন। নিতু চন্দ্রকে ইসমাইল দরবারের মিউজিক ভিডিও "রাসিয়া সাজানে" ঝুবিন গার্গের সাথে দেখা যায়।[১৫] তাকে এছাড়াও বম্বে ভাইকিং গায়ক নিরাজ শ্রীদ্ধার জনপ্রিয় একক "আ রাহা হু মে"-তে দেখা যায়।[১৬] তাকে ডি.জে. হট রিমিক্স ভলিউম ১-এর সফল রিমিক্স সাজনা হেই মুজেহ (গানটি আরও ৭টি অ্যালবামে প্রকাশিত হয়েছে), এবং সোফি চৌধুরীর সাথে মেরা বাবু ছেইল ছাবিলা (গানটি এরপর আরও নয়টি অ্যালবামে প্রকাশ পায়) (সিডি - সোফি এবং ডক্টর লাভ, ডিভিডি - ডি.জে. হট রিমিক্স ভলিউম ২ এবং দ্য রিটার্ন অব কান্তা মিক্স)।

তিনি ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ক্লাব এবং এশিয়ান একাডেমি অব ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশনের ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন রিসার্চ সেন্টারের আজীবন সদস্য।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

২০১৩ সালে উমারু নামক নাটকে নাম ভুমিকায় অভিনয় করে চন্দ্রা মঞ্চনাটকে অভিষেক করেন।[১৭] দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া লিখেছিল, "মঞ্চনাটকে নিতু চন্দ্রের অভিষেক যদিও আত্মবিশ্বাসমুলক, কিন্তু এটি প্রত্যাশিত প্রভাব তৈরীতে ব্যর্থ এবং আপনি চিন্তা করবেন নাটকটিতে কি যেন নেউ"।[১৮] ২০১৭ সালের মে থেকে ডিডি ন্যাশনালে তিনি রাঙ্গুলি উপস্থাপনা করছেন।
২০১৮ সালে তিনি প্রো কাবাডি লিগে পাটনা পাইরেটস দলের কমিউনিটি অ্যাম্বাসিডর হন।

মিডিয়া ও ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

২০০৮ সালে ৭সিজ টেকনলোজিস নিতু — দ্য এলিয়েন কিলার নামে একটি ত্রিমাত্রিক মোবাইল গেম মুক্তি দেয়, যেখানে নিতু চন্দ্র ছিলেন প্রধান চরিত্র।[১৯]

নিতু ইন্ডিয়ান ম্যাক্সিমের ২০০৯ সালের প্রকাশনার কভার পৃষ্ঠায় আসেন।[২০]

নিতু ২০১০ সালের মাঝামাঝি সময়ে অভিনেতা রনদ্বীপ হুদারনসাথে সম্পর্কে জড়ান, কিন্তু তারা ২০১৩ সালে আলাদা হয়ে যান।[২১][২২]

চলচ্চিত্র তালিকা[সম্পাদনা]

অভিনেত্রী হিসেবে[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র চরিত্র ভাষা মন্তব্য
২০০৩ বিষ্ণু নায়কের বন্ধু তেলেগু
২০০৫ গরম মশলা সুইটি হিন্দি
২০০৬ গোদাভারি রাজি তেলেগু
২০০৭ ট্রাফিক সিগন্যাল রানি হিন্দি
২০০৮ ওয়ান টু থ্রি ইন্সপেক্টর মায়বতি ছাওতালা হিন্দি
২০০৮ সামার ২০০৭ দিগম্বরের স্ত্রী হিন্দি
২০০৮ ওয়ে লাকি! লাকি ওয়ে! সোনাল হিন্দি
২০০৯ সত্যমেভ জয়তে বাসারা পাপা তেলেগু
২০০৯ ইয়াভারুম নালাম প্রিয়া মনোহর তামিল
২০০৯ ১৩বি হিন্দি
২০১০ মুম্বাই কাটিং হিন্দি
২০১০ রান ইয়াসমিন হুসেইন হিন্দি
২০১০ থিরাধা বিলাইয়াত্তু পিল্লাই তেজস্বিনী তামিল
২০১০ অ্যাপার্টমেন্ট নেহা ভার্গব হিন্দি
২০১০ নো প্রবলেম সোফিয়া হিন্দি বিশেষ আগমন
২০১০ শাদিয়া হিন্দি
২০১১ ইউদ্ধাম সে তামিল "কান্নিথিবু পুন্না" গানে বিশেষ আগমন
২০১১ কুছ লাছ জেইসা রাই হিন্দি
২০১১ দেশওয়া ভোজপুরী বিশেষ আগমন
২০১৩ আধি ভগবান রানি সাম্পাথা / কারিশমা তামিল নেতিবাচক চরিত্রে সেরা অভিনেত্রী বিভাগে সিমা পুরস্কার
২০১৩ সেত্তাই তামিল "লায়লা লায়লা" গানে বিশেষ আগমন
২০১৪ মানাম তেলপগু খন্ডাংশে আগমন
২০১৪ পাওয়ার কান্নাড়া "হোয়াই হোয়াই" গানে বিশেষ আগমন
২০১৫ থিলাগার তামিল বিশেষ আগমন
২০১৬ ব্লক ১২[২৩] গ্রীক
২০১৭ সিঙ্গাম ৩ বার ডান্সার তামিল "ও সুনে সুনে" গানে বিশেষ আগমন
২০১৭ বিয়াগি এক্সপ্রেস রাধিকা/ জয়তিকা তামিল দ্বৈত চরিত্র
২০১৭ ব্রাহমা ডট কম]] নিতু চন্দ্র তামিল

প্রযোজক হিসাবে[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র ভাষা মন্তব্য
২০১১ দেশওয়া ভোজপুরী
২০১৬ মাইথিলি মাখন মাইথিলি

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

বছর অনুষ্ঠান চরিত্র চ্যানেল মন্তব্য ত.সূ.
২০১৭–২০১৮ রাঙ্গুলি উপস্থাপিকা ডিডি ন্যাশনাল [২৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://www.imdb.com/name/nm1911617/
  2. "'Mithila Makhaan' has something for all: Neetu Chandra"TIMES OF INDIA 
  3. "'Taekwondo' has something for all: Neetu Chandra"TIMES OF INDIA 
  4. "'Champaran Talkies' has something for all: Neetu Chandra"Champaran Talkies। ১৬ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  5. "Bhojpuri film industry not growing: Neetu Chandra"। Sify.com। ২০১৩-০৯-০৪। ২০১৪-০১-২৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০২-০১ 
  6. "Neetu shoots kick & punch"The Telegraph (Calcutta)। ২০১২-০৯-০৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৭-০৭ 
  7. "Bollywood Celebrity Interview"IndiaGlitz.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৫-২৮ 
  8. "Neetu Chandra receives second black belt in Taekwondo"The Times of India। ১৭ অক্টোবর ২০১২। ২৯ জুলাই ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৩ 
  9. "Patna boy to represent India at global business meet in Ireland"Timesofindia.indiatimes.com। ২০১৩-০৪-০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৫-২৮ 
  10. "Timing relief for Deswa"The Telegraph। Calcutta। ১২ ডিসেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১২-১৩ 
  11. IANS (২০১৩-০৭-০৪)। "Rediscovered myself with my Greek film: Neetu Chandra - Times Of India"। Articles.timesofindia.indiatimes.com। ২০১৩-১২-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-১২-১৩ 
  12. "Neetu in awe of her Greek film look"। Hindustan Times। ৩ জুলাই ২০১২। ৮ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  13. "I'm too young for marriage: Neetu Chandra - Times Of India"। Articles.timesofindia.indiatimes.com। ২০১৩-০৯-০৫। ২০১৩-০৯-০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-১২-১৩ 
  14. Das, Chuman (২৯ জানুয়ারি ২০০৯)। "Neetu Chandra signs her first ad campaign"। Businessofcinema.com। ১৮ জুলাই ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  15. "| Bollywood News | Hindi Movies News | Celebrity News"। BollywoodHungama.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৭-১০ 
  16. "Bombay Vikings - Aa Raha Hoon Main"Youtube.com। Universal Music India/Vevo। সংগ্রহের তারিখ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  17. Jha, Subhash K. (২০১৩-১১-১২)। "Don't want to dilute my moment of glory: Neetu Chandra"। The New Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-১২-১৩ 
  18. "Theatre Review: Umrao"। The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-১২-১৩ 
  19. "7Seas Technologies ropes in Neetu Chandra for 3D mobile action game — The Economic Times"The Times Of India। ২০ মার্চ ২০০৮। 
  20. "Archived copy"। ১৮ জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ জানুয়ারি ২০০৯ 
  21. "Neetu Chandra and Randeep Hooda split"Times of India। ৯ এপ্রিল ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুলাই ২০১৪ 
  22. "Randeep Hooda and Neetu Chandra back together?"India Today। ৩ এপ্রিল ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৪ 
  23. https://www.imdb.com/title/tt2349952/?ref_=ttpl_pl_tt
  24. "Swara Bhaskar bids adieu to DD National's 'Rangoli'"। সংগ্রহের তারিখ মে ১৫, ২০১৭