নাঞ্জানাগড় কলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নাঞ্জানাগড় কলা
ভৌগোলিক স্বীকৃতি
Rasa BaLe HaNNu.JPG
নাঞ্জানাগড় কলার একটি জাত
বিকল্প নামনাঞ্জানাগড় কলা
অঞ্চলমাইসরু ও চামারাজ নগর
দেশভারত
নথিবদ্ধ2005
প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইটipindia.nic.in

নাঞ্জানাগড় কলা‎ অথবা নাঞ্জানাগড় রসাবালে-হানু হল এক ধরনের কলার জাত যা ভারতের কর্ণাটক প্রদেশের চামারাজ নগর ও মাইসরু জেলায় চাষ করা হয়। নাঞ্জানাগড় কলা‎র স্বাদ ও গন্ধ সারা ভারতবর্ষে জনপ্রিয়। এই কলার সুন্দর গঠন একে আকর্ষণীয় করে তুলেছে। সঠিক মাত্রায় রাসায়নিক সার প্রয়োগের মাধ্যমে এই কলা পরিপূর্ণতা লাভ করে। এই কলার স্বাদ, গন্ধ, জনপ্রিয়তার কারণে ভারত সরকার একে ভারতের ভৌগোলিক নিদর্শনের ইঙ্গিত হিসাবে নিবন্ধিত করে।[১][২][৩]

বিশেষত্ব[সম্পাদনা]

নাঞ্জানাগড় কলা বিশেষত্ব হল এর স্বাদ, গন্ধ, আকার-আকৃতি যা অন্যান্য কলার থেকে ভিন্ন। সঠিক মাত্রায় রাসায়নিক সার ব্যবহার ও অভিজ্ঞতা পূর্ণ জৈব চাষের মাধ্যমে এই কলা উৎপাদিত হয়। এটির আরেকটি বিশেষত্ব হল, যদি এই কলা অন্য কোন স্থানে চাষ করা তবে এই কলা অধিক সময় নিয়ে বৃদ্ধি পায় এবং আকারে ছোট হয়। খেতেও তেমন সুস্বাদু হয় না। নাঞ্জানাগড় কলার জিনগত বিশিষ্ট এই কলাকে আলাদা করেছে।[৪]

চাষ[সম্পাদনা]

নাঞ্জানাগড় কলা চাষের জন্য শুষ্ক ও আর্দ্র জলবায়ু প্রয়োজন। নাঞ্জানাগড় কলার ভাল বৃদ্ধির জন্য অক্ষাংশ ৩০এন থেকে ৩০এস বিশেষ ভাবে উপযোগী।[৫]

ভৌগোলিক অস্তিত্ব[সম্পাদনা]

উদ্যানপালন বিভাগ ভারত সরকারের নিকট নাঞ্জানাগড় কলার ভৌগোলিক অস্তিত্বে নিবন্ধনের জন্য ১৯৯৯ সালের ধারা অনুসারে আবেদন জানায়। আবেদনে পরিপ্রেক্ষিতে ৩ বছর পর ২০০৫ সালে ভারতের ভৌগোলিক অস্তিত্ব নিদর্শন হিসাবে স্বীকৃতি পায়।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Mangoes and grapes give K'taka farmers sweet taste of success"Times of India। ২০১৬। 
  2. "Journal 8-12" (PDF)8 (ইংরেজি ভাষায়)। New Delhi: Government of India। 1: 45–49। ২০০৫। 
  3. "Farmers Come Together to Save Nanjangud Rasabale"the new indian express। ২০১৫। 
  4. "Journal 8-12" (PDF)8 (ইংরেজি ভাষায়)। New Delhi: Government of India। 1: 48। ২০০৫। 
  5. "Journal 8-12" (PDF)8 (ইংরেজি ভাষায়)। New Delhi: Government of India। 1: 46। ২০০৫। 
  6. "Journal 8-12" (PDF)8 (ইংরেজি ভাষায়)। New Delhi: Government of India। 1: 44। ২০০৫।