নাগাতো প্রদেশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জাপানের মানচিত্রে অন্যান্য প্রদেশের সাথে নাগাতো প্রদেশ প্রদর্শিত হয়েছে (১৮৬৮) হাইলাইট করা হয়েছে

নাগাতো প্রদেশ (長門国, Nagato no kuni) হচ্ছে জাপানের একটি প্রাক্তন প্রদেশ। প্রদেশটিকে প্রায়ই চোশু (長州) বা চোশু ডোমেন বলা হতো। প্রদেশটি জাপানের বৃহত্তম দ্বীপ হোনশুর সর্ব পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত ছিল। প্রাক্তন নাগাতো প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত অঞ্চলটি বর্তমান কালে চুউগোকু অঞ্চলের ইয়ামাগুচি প্রশাসনিক অঞ্চলে অবস্থিত। নাগাতো প্রদেশের সাথে প্রাক্তন ইওয়ামি প্রদেশ এবং সুউ প্রদেশের সীমানা ছিল। এগুলোর মধ্যে ইওয়ামি ছিল নাগাতোর পূর্ব-উত্তর প্রান্তে এবং সুউ প্রদেশ এর দক্ষিণ প্রান্তে অবস্থিত ছিল। নাগাতো প্রদেশের অন্যান্য প্রান্ত ছিল সমুদ্র বেষ্টিত। পরবর্তী কালে নাগাতো প্রদেশ এবং সুউ প্রদেশ একীভূত করা হয়েছিল।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

যদিও প্রদেশটির প্রাচীন রাজধানী ছিল শিমোনোসেকি, এডো আমলে চোশু হান (জায়গীর বা ডোমেন) এর প্রশাসনিক আসন ছিল। সিকিগাহার যুদ্ধের পূর্বে ও পরে নাগাতো প্রদেশ মরি গোষ্ঠী কর্তৃক শাসিত হতো।

১৮৭১ সালে জাপান সাম্রাজ্যের সাম্রাজ্যীয় ডোমেন বিলুপ্তকরণ এবং মেইজি পুনর্গঠননের মাধ্যমে প্রিফেকচার (হাইহান চিকেন ) প্রতিষ্ঠার পর পরই নাগাতো এবং সুউ প্রদেশ দুটোকে একত্রিত করে বর্তমান কালের ইয়ামাগুচি প্রশাসনিক অঞ্চলে পরিণত করা হয়। যদিও ইয়ামাগুচি প্রশাসনিক অঞ্চলে অন্তর্ভুক্ত হয়েও একই সময়ে প্রদেশটির অস্তিত্ব বিদ্যমান ছিল। উদাহরণস্বরূপ, ১৮৯৪ সালের (ক) জাপান এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং (খ) জাপান ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে স্বাক্ষরিত হওয়া চুক্তিতে নাগাতো প্রদেশ স্পষ্টভাবে স্বীকৃত। [১]

ঐতিহাসিক ভাবে মেইজি পুনর্গঠননের মাধ্যমে জাপানে গোষ্ঠী শাসনতন্ত্রের উত্থা্নের মাধ্যমে ক্ষমতায় তাদের প্রভাব বেড়ে গেলে এতে নাগাতো প্রদেশ বা চোশু ডোমেনের শক্তিশালী প্রতিনিধিত্ব ছিল। কারণ, জাপান সাম্রাজ্যের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব ইতো হিরোবুমি, ইয়ামাগাতা আরিতোমো এবং কিডো কইন ছিলেন এই প্রদেশেরই লোক। মেইজি পুনর্গঠননে ভূমিকা পালনের জন্য বিখ্যাত অন্যান্য স্থানীয় নাগরিকদের মধ্যে রয়েছেন ইউশিদা শইন, তাকাসুগি সিনসাকু এবং কুসাকা গেঞ্জুই প্রমুখ।

এই প্রদেশের নামানুসারেই জাপানি যুদ্ধ জাহাজ নাগাতো-র নামকরণ করা হয়েছিল।

মঠ ও মন্দির[সম্পাদনা]

শিমোনোসেকিতে নাগাতো কোকুবুন-জি সাইট

সুমিয়োশি জিনজা ছিলেন নাগাতোতে অবস্থিত শিন্তো মঠের (ইচিনোমিয়া) প্রধান।[২]

ঐতিহাসিক জেলা[সম্পাদনা]

বর্তমান ইয়ামাগুচি প্রশাসনিক অঞ্চল তথা প্রাক্তন নাগাতো প্রদেশে সর্ব মোট ৬টি জেলা অন্তর্ভুক্ত ছিল। তবে নাগাতো এবং সুউ প্রদেশ দুটো একত্রিত করে ইয়ামাগুচি প্রশাসনিক অঞ্চল গঠন করার পরে ১৮৯৬ সালের ১ এপ্রিলে আবু জেলা এবং মিশিমা জেলা দুটিকে একীভূত করা হয়। নাগাতো প্রদেশের জেলা গুলো হলো:

  • আবু জেলা (阿 武 郡) - ১৮৯৬ সালের ১ এপ্রিলে মিশিমা জেলার সাথে একীভূত হয়
  • আসা জেলা (厚 狭 郡) - বিলুপ্ত
  • মাইন জেলা (美 祢 郡) - বিলুপ্ত
  • মিশিমা জেলা (見 島 郡) - ১৮৯৬ সালের ১ এপ্রিলে আবু জেলার সাথে একীভূত হয়
  • ওতসু জেলা (大 津 郡) - বিলুপ্ত
  • তয়োরা জেলা (豊 浦 郡) - বিলুপ্ত

মানচিত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

  • জাপানের ঐতিহাসিক স্থানগুলোর তালিকা (ইয়ামাগুচি)
  • পাঁচ পাঁচা
  • নাগাতো সিটি

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

গ্রন্থপুঞ্জী[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

উইকিমিডিয়া কমন্সে নাগাতো প্রদেশ সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন