দুররানি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

দুররানি (পশতু : دراني‎) বা আবদালি (পশতু: ابدالی‎) হল আফগানিস্তানপাকিস্তানের একটি প্রধান সারবানি পশতুন গোত্রীয় কনফেডারেশন। এছাড়াও দুররানিদেরকে আবদালি বলেও সম্বোধন করা হয়। এটি প্রাচীন এবোদালো (ব্যাক্ট্রিয়ান: ηβοδαλο / "Hephthalites") থেকে উৎপত্তি হয়ে থাকতে পারে। ১৭৪৭ সালে দুররানি সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার পর থেকে তাদের দুররানি বলা হয়ে থাকে।[১] হিসাব অনুযায়ী দুররানিদের সংখ্যা আফগানিস্তানের জনসংখ্যার মোটামুটি ১৬% বা ৫০,০০,০০০।[২] দুররানিদের আফগানিস্তান ও পাকিস্তান জুড়ে পাওয়া যায়। তবে বৃহৎ সংখ্যায় তাদের দক্ষিণ আফগানিস্তানে দেখতে পাওয়া যায়। এছাড়াও পূর্ব, পশ্চিম ও মধ্য আফগানিস্তানে তাদের অল্প আকারে পাওয়াযায়। পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া এবং পাঞ্জাব প্রদেশে অনেক দুররানিদের দেখতে পাওয়া যায়। কাবুলের দুররানিরা সাধারণত পশতু ও দারি ভাষী হয়ে থাকে। সাদুজাই ও বারাকজাইরা দুররানিদের থেকে উদ্ভূত হয়েছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

দুররানি (আবদালি) গোত্রের পতাকা।
আহমেদ শাহ দুররানি ১৭৪৭ সালে দুররানি সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেন এবং এরপর থেকে দুররানি  নামের উদ্ভব হয়েছে।

প্রায় ৭ম শতাব্দী থেকে ১৮শ শতাব্দীর মধ্যভাগে আহমেদ শাহ দুররানি কর্তৃক দুররানি সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার আগ পর্যন্ত তাদের আবদালি  পরিচিত ছিল।[৩] আহমেদ শাহ এসময় পাদশাহ দুর-ই দুররান (বাদশাহ, "যুগের মুক্তা") উপাধি ধারণ করেছিলেন।[৪] একটি লয়া জিরগার পরে তিনি পশতুন গোট্রগুলোকে একতাবদ্ধ করেন এবং তার নাম আহমেদ শাহ আবদালির পরিবর্তে আহমেদ শাহ দুররানি হিসেবে ব্যবহার শুরু হয়। 

আবদালিদের উৎপত্তি হেফথালিদের থেকে হয়ে থাকতে পারে।[৫] আবদালিদের ঐতিহ্যবাহী গোত্রীয় লোককাহিনীতে কাইস আবদুর রশিদের উল্লেখ রয়েছে যাকে পাখতুন জাতিগোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে ধারণা করা হয়। কাইস আবদুর রশিদের তিন পুত্রের অন্যতম ছিলেন সারবানি। সারবানির প্রথম পুত্র ছিলেন শরফউদ্দিন, শরফউদ্দিনের জ্যেষ্ঠ পুত্র ছিলেন তারিন। তারিনের চার পুত্রের অন্যতম ছিলেন মালিক আবদাল। আবদালের পুত্র ছিলেন রাজ্জাল। রাজ্জালের পুত্র সুলাইমান জিরাক খান দুররানিদের পূর্বপুরুষ। জিরাকদের শাখা সুলাইমান জিরাক খান থেকে শুরু হয়। জিরাক ছিলেন পুপালজাই, বারাকজাই ও আলাকুজাইদের পিতা।[৬]

গিলজিদের শাসনামলে দুররানিরা ছিল সবচেয়ে বিভক্ত পশতুন গোত্র। তাদের মধ্যে কেউ কেউ গিলজিদের প্রকাশ্যে বিরোধিতা করত। দুররানিরা আফগানিস্তানের প্রধান পশতুন গোষ্ঠী। সাবেক রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই দুররানিদের শাখাগোত্র পুপালজাইয়ের সদস্য। বারাকজাই সদস্য ও বাদশাহ মুহাম্মদ জহির শাহর সাথে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল।

কোহাতে দুররানি রাজপুত্রের সমাধি

শাখা[সম্পাদনা]

আহমেদ শাহ আবদালি ছিলেন সাদুজাই আবদালি গোত্রের সদস্য। দুররানি তারিন গোত্র পাঞ্জপাই ও জিরাক নামক শাখায় বিভক্ত। জিরাক শাখার মধ্যে রয়েছে পুপালজাই, আলিকুজাই, বারাকজাই, আচাকজাই।[citation needed]

পাঞ্জপাই শাখার দুররানিদের পশ্চিম কান্দাহার, হেলমান্দ ও ফারাহ অঞ্চলে দেখতে পাওয়া যায়। এই শাখার মধ্যে রয়েছে আলিজাই, নুরজাই, ইসহাকজাই বা সাকজাই ও মাকু।

পশতুন গোত্রগুলোর মধ্যে দুররানিদের শিক্ষার সবচেয়ে বেশি। সাংস্কৃতিক দিক থেকে তাজিকদের সাথে দুররানিদের অনেক মিল রয়েছে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Encyclopædia Britannica, Durrani
  2. Ethnologue 14 report for language code:PBU
  3. "Treaty of Kalat between Balochistan and Afghanistan in 1758" (PDF)। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  4. The Afghans (2002) By Willem Vogelsang.
  5. http://www.diss.fu-berlin.de/diss/servlets/MCRFileNodeServlet/FUDISS_derivate_000000007165/01_Text.pdf?hosts=
  6. Life of the Amîr Dost Mohammed Khan, of Kabul: with his political ..., by Mohan Lal, Volume 1.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]