বিষয়বস্তুতে চলুন

দিলিয়ারা অলকবার কিজি আলিয়েভা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দিলারা আলাকবর কিজি আলিয়েভা
জন্মডিসেম্বর ১৪, ১৯২৯
মৃত্যুএপ্রিল ১৯, ১৯৯১
জাতীয়তাআজারবাইজান
পেশাদার্শনিক, অনুবাদক এবং নারী অধিকার কর্মী

দিলিয়ারা আলাকবার কিজি আলিয়েভা কিংবা সংক্ষেপে দিলারা আলিয়েভা (আজারবাইজানি: Dilarə Əliyeva) (১৪ ডিসেম্বর ১৯২৯-১৯ এপ্রিল ১৯৯১), পিএইচডি, ছিলেন একজন আজারবাইজানি ভাষাবিদ, অনুবাদক এবং নারী অধিকার কর্মী। তিনি ১৯৯০-১৯৯১ সালে আজারবাইজানের সুপ্রিম কাউন্সিলের একজন সদস্য ছিলেন।

পরিবার

[সম্পাদনা]

দিলিয়ারা আলিয়েভা জর্জিয়ার তিবিলিসির কামার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন ১৯২৯ সালে।

শিক্ষা

[সম্পাদনা]

তিনি স্থানীয় আজেরি-ভাষা বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা গ্রহণ করেন। তিনি ওরিয়েন্টাল স্টাডিজ বাকু স্টেট ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করেছেন। বিএ ডিগ্রি পাওয়ার পর, তিনি আজারবাইজানের ন্যাশনাল একাডেমি অফ সায়েন্সেসের নিজামী ইনস্টিটিউট অফ ল্যাঙ্গুয়েজ অ্যান্ড লিটারেচারের একটি স্নাতক প্রোগ্রামে ভর্তি হন, সেখান থেকে তিনি জর্জিয়ান একাডেমি অফ সায়েন্সেসের রুস্তাভেলি ইনস্টিটিউট অফ লিটারেচারে ভর্তি হয়ে চলে আসেন। তিনি "উনবিংশ শতাব্দীর সাহিত্যে আজারবাইজান-জর্জিয়ান সাহিত্য সম্পর্কের প্রতিফলন" নামের একটি গবেষণাপত্রে কাজ করেছিলেন এবং ১৯৫৪ সালে এটি রক্ষা করেছিলেন।

পেশাগত কার্যক্রম

[সম্পাদনা]

তিনি পরবর্তীতে মধ্যযুগের কবি নিজামী এবং আজেরি এবং জর্জিয়ান সাহিত্যের সাহিত্যিক ঐতিহ্য নিয়ে অধ্যয়ন করে নিজামী ইনস্টিটিউটে বেশ কয়েকটি পদে তিনি কাজ করেন। তারপর আলিয়েভা ইনস্টিটিউটের একজন সিনিয়র গবেষক এবং তারপর প্রাচীন ও মধ্যযুগীয় সাহিত্য বিভাগের প্রধান হন। তিনি সাহিত্য সম্পর্ক বিভাগের একজন সিনিয়র গবেষক এবং আইনী অধ্যয়ন বিভাগের একজন সিনিয়র গবেষকও ছিলেন।

তিনি ১৯৬০ সাল থেকে আজারবাইজানের রাইটার্স ইউনিয়ন নামক লেখকদের একটি সংঘের সদস্য ছিলেন। ১৯৮৮ সালে তিনি ভাষাবিদ্যায় পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন এবং আজারবাইজান পপুলার ফ্রন্টে যোগদান করেন, যেখানে তিনি তার মেধা ও পরিশ্রম দ্বারা মাত্র অল্প কিছুদিনের মধ্যেই নির্বাহীদের একজন হয়ে ওঠেন।[১]

দিলারা আলিয়েভা তার দেশ অর্থাৎ আজারবাইজানে নারীদের অধিকার রক্ষায় 'আজারবাইজান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য প্রোটেকশন অফ উইমেন রাইটস' নামক একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন।

মৃত্যু

[সম্পাদনা]

দিলারা আলিয়েভা ১৯৯১ সালের ১৯ এপ্রিলে ৬১ বছর বয়সে একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা যান এবং তাকে বাকুতে সমাহিত করা হয়। সেই দুর্ঘটনায় তার সাথে ভাষাবিদ আয়দিন মামাদভ-ও নিহত হন। তার স্মরণে বাকুর একটি রাস্তা এবং দিলিয়ারা আলিয়েভা প্রতিষ্ঠিত সমিতির নামকরণ করা হয়েছিল তার নামে।[২]

আজারবাইজানিতে মূল প্রকাশনা:

  • Azərbaycan-gürcü ədəbi əlaqələri tarixindən. (আজারবাইজানি-জর্জিয়ান সাহিত্য সম্পর্কের ইতিহাস সম্পর্কে) বাকু: Azərbaycan SSR EA nəşriyyatı, ১৯৫৮, ১৭৪ পৃষ্ঠা।
  • Ürəkbir, diləkbir. বাকু: Yazıçı, ১৯৮১, ২১৭ পৃষ্ঠা।

অনুবাদ

[সম্পাদনা]

আলিয়েভা আজারবাইজানিতে বেশ কয়েকটি অনুবাদ লেখিকাও ছিলেন:

  • Qardaşlar (hekayələr). (ভাইয়েরা (গল্প)) বাকু: Azərnəşr, ১৯৭২, ১২২ পৃষ্ঠা।
  • Bir gecənin sevinci (hekayələr). (এক রাতের আনন্দ (গল্প)) বাকু: Gənclik, ১৯৭৭, ৮২ পৃষ্ঠা।
  • Arçil Sulakauri. Aşağı-yuxarı (povest və hekayələr). (Archil Sulakauri, চরাই-উৎরাই (বিবরণ এবং গল্প)) বাকু: ১৯৭৮, ১৮৫ পৃষ্ঠা।
  • Şota Rustaveli. Pələng dərisi geymiş pəhləvan. (শোটা রুস্তাভেলি, দ্য নাইট ইন দ্য প্যান্থারস স্কিন) বাকু: Elm, ১৯৭৮, ২০১ পৃষ্ঠা।
  • Mixail Cavaxişvili. Torpaq çəkir. (মিখাইল জাভাখিশভিলি, মাটি টানে) বাকু: Yazıçı, ১৯৮০, ২৪৮ পৃষ্ঠা (şərikli)।
  • İlya Çavçavadze. Dilənçinin hekayəti. (ইলিয়া চাভচাভদজে, ভিক্ষুকের গল্প) বাকু: Yazıçı, ১৯৮৭, ১৫১ পৃষ্ঠা।
  • Kür Xəzərə qovuşur (gürcü ədəbiyyatından seçmələr). (কুরা ক্যাস্পিয়ানে যোগ দিয়েছে (জর্জিয়ান সাহিত্য থেকে নির্বাচন)) বাকু: Yazıçı, ১৯৮৮, ৩৮৩ পৃষ্ঠা (şərikli)।

আরও দেখুন

[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. (আজারবাইজানি ভাষায়) Historical Personalities: Dilyara Sharipova ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০০৮-০৩-০৯ তারিখে. Parlaq.net
  2. খালিওভা, কনুল. A Limited Legacy ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৫-০৯-২৪ তারিখে। ওয়ানওমেন।