দহিসার নদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দহিসার নদী
Countryভারত
Stateমহারাষ্ট্র
Cityমুম্বাই
অববাহিকার বৈশিষ্ট্য
মূল উৎসসঞ্জয় গান্ধী জাতীয় উদ্যান
মুম্বাই, ভারত
মোহনাআরব সাগর, ভারত
অববাহিকার আকার৩৪.৮৮ কিমি (১৩.৪৭ মা)
প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্য
দৈর্ঘ্য১২ কিমি (৭.৫ মা)

দহিসার নদী সলসেট দ্বীপের একটি নদী যা ভারতের মুম্বাইয়ের শহরতলির দহিসারের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত। এটি শহরের উত্তর প্রান্তে সঞ্জয় গান্ধী জাতীয় উদ্যানের তুলসী হ্রদে উৎপন্ন। মানোরি খাত হয়ে আরব সাগরের সাথে মিলিত হওয়ার আগে এই নদীটি জাতীয় উদ্যান, শ্রী কৃষ্ণ নগর, দৌলতনগর, লেপ্রসি কলোনী, কান্দর পাড়া, সঞ্জয় নগর এবং দহিসার গথানের স্থানীয় অঞ্চলগুলিতে মোট ১২ কিলোমিটার ধরে প্রায় উত্তর-পশ্চিমে প্রবাহিত হয়েছে। [১] এর মোট এলাকা ৩৪৮৮ হেক্টর।[২]

নদীটি একসময় এত মনোরম ছিল যে এখানে হিন্দি চলচ্চিত্রের শুটিং হতো।[৩] ১৯৬০ এর দশকের শেষ অবধি নদীতে কুমির বাস করার প্রমাণ রয়েছে।[৪] ওয়ার্কশপ থেকে শিল্প বর্জ্য ফেলা এবং বস্তি এবং ঝড়ের পানির ড্রেনগুলি নিক্ষেপ করায় নদীটি এখন দূষিত। সাম্প্রতিক সময়ে এটি সংকুচিত হয়ে গিয়েছিল এবং পলি, ধ্বংসাবশেষ এবং প্লাস্টিকের ব্যাগ জমা হওয়ার কারণে এটি আরও অগভীর হয়ে পড়েছিল। ২০০৫ সালে মহারাষ্ট্রের বন্যায় সেখানে ১০০ জনেরও বেশি লোক প্রাণ হারিয়েছিল এবং বিএমসি নদীটি পরিষ্কার করার জন্য এবং ভবিষ্যতে বন্যা রোধে একটি বিচ্ছিন্নকরণ ও প্রশস্তকরণ প্রকল্প হাতে নিয়েছে।[৫]

দখলদারিত্ব[সম্পাদনা]

অনিয়ন্ত্রিত নগরায়ণ ফলে যেমন দহিসার ও বোরিভলির মধ্যে অবস্থিত লেপ্রসি কলোনী এবং তাবেলাসে (কাওশাদ) আবাসের জন্য নদীর তীর সংকীর্ণকরণ এর মতো মারাত্মক পরিবেশগত অবক্ষয়ের সৃষ্টি হয়েছে। পশ্চিমের রেলওয়ে ট্র্যাক থেকে দহিসার ব্রিজ পর্যন্ত এই অঞ্চলটিতে নির্মাণকাজের ধ্বংসাবশেষ / কঠিন বর্জ্য / শিল্প বর্জ্য ফেলে দেওয়ার এবং দৌলত নগরের নিকটে অশ্বশালা এবং এসভি সড়কের নিকটবর্তী অঞ্চলে উৎপন্ন কঠিন বর্জ্য ফেলার কারণে এই অঞ্চলে নদীটি প্রায়শই সরে যাচ্ছে।

নদীর তীরের শুকনো অঞ্চলের পাশাপাশি এই নদীর তীরে দখলদারিত্ব নদির দম বন্ধ করে রেখেছিল এবং বন্যার ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলেছিল। ক্ষেত্র পর্যবেক্ষণ ইঙ্গিত করছে যে নদীটি নির্মাণমূলক কার্যক্রমের বর্জ্য, নদীর তীরের শিল্প বর্জ্য এবং পৌরসভার শক্ত বর্জ্য ফেলা এবং অপর্যাপ্ত বার্ষিক অবসন্ন কর্মসূচীর অভাবে ভুগছিল। নদীর তীরবর্তী দখলদারিত্বের (ভবন, শিল্প এবং বস্তি) পাশাপাশি নদীর তীরের পরিবর্তন এবং স্রোতের স্থানীয় বিভাজন বন্যার ঝুঁকিকে আরও জোরদার করেছে। কয়েকটি চমকপ্রদ দখলদারিত্ব হল: ওয়েস্টার্ন এক্সপ্রেস হাইওয়ে এবং এসভি সড়কের মধ্যে দহিসার নদীর ধারে ব্রিজ, ওয়েস্টার্ন এক্সপ্রেস হাইওয়ের কাছে মার্বেলের দোকান, লেপ্রোসি কলোনী, ভগবতী হাসপাতাল এবং রুস্তমজী পার্কের মধ্যে বস্তির পকেট এবং রণচোদদাস মর্গ।[১]

২০০৫ এর বন্যা[সম্পাদনা]

এই বন্যাটি রেকর্ড করা অষ্টম প্রবলতম (২৪ ঘণ্টায় ৯৯৪ মিলিমিটার বা ৩৯.১ ইঞ্চি) বৃষ্টিপাতের কারনে হয়েছিল[৬] যা ২০০৫ সালের ২৬ জুলাই শহরটিতে আঘাত করেছিল এবং পরের দিন পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। জলস্রাবের সময় রাওয়াল পাড়া, ঘরতন পাড়া এবং শ্রী কৃষ্ণ নগরের প্রায় ১০,০০০ বাড়িঘর এবং দোকানপাট নিমজ্জিত হয়ে ভারী ক্ষয়ক্ষতি হয়। এই অঞ্চলে পানির স্তর ছিল প্রায় আড়াই মিটার। দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করা হাজার হাজার পরিবার পুরো জীবন-জীবিকা হারিয়ে রাতারাতি আশ্রয়হীন হয়ে পড়ে। নদীর ধারে জোয়ার নিয়ন্ত্রক প্রবেশপথের প্রয়োজনীয়তা নির্দেশ করে উচ্চ জোয়ারের কারণে দৌলত নগর, লেপ্রোসি কলোনী, মহাত্রে ওয়াদি এবং কান্দর পাদাসহ বিভিন্ন অবস্থানগুলি ৩ মিটার পানির নিচে সম্পূর্ণ নিমজ্জিত হয়েছিল। স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার স্টাফ "বৈভব" সিএইচএস সোসাইটি এর অদ্ভুত অবস্থানের কারণে বিশেষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। এই অঞ্চলের বেশিরভাগ বাংলো ধরনের আবাসিক বাড়ি পুরোপুরি ডুবে ছিল। এই ঘটনার পরে, নদীতে তলিয়ে যাওয়া এই স্থানটির জন্য একটি নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছিল। ২০১৬ সালের মার্চ অবধি এই সোসাইটির বেশিরভাগ আদি বাসিন্দারা তাদের সম্পত্তি বিক্রি করে দিয়েছেন বা, সম্পত্তি পুনর্বাসনের অপেক্ষায় ভাড়ার আবাসে ছিলেন।[১]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Final Report" (PDF)Fact Finding Committee on Mumbai floods। মার্চ ২০০৬। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১২ 
  2. Catchment number 203 as described in the BRIMSTOWAD report Table A7.1, page ES-14
  3. "Dahisar resident starts movement to clean up river"Times of India। ২০০৪-০৩-১২। ২০১৩-০১-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৭-০৩ 
  4. "Crocodile Conservation in Maharashtra"ENVIS Wildlife Institute of India। ৩০ জুন ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১২ 
  5. "Maharashtra to constitute disaster management body"Hindu Business Line। ১৬ মে ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৭-০৩ 
  6. "I'm okay, you're okay"Hindu Business Line। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১২