তেজস্বিনী সাওন্ত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
তেজস্বিনী সাওন্ত
ব্যক্তিগত তথ্য
জাতীয়তাভারতীয়
জন্ম (1980-09-12) ১২ সেপ্টেম্বর ১৯৮০ (বয়স ৩৯)
পেশাখেলোয়াড় (শ্যুটার)
ক্রীড়া
দেশভারত

তেজস্বিনী সাওন্ত (ইংরেজি: Tejaswini Sawant), (জন্ম ১২ ই সেপ্টেম্বর ১৯৮০) একজন ভারতীয় ক্রীড়া শ্যুটার।। কোলহাপুর, মহারাষ্ট্র থেকে এসেছেন। ২০১৮ সালে, কমনওয়েলথ গেমসে, মহিলাদের ৫০ মিটার রাইফেল ৩ পজিশনন্স ইভেন্টে স্বর্ণ পদক সাথে গেমস রেকর্ড (জিআর)[১] এবং মহিলাদের ৫০ মিটার রাইফেল প্রোন ইভেন্টে রৌপ্য পদক লাভ করেন। [২]

জীবনী[সম্পাদনা]

তেজস্বিনী কোলহাপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা রবীন্দ্র ও মা সুনিতা। তার পিতা রবীন্দ্র সাওয়ান্ত একজন ভারতীয় নৌবাহিনীর অফিসার ।[৩] দুটি ছোট বোন আছে অনুরাধা পাত্র এবং বিজয়মাল গভলি, উভয়ই বিবাহিত। ২০১০ সালে, ফেব্রুয়ারী মাসে, তার পিতার মৃত্যু হয়। তিনি কোলহাপুরের জয়সিং কুসালে এবং তার ব্যক্তিগত কোচ কুহেলী গাঙ্গুলির অধীনে তার অনুশীলন শুরু করেন। [৪] তিনি ক্রীড়া বিভাগের বিশেষ দায়িত্ব (ওএসডি) পদে নিযুক্ত আছেন। [৫] ২৪ আগস্ট ২০১১ সালে, তিনি অর্জুন পুরস্কার পান। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১২ সালে, বিখ্যাত সোশাল ব্যক্তিত্ব এবং বিল্ডার সমীর দারেকরকে বিয়ে করেন। [৬]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

এশিয়ান স্পোর্টস ফেডারেশন গেমস[সম্পাদনা]

২০০৪ সালে ইসলামাবাদে নবম দক্ষিণ এশিয়ান স্পোর্টস ফেডারেশন গেমসে তেজস্বিনী ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেন যেখানে তিনি ভারতকে স্বর্ণ পদক জয় করতে সাহায্য করেছিলেন।

২০০৬ কমনওয়েলথ গেমস[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে, তেজস্বিনী জাতীয় প্রতিযোগিতায় ৫টি স্বর্ণ পদক, ৬টি রৌপ্য পদক এবং ৫টি ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন। তার ফলে এশিয়ান গেমস স্বর্ণ পদক বিজয়ী অঞ্জলি ভেদ পাঠক ভাগভাত এবং বিশ্ব রেকর্ডধারী সুমা শিরুরকে নির্বাচিত না করে, তাকে কমনওয়েলথ গেমসে ভারতকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য নির্বাচিত করা হয়। মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমসে মহিলাদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেল একক ইভেন্টে এবং মহিলা ১০ মিটার এয়ার রাইফেল পেয়ার্স ইভেন্টে ( অভনীত কাউর সিধুর সাথে) স্বর্ণ পদক লাভ করেন।

আইএসএসএফ বিশ্বকাপ এবং আইএসএসএফ ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ[সম্পাদনা]

২০০৯ সালে, মিউনিখে অনুষ্ঠিত আইএসএসএফ বিশ্বকাপে, তেজস্বিনী, ৫০ মিটার রাইফেলের ৩ পজিশনন্স ইভেন্টে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন। ৪ আগস্ট ২০১০ সালে, তিনি জার্মানির মিউনিখে, ৫০ মিটার রাইফেল প্রোন ইভেন্টে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন। তিনি ৫০ মিটার রাইফেল প্রোন ইভেন্টে বিশ্ব রেকর্ডের সমান স্কোর করে ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপের স্বর্ণ পদক জয়ে করা প্রথম ভারতীয় মহিলা শ্যুটার। [৩]

২০১০ কমনওয়েলথ গেমস[সম্পাদনা]

২০১০ সালে, দিল্লিতে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমসে, তেজস্বিনী, ৫০ মিটার রাইফেল প্রোন পেয়ার্স ইভেন্টে (মিনা কুমারীর সাথে) ব্রোঞ্জে পদক এবং ৫০ মিটার রাইফেল প্রোন ইভেন্টে এককে রৌপ্য জিতেছিলেন। [৭] তিনি এই প্রতিযোগিতায় ৫০ মিটার রাইফেল ৩ পোজিসন্স ইভেন্টে (লজাকুমারী গোস্বামীর সাথে) রৌপ্য পদক জিতেছিলেন।

২০১৮ কমনওয়েলথ গেমস[সম্পাদনা]

১২ এপ্রিল ২০১৮ সালে, গোল্ড কোস্টে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমসে, তেজস্বিনী ৬১৮.৯ এর সমষ্টিগত স্কোর সহ মহিলাদের ৫০ মিটার রাইফেল প্রোন ইভেন্টে ফাইনালে রৌপ্য পদক জিতেছিলেন।[২][৬]

১৩ ই এপ্রিল ২০১৮ সালে, তেজস্বিনী মহিলা ৫০ মিটার রাইফেল ৩ পজিশনন্স ইভেন্টে স্বর্ণ পদক লাভ করেন, তিনি ৪৫৭.৯ মোট পয়েন্ট সঙ্গে একটি গেম রেকর্ড (জিআর) করেন। [১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Indian shooter wins championship"BBC News (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১০-০৮-০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৪-২১ 
  2. "Commonwealth Games 2018: Tejaswini Sawant clinches silver medal in women's 50m rifle prone event - Firstpost"www.firstpost.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৪-২১ 
  3. Cyriac, Biju Babu (৯ আগস্ট ২০১০)। "Sawant shoots historic gold at World Championships"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০১০ 
  4. [১]Times of IndiaAugust 10, 2010.
  5. [২]DNAAugust 9, 2010.
  6. "CWG 2018: After missing out last time, Tejaswini Sawant adds another gold to her CV"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৪-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৪-২১ 
  7. Masand, Ajai (১১ অক্টোবর ২০১০)। "Shooters forced to settle for bronze"Hindustan Times। New Delhi। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০১০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]