তেজস্বিনী অনন্ত কুমার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
তেজস্বিনী অনন্ত কুমার
ভারতীয় জনতা পার্টির কর্ণাটক শাখার সহ-সভাপতি
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
২ এপ্রিল, ২০১৯
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মতেজস্বিনী পি. ওক
(1966-03-11) ১১ মার্চ ১৯৬৬ (বয়স ৫৬)
জাতীয়তাভারতীয়
রাজনৈতিক দলভারতীয় জনতা পার্টি
দাম্পত্য সঙ্গীঅনন্ত কুমার (বি. ১৯৮৯; মৃ. ২০১৮)
পিতামাতাপ্রভাকর ওক
(পিতা),
প্রতিভা ওক
(মাতা)
প্রাক্তন শিক্ষার্থীবি.ভি.বি. ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি কলেজ, বেঙ্গালুরু বিশ্ববিদ্যালয়
পেশারাজনীতিবিদ

ড. তেজস্বিনী অনন্ত কুমার ওক একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ এবং সমাজসেবক, যিনি ২০১৮ সালের ১৮ জুন থেকে কর্ণাটক আইন পরিষদের বর্তমান সদস্য হিসেবে রয়েছেন। তিনি বেঙ্গালুরুতে অবস্থিত অদম্য চেতনা ফাউন্ডেশন নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার ব্যবস্থাপনা ট্রাস্টি।[১] এই সংস্থাটির মূল লক্ষ্য হল সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য অন্ন-অক্ষর-আরোগ্য (খাদ্য-শিক্ষা-স্বাস্থ্যসেবা) সরবরাহ করা।

তিনি ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য এবং বিজেপি কর্ণাটকের সহ-সভাপতি।[২]

প্রাথমিক জীবনের প্রথমার্ধ[সম্পাদনা]

তিনি বিভিন্ন ছাত্র কর্মসূচির আয়োজন করে অখিল ভারতীয় ছাত্র পরিষদের (এবিভিপি) সর্বস্তরে অত্যন্ত সক্রিয় ছিলেন। তিনি রাজ্য যুগ্মসচিব ও এবিভিপির জাতীয় নির্বাহী সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

১৯৮৮ থেকে ১৯৯৩ সালের মধ্যে তিনি বেঙ্গালুরুতে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, বিএমএস ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের প্রভাষক এবং এসডিএম ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের প্রভাষক হিসাবে কাজ করেছেন।

সমাজকর্ম[সম্পাদনা]

তিনি ও তাঁর স্বামী অনন্ত কুমার যৌথভাবে সমাজসেবার জন্য অদম্য চেতনা ফাউন্ডেশন নামে একটি অলাভজনক সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এটি ১৯৯৯ সালে অনন্ত কুমারের মা গিরিজা শাস্ত্রীর স্মৃতিতে চালু করা হয়েছিল।[৩] সংস্থাটি মধ্যাহ্নভোজ কর্মসূচির মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের স্কুলে খাদ্যসহায়তা দিয়ে থাকে। সংখ্যার হিসেবে সংস্থাটি প্রতিদিন প্রায় ২,০০,০০০ শিশুর খাবার পরিবেশন করে থাকে।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Adamya Chetana – Anna Akshara Arogya"Adamyachetana.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১১-২১ 
  2. "Tejaswini Ananth Kumar appointed Karnataka BJP VP after being denied LS ticket from B'luru South" 
  3. "Ananth Kumar: Union Minister Ananth Kumar passes away"K R BalasubramanyamThe Economic Times। ১২ নভেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০১৮ 
  4. "'Our Annapoorna kitchens are paathshaalas, prayogashaalas too' - Times of India"Timesofindia.indiatimes.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১৮