তুমি আসবে বলে (টেলিভিশন ধারাবাহিক)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
তুমি আসবে বলে
তুমি আসবে বলে (টেলিভিশন ধারাবাহিক).jpeg
তুমি আসবে বলে
ধরণরোমান্টিক গল্প
ফরম্যাটটেলিভিশন ধারাবাহিক
রচনাপ্রমিতা ভট্টাচার্য
পরিচালকজয়দ্বীপ মুর্খাজী
প্রস্তুতকারক দেশভারত
মূল ভাষাবাংলা
নির্মাণ
ব্যাপ্তিকাল২২মিনিট
সম্প্রচার
মূল চ্যানেলস্টার জলসা

তুমি আসবে বলে ভারতের একটি বাংলা টেলিভিশন ধারাবাহিক। যেটি সোম থেকে শনি ভারতের সময় অনুযায়ী সন্ধ্যা ৭টায় সম্প্রচার করা হয়েছিল।গতানুগতিক পারিবারিক নাট্যধারার বাইরে কিছুটা ভিন্নধারার গল্পের কারণে স্টার জলসার 'তুমি আসবে বলে' দর্শকহৃদয়ে আলাদা জায়গা করে নিতে পেরেছে। নচিকেতার বিখ্যাত একটি গানের লাইন 'তুমি আসবে বলে' থেকে সিরিয়ালটির নামকরণ করা হয়েছে।

কাহিনী সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

রাহুল ও নন্দিনী একই কলেজে পড়ত। রাহুল নন্দিনীর সিনিয়র ছিল। রাহুল নন্দিনীকে ভালোবাসত। কিন্তু নন্দিনী তাকে ভালোবাসত না। একসময় নন্দিনির বিয়ে হয়ে যায়। নন্দিনীর মেয়ে হয়। তারপর হঠাৎ এক গাড়ি দুর্ঘটনায় নন্দিনীর স্বামী মারা যায়। রাহুল নন্দিনীর মেয়েকে খুব ভালবাসত। নন্দিনীর মেয়ের ভালোবাসার টানে সে নন্দিনী কে বিয়ে করে। এভাবে কাহিনির সূত্রপাত হয়। এরপর,রাহুলের সৎমা রুপাঞ্জনা এর সাথে নন্দিনীর লড়াই শুরু হয়। নিজের স্বার্থের জন্য এই নারী কতটা জঘন্য, হিংস্র হতে পারে সেটা রূপাঞ্জনার নানা কর্মকাণ্ডে প্রকাশ পেলেও রাহুল মায়ের প্রতি অন্ধ ভালোবাসার কারণে তা উপলব্ধি করতে পারে না। নন্দিনী শাশুড়ি রূপাঞ্জনার সর্বনাশী ষড়যন্ত্র থেকে স্বামী রাহুল এবং কন্যা ঝুমঝুমিকে রক্ষা করতে তৎপর হয়। প্রতিকূল পরিবেশ পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে গিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়ে। তবুও নন্দিনী দমে যায় না, পরিবারের স্বার্থে সব ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে চ্যালেঞ্জিং মনোভাব নিয়ে এগিয়ে যায়। এত কিছুর পরও স্বামী রাহুলের প্রতি তার ভালোবাসার প্রকাশ আগের মতোই অটুট। পারিবারিক জীবনের নানা ঘটনা সম্পর্কের বিচিত্র টানাপড়েনের বিষয়গুলো চমৎকারভাবে ফুটে উঠছে দর্শকপ্রিয় বাংলা টিভি সিরিয়ালটিতে।[১]

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

  • রাহুল দেবরায় হিসেবে রাহুল
  • নন্দিনী দেবরায় হিসেবে সন্দীপ্তা সেন
  • রুপাঞ্জনা দেবরায় হিসেবে রুপাঞ্জনা মিত্র
  • সিঞ্জিনি দেবরায় / ঝুমঝুমি হিসেবে রগ্নিতা
  • অঞ্জন সরকার হিসেবে সাগনিক চ্যাটার্জী
  • জয়শ্রী সরকার হিসেবে জয়শ্রী মুখার্জী / সোনিকা চৌহান
  • রনিত দেবরায় হিসেবে সুদীপ সরকার
  • দিশা দেবরায় হিসেবে দিশা গাঙ্গুলী / ত্বরিতা চ্যাটার্জী
  • মুনমুন হিসেবে সুচন্দ্রা ব্যানার্জী
  • রিয়া মজুমদার হিসেবে প্রিয়াঙ্কা ভট্টাচার্য
  • অভিনন্দন মজুমদার হিসেবে অর্ণব চৌধুরী
  • সৌম্য দেবরায় হিসেবে অনিন্দ্য সরকার
  • কলোনেল সেন হিসেবে ফাল্গুনী চ্যাটার্জী
  • মিষ্টি / রংগ / সীমা হিসেবে শাওন দে
  • পিয়ালি মজুমদার হিসেবে রঞ্জিনি চ্যাটার্জী
  • নিখিলেশ মজুমদার হিসেবে সপ্তর্ষী রায়
  • সন্দীপ হিসেবে সিদ্ধার্থ ব্যানার্জী
  • ডঃ প্রবুদ্ধ চক্রবর্তী হিসেবে অনিমেষ ভাদুড়ী
  • রোহিনী হিসেবে প্রীতি বিশ্বাস
  • সরোজিনি হিসেবে অনিন্দিতা ভট্টাচার্য
  • রুমি হিসেবে মেঘনা মূখার্জী
  • লিপি হিসেবে অন্তরা মিত্র
  • দেবমাল্য হিসেবে অনির্বান ভট্টাচার্য

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

'তুমি আসবে বলে' ধারাবাহিকে নন্দিনী এবং রাহুল চরিত্রে অভিনয় করেছেন যথাক্রমে সন্দীপ্তা সেন ও রাহুল ব্যানার্জি। নন্দিনী চরিত্রে সন্দীপ্তার হৃদয়ছোঁয়া অভিনয় ধারাবাহিক নাটকটি জনপ্রিয়তা পায়। রাহুল চরিত্রে ছোট পর্দা এবং বড় পর্দার তুখোড় অভিনেতা রাহুল ব্যানার্জির অভিনয় নাটক্কেটি সমৃদ্ধ করেছে। 'তুমি আসবে বলে' ধারাবাহিক নাটকের জন্য সন্দীপ্তা এবং রাহুল অনেক পুরস্কার পেয়েছেন।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "এক নারীর পারিবারিক লড়াই | আনন্দ বিনোদন | The Daily Ittefaq"archive1.ittefaq.com.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-০৪ 
  2. "লোভ-লালসার এপিঠ-ওপিঠ"সমকাল (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-০৪