তারেক সুহিমাত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চিকিৎসক
জন প্রতিনিধি

তারেজ সালাস সুহিমাত
Dr. Tareq Salah Suheimat.jpg
সিনেটর
কাজের মেয়াদ
১৭ নভেম্বর ২০০৫ – ২৮ নভেম্বর ২০১৭
যোগাযোগ মন্ত্রণালয়
কাজের মেয়াদ
৩০ মে ১৯৯৩ – ৭ জুন ১৯৯৪
প্রধানমন্ত্রীআবদেলসালাম আল মাজালি
স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়
কাজের মেয়াদ
১৯ জুন ২০০০ – ১৬ জুন ২০০১
প্রধানমন্ত্রীআলী আবু আল রাঘব
সিনেটর
কাজের মেয়াদ
১৭ নভেম্বর ২০০৫ – ২৮ নভেম্বর ২০০৭
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম(১৯৩৬-০৯-২৩)২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৩৬
আল কারাক
মৃত্যু২১ জুলাই ২০১৪(2014-07-21) (বয়স ৭৭)
আম্মান
জাতীয়তাজর্ডান
সম্পর্কসালাহ সুহিমাত (পিতা), আতাল্লাহ সুহিমাত (দাদা), মুহম্মদ সুহিমাত (চাচা)
ধর্মইসলাম

তারেক সালাহ আতাল্লা সুহিমাত (২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৩৬ – ২১ জুলাই ২০১৪) একজন বিশিষ্ট জর্ডানের চিকিত্সক, কিডনি বিশেষজ্ঞ, সামরিক প্রধান ছিলেন। তিনি দক্ষিণ জর্ডানের ঐতিহাসিক শহর আল-কারাকে জন্মগ্রহণ করেন। সুহিমাত আম্মানের বিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করতেন এবং যুক্তরাজ্যযুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ঔষধীর উপর পড়াশুনা করেন। তিনি জর্ডানের সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন যেখানে তিনি জেনারেল পদে উত্তীর্ণ হন। তিনি একই সাথে সরকারী পদ ও চিকিৎসালয়ে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন।[১]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

  • তিনি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা জর্ডানের রাজধানী আম্মান থেকে অর্জন করেন।
  • তিনি ব্রিটেনে পড়াশোনা করেন , সেখানে তিনি লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ঔষধি ও লণ্ডন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে শল্যচিকিৎসায় স্নাতক করেন।
  • তিনি অভ্যন্তরীণ ঔষুধী ও মুত্রাশয় সংক্রান্ত রোগ এর ক্ষেত্রে বিশেষায়িত ডিগ্রি অর্জন করেন।
  • যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়া থেকে বৃক্কের উপর আধুনিক বিশিষ্টতা অর্জন করেন।

স্বাস্থ্য সংস্থায়[সম্পাদনা]

  • জর্দান মেডিকেল এসোসিয়েশন এর সদস্য।
  • জর্দান সোসাইটি অফ নেফ্রোলজি এর সদস্য এবং সাবেক চেয়ারম্যান।
  • আরব সোসাইটি অফ নেফ্রোলজি ও কিডনি প্রতিস্থাপন সংস্থার সদস্য এবং সাবেক চেয়ারম্যান।
  • ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি অফ নেফ্রোলজির সদস্য।
  • জর্দানের ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি অফ নেফ্রোলজির সদস্য।
  • জর্ডান মেডিকেল কাউন্সিল এর নেফ্রোলজি বিভাগের সদস্য এবং সাবেক চেয়ারম্যান।
  • আমেরিকান কলেজ অব ফিজিসিয়ান এর ফেলো।

জাতীয় সংস্থায়[সম্পাদনা]

  • আন্তর্জাতিক বিষয়ক সমিতির সদস্য।
  • রোগীদের বন্ধু সংস্থার সদস্য।
  • ব্রিটিশ-জর্ডানে বন্ধুত্ব সোসাইটির সদস্য এবং সাবেক চেয়ারম্যান।
  • জর্ডানের ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল গ্রাজুয়েট সোসাইটির প্রধান

অভিজ্ঞতা[সম্পাদনা]

তিনি জর্ডানের সশস্ত্র বাহিনীতে যোগদান করেন। তার জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন অভিজ্ঞতা হয়েছে; যেমনঃ

  • রাজা হুসেন চিকিৎসা কেন্দ্রের অভ্যন্তরীণ মেডিসিন ও কিডনি রোগের প্রধান পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
  • উপ-পরিচালক, রয়েল চিকিৎসা সেবা জর্ডান।
  • রাজা হুসেন চিকিৎসা কেন্দ্রের চিকিৎসা পরিচালক।
  • রাজা হুসেন মেডিকেল কেন্দ্রের ইন্টারনাল মেডিসিন এর বিভাগের চেয়ারম্যান।
  • রাজা হুসেন মেডিকেল শহর এর কিডনি বিভাগের প্রধান।
  • কাতার রাজ্যের হামাদ জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক।
  • ১৯৯৩ সালে আল-মাজালি সরকারের সময় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী।
  • ২০০০ সালে আবু আল-রাঘবের সময় স্বাস্থ্য মন্ত্রী।[২]
  • জর্ডান এর সিনেট সদস্য।
  • জর্ডানের ডাক ও টেলিযোগাযোগ পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান।
  • আম্মান সামরিক হাসপাতালে প্রথম সফল কিডনি প্রতিস্থাপন (১৯৭২) করেন, যা আরব বিশ্ব ও জর্দানে প্রথম ছিল।

খেতাব[সম্পাদনা]

  • প্রথম অর্ডার অব স্টার জর্ডানের গ্র্যান্ড কর্ডন।
  • অর্ডার এর ইন্ডিপেন্ডেন্স (জর্ডানের) প্রথম গ্র্যান্ড কর্ডন।
  • দ্বিতীত সুপ্রিম অর্ডার অব রেনেসার গ্র্যান্ড কর্ডন।
  • অর্ডার অব মিলিটারি মেরিট প্রথম ক্লাস।
  • অর্ডার অব রেনেসাঁ এর দ্বিতীয় বিভাগ।
  • ২০১৩ সালে ২৩ থেকে ২৫ জানুয়ারী জর্ডানের রাজধানী আম্মানে অনুষ্ঠিত হওয়া আন্তর্জাতিক সোসাইটি অফ নেফ্রোলজির গৃহীত প্রথম পদক পান।[৩]
  • তার প্রচুর সংখ্যক গবেষণা ও চিকিৎসা নিবন্ধ আছে, দেশের ভিতরে ও বাইরে বিভিন্ন সম্মেলনে তিনি জর্ডানের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।
  • যাও সামরিক কর্মজীবনের মেজর জেনারেল পদে অভিষিক্ত হন এবং ১৯৮৭ সালে অবসর গ্রহণ করেন।
  • শেষ বাদশাজ হোসেন বিন তালাল, যুবরাজ হাসান বিন তালাল এবং যুবরাজ মুহাম্মদ বিন তালাল এর চিকিৎসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। {|style="margin: 0 auto;"

|

|

পরিবার[সম্পাদনা]

তারেক সুহিমাত এমপি সালাহ সুহিমাতের পুত্র এবং জাতীয়তাবাদী নেতা আতাল্লাহ সুহিমাতের দৌহিত্র। আতাল্লাহ সুহিমাত ১৯২৯ সালে জর্ডানের প্রথম আইন প্রণয়নকারী সংস্থার সদস্য ছিলেন। তারেক রান্ডা মুরাদকে বিবাহ করেন। তাদের তিন সন্তান আছে:

  • ফিরাস তারেক সুহিমাত (জন্ম. ১৯৬৫)
  • রাওয়ান তারেক সুহিমাত(বি. ১৯৬৯)
  • সালাহ তারেক সুহিমাত (বি. ১৯৭১)

মৃত্যু[সম্পাদনা]

চিত্র:Tareq Suheimat's Funeral.jpg
ড. তারেক সুহিমাতের অন্তেঃষ্টিক্রিয়া সেনাবাহিনী দ্বারা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তিনি জর্ডানের আম্মানে সমাহিত হন

তার মৃত্যুর ঘোষণা করা হয় ২১ জুলাই ২০১৪ তে। সেসময় রমজানের ২৩ তম দিন ছিল।[৪] তাকে জর্ডানের আম্মানে সমাহিত করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Suheimats, history and attitudes, 2005.
  2. Jordan – Government – The Cabinet List. Kinghussein.gov.jo. Retrieved on 22 July 2014.
  3. [১][অকার্যকর সংযোগ]
  4. Former minister Tareq Suheimat dies. The Jordan Times. 22 July 2014