টি.মিনা কুমারী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
টি.মিনা কুমারী
মেঘালয় উচ্চ আদালত-এর প্রধান বিচারপতি]
কাজের মেয়াদ
২৩ মার্চ ২০১৩ – ৩ আগস্ট ২০১৩
মনোনয়নকারীCollegium of Supreme Court of India
নিয়োগদাতারাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি
পূর্বসূরীকার্যালয় প্রতিষ্ঠিত
উত্তরসূরীটি. নন্দকুমার সিং
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1951-08-03) ৩ আগস্ট ১৯৫১ (বয়স ৭১)
যালামানছিলি, বিশাখাপত্তনম জেলা, অন্ধ্র প্রদেশ

টি.মিনা কুমারী (জন্ম ১৯৫১) ভারতের একজন অবসরপ্রাপ্ত উচ্চ আদালতের বিচারক।[১] তিনি মেঘালয় উচ্চ আদালত-এর প্রথম প্রধান বিচারপতি ছিলেন।[২] তিনি পূর্বে অন্ধ্রপ্রদেশ উচ্চ আদালত এবং পাটনা উচ্চ আদালত এর বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।[৩]

শিক্ষা ও পরিবার[সম্পাদনা]

তিনি ওসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, হায়দ্রাবাদ, অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে তার আইন ডিগ্রী সম্পন্ন করেন। তিনি মৃত বেহালাবাদক পদ্মশ্রী ভেঙ্কটাস্বাোয়ামী নাইডুর নাতনী।[৪]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

২০১৩ সালে তিনি মেঘালয়ের প্রথম প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছিলেন, তিনি বলেন, তার প্রথম অগ্রাধিকার হবে রাজ্যে ফাস্ট ট্র্যাক আদালত স্থাপন করা, পাশাপাশি অঞ্চলের সমস্যাগুলি বোঝা এবং মুলতুবি মামলার নিষ্পত্তি করা।[৫] যাইহোক, তিনি মাত্র পাঁচ মাস এই পদে ছিলেন। ২০১৩ সালের আগস্ট মাসে মেঘালয়ের প্রধান বিচারপতি হিসাবে অবসর গ্রহণের পর তাকে ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে তামিলনাড়ু রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারপারসন নিযুক্ত করা হয়।[৬] পদটি ২০১১ সাল থেকে খালি ছিল।[৭]

অন্ধ্রপ্রদেশ উচ্চ আদালতে বিচারক হিসেবে কাজ করার সময় ২০১০-এ তিনি সাত বিচারকের বেঞ্চের সদস্য হিসাবে টি. মুরালিধর রাও বনাম অন্ধ্র প্রদেশ রাজ্য মামলাটির সাথে যুক্ত ছিলেন। মামলাটি ছিল ধর্ম ভিত্তিক রিজার্ভেশন নিয়ে, বিশেষ করে অনুন্নত শ্রেণীর মুসলমানদের জন্য রিজার্ভেশন সম্পর্কিত। সংখ্যাগরিষ্ঠ দৃষ্টিভঙ্গির সাথে একমত হওয়ার পর, কোটা বাদ দিয়ে দেওয়ার পর, বিচারপতি টি. মিনা কুমারী আলাদা রায় প্রকাশ করেন।[৮][৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Chief Justice retires"। Telegraphindia.com। ২০১৩-০৮-০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০১-২১ 
  2. PTI (২০১৩-০৩-২৩)। "Meena Kumari sworn in as first chief justice of Meghalaya HC"। The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০১-২১ 
  3. "Hon'ble Justice Smt. T. Meena Kumari :: Patna High Court"। Patnahighcourt.bih.nic.in। ২০১৪-০১-০৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০১-২১ 
  4. "AP's Meena Kumari is Meghalaya's CJ"Deccan Chronicle। মার্চ ২১, ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২৫, ২০১৭ 
  5. Times, Meghalaya (মার্চ ২৩, ২০১৩)। "Meena Kumari sworn in as first Chief Justice of Meghalaya"meghalayatimes.info। ডিসেম্বর ১, ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২৫, ২০১৭ 
  6. Hindu, The (ডিসেম্বর ১, ২০১৪)। "Justice Meenakumari is rights panel chief"The Hindu। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২৫, ২০১৭ 
  7. Hindu, The (নভেম্বর ১৭, ২০১৪)। "After 3 years, rights panel gets chairperson"The Hindu। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২৫, ২০১৭ 
  8. Reddy, K. Vivek (ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১০)। "Reserving judgment"Indian Express। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২৫, ২০১৭ 
  9. Kannabiran, Kalpana (২০১৩)। Tools of Justice: Non-discrimination and the Indian Constitution। Routledge। পৃষ্ঠা 286। আইএসবিএন 9780415523103