অন্ধ্রপ্রদেশ উচ্চ আদালত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অন্ধ্রপ্রদেশ উচ্চ আদালত
High Court of Andhra Pradesh, Amaravati (May 2019) 1.jpg
অন্ধ্রপ্রদেশের অমরাবতীতে অন্ধ্রপ্রদেশ উচ্চ আদালত ভবন
প্রতিষ্ঠাকাল১ লা জানুয়ারি ২০১৯[১]
অধিক্ষেত্র ভারত
অবস্থানঅমরাবতী, অন্ধ্রপ্রদেশ, ভারত
প্রণয়ন পদ্ধতিরাষ্ট্রপতি সঙ্গে ভারতের প্রধান বিচারপতি এবং সংশ্লিষ্ট রাজ্যের রাজ্যপাল দ্বারা নিশ্চিতকরণ
অনুমোদনকর্তাভারতের সংবিধান
রায় পুনর্বিচারের আবেদন স্থানভারতের সুপ্রিম কোর্ট
বিচারকের মেয়াদবাধ্যতামূলক অবসর বয়স ৬২ বছর দ্বারা
পদের সংখ্যা৩৭
(স্থায়ী ২৮; অতিরিক্ত ৯)
তথ্যক্ষেত্রhc.ap.nic.in
প্রধান বিচারপতি
সম্প্রতিচাগাড়ী প্রবীন কুমার(ভারপ্রাপ্ত)
হইতে১ লা জানুয়ারি ২০১৯

অন্ধ্রপ্রদেশ উচ্চ আদালত হল অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যর উচ্চ আদালত। উচ্চ আদালতের আসন অন্ধ্রপ্রদেশের রাজধানী অমরবতীতে অবস্থিত। [২] বর্তমানে উচ্চ আদালতের জন্য ব্যবহৃত আদালত কমপ্লেক্সটি "জুডিসিয়াল কমপ্লেক্স" হিসাবে নামকরণ করা হয়েছে এবং স্থায়ী উচ্চ আদালত ভবন উদ্বোধনের পরে "সিটি সিভিল কোর্ট"-এর জন্য এটি ব্যবহার করা হবে। [৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

এটি ১৯৫৪ সালে অন্ধ্ররাজ্য মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সি থেকে গঠিত হওয়ায় সময় এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। অন্ধ্র রাজ্য সাথে হায়দ্রাবাদ রাজ্যের সঙ্গে মিলিত হয়ে অন্ধ্রাপ্রদেশ গঠনের পর ১৯৫৬ সাল পর্যন্ত কোর্টটি প্রথমে গুন্টুর শহরে থেকে পরিচালিত হত। তারপরে উচ্চ আদালতটি রাজ্যের রাজধানী হায়দ্রাবাদ থেকে কাজ শুরু করে। তবে, অন্ধ্রপ্রদেশ পুনর্গঠন আইন ২০১৪ অনুসারে অন্ধ্রপ্রদেশকে তেলঙ্গানা ও অন্ধ্র প্রদেশে বিভাজন করার পর, অন্ধ্র প্রদেশের নতুন উচ্চ আদালত তৈরি করা না পর্যন্ত হায়দ্রাবাদে বিচারাধিকারের উচ্চ আদালতটিকে সাধারণ আদালত হিসাবে গঠন করা হয়েছিল। পরে রাষ্ট্রপতির আদেশ অনুসারে, অন্ধ্রপ্রদেশ পুনর্গঠন আইন ২০১৪-এর অধীনে ১ জানুয়ারী ২০১৯ সালে অন্ধ্র প্রদেশের উচ্চ আদালত প্রতিষ্ঠিত হয়। উচ্চ আদালতের আসন অন্ধ্রপ্রদেশ রাজধানী অমরবতী এবং এটি ভারতের প্রথম বিচার শহর।

ভূগোল[সম্পাদনা]

অন্ধ্রপ্রদেশ উচ্চ আদালত অমরাবতীর আশপাশের নীলপাদুর বিচার শহরে অবস্থিত। [৪] এটি  কৃষ্ণ নদী থেকে ৬.৪ কিমি দূরত্ব অবস্থিত।[৫]

গঠন[সম্পাদনা]

বিচারিক কমপ্লেক্স[সম্পাদনা]

অন্ধ্র প্রদেশের উচ্চ আদালত নির্মাণাধীন (জানুয়ারী ২০১৮)

এটি একটি জি+২ গঠন, যা জি+ ৫ পর্যন্ত বাড়ানো যেতে পারে। ভবনটি ২৩ টি কক্ষ নিয়ে গঠিত, যা ২২ লাখ বর্গফুট এলাকা জুড়ে বিস্তৃত। এটি ১৫৭.৩ কোটি টাকা খরচে ৪ একর জমিতে নির্মিত হয়। এই ভবনটি ভারতের বৃহত্তম বহু-জাতীক সংস্থা লারসেন অ্যান্ড টুবরো লিমিটেড দ্বারা নির্মিত হয়। [২]

স্থায়ী উচ্চ আদালত[সম্পাদনা]

এটি নির্মিত হবে ২২ একর এলাকা জুড়ে, যাতে ১২২ লাখ বর্গফুট এলাকা থাকবে। এটিতে প্রথম পর্যায়ে ৩৬ টি আদালত হল থাকবে, পরে অতিরিক্ত ২৪ টি হল যোগ করা হবে। উভয় পর্যায় যথাক্রমে ২০২২ এবং ২০৩৬ সালে সম্পন্ন করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই ভবনটির আনুমানিক ব্যয় ১,৪০০ কোটি টাকা। এপিসিআরডিএ কর্তৃক শাপুরজি পলনজী গোষ্ঠীকে নির্মাণের চুক্তি দেওয়া হয়েছে। [৬]

প্রধান বিচারপতির তালিকা[সম্পাদনা]

ক্রমিক নং প্রধান বিচারপতি মেয়াদ
সিজে/এসিজে হিসাবে নিয়োগের তারিখ মেয়াদ শেষে
- চাগাড়ী প্রবীন কুমার(ভারপ্রাপ্ত) ১ জানুয়ারি ২০১৯ শায়িত্ব
বিক্রম নাথ এসসিআই-এর কলেজিয়াম দ্বারা প্রস্তাবিত

(ভারত সরকার কর্তৃক অনুমোদিত নয়)

বর্তমান বিচারক[সম্পাদনা]

কেন্দ্রীয় সরকার ১ জানুয়ারি ২০১৯ সাল থেকে বিজ্ঞপ্তি বলে অমরাবতীকে প্রধান আসন করে অন্ধ্রপ্রদেশের জন্য একটি নতুন উচ্চ আদালত গঠনের সূচনা করে।[৭]

"সংবিধানের অনুচ্ছেদ ২১৪ এবং ভারতের সুপ্রীম কোর্ট কর্তৃক জারি করা আদেশ এবং অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ভূষিত ক্ষমতাবলে (ক) ধারা ৩০-এর (১) উপ ধারা, ধারা ৩১-এর (১) উপ-ধারা ও অন্ধ্রপ্রদেশ পুনর্গঠন আইন ২০১৪-এর ৩১ ধারা (২) এর উপ-ধারায় রাষ্ট্রপতি অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যে ১ লা জানুয়ারী ২০১৯ সাল থেকে অন্ধ্রপ্রদেশের জন্য পৃথক উচ্চ আদালত গঠন করে, অমরাবতীতে উচ্চ আদালতের প্রধান আসন গঠিত হয় এবং হায়দ্রাবাদ উচ্চ আদালত তেলঙ্গানার রাজ্য উচ্চ আদালতে পরিণত হয়।"

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "New Andhra High Court to function at Amaravati from Jan 1, President issues notification"Thenewsminute.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  2. "CJI Ranjan Gogoi to open Judicial Complex, lay stone for permanent HC in Amaravati today"The New Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০৩ 
  3. "Andhra Pradesh high court transit building to be opened on February 3 – Times of India"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০৩ 
  4. Reporter, Staff (২০১৯-০২-০২)। "CJI to inaugurate judicial complex today"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০৩ 
  5. গুগল (২৮ জানুয়ারি ২০১৯)। "Distance between High Court and Krishna river" (মানচিত্র)। গুগল মানচিত্র। গুগল। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  6. Reporter, Staff (২০১৯-০১-২৮)। "Govt. pays attention to development of Justice City"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০৩ 
  7. Sitting in Judgment : The Working Lives of Judges, ২০১১