জেমস হ্যারিসন (রক্তদাতা)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জেমস হ্যারিসন
জন্ম (1936-12-27) ২৭ ডিসেম্বর ১৯৩৬ (বয়স ৮২)
জাতীয়তাঅস্ট্রেলীয়
অন্য নামজেমস ক্রিস্টোফার হ্যারিসন
পেশাসমাজসেবা
পরিচিতির কারণরক্ত প্লাজমা দাতা

জেমস ক্রিস্টোফার হ্যারিসন (ইংরেজি: James Christopher Harrison), ওএএম, দি ম্যান উইখ দ্যা গোল্ডেন ব্লাড নামেও পরিচিত, অষ্ট্রেলিয়ার একজন রক্ত প্লাজমা দাতা যার অস্বাভাবিক প্লাজমা সন্নিবেশ রেসাস রোগ এর চিকিৎসা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। বর্তমানে জেমস এর বয়স ৭৯ বছর। ২০১১ এর মে মাসে তিনি ১০০০ তম বারের রক্ত দানের মাইল ফলকে পৌঁছান। এই যাবৎ তিনি ২০ লাখের বেশি শিশুকে নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা করেছেন। এজন্য তাকে The man of golden arm নামে আখ্যায়িত করা হয়।[১][২][৩]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

জেমস ক্রিস্টোফার হ্যারিসন ২৭ ডিসেম্বর ১৯৩৬ সালে জন্মগ্রহণ করেন।[৪]

রক্ত প্লাজমা দান[সম্পাদনা]

তার রক্তে রয়েছে Rho(D) Immune Globulin নামের একটি দূর্লভ এন্টিবডি যা রেসাস এনিমিয়া (+ve এবং -ve রক্তের গ্রুপের পিতামাতার সন্তান ধারনের ফলে সৃষ্টি হয়) নামের একটি ভয়ঙ্কর রোগের চিকিৎসায় প্রয়োজন হয়। তার বয়স যখন ১৮ তখন থেকেই তিনি রক্তদান শুরু করেন (১৮ বছর বয়সের আগে রক্ত দান বৈধ নয়) এবং খুব শীঘ্রই তার রক্তে দূর্লভ এন্টিবডিটি আবিষ্কার করেন। তারপর থেকে কয়েক সাপ্তাহ অন্তর তিনি রক্ত দিয়ে আসছেন। তবে তার রক্তের রক্তরস (প্লাজমা) টুকুই এন্টিবডি সংগ্রহের জন্য যথেষ্ট এবং দুই-তিন সাপ্তাহ অন্তর প্লাজমা দান করা যায় এবং এন্টিবডি বিতরণের জন্য তাকে বেশ ঘন ঘন রক্ত দান করতে হয়।[৫]

১০০০ তম রক্তদনের রেকর্ড[সম্পাদনা]

রক্ত প্লাজমা হিসেবে প্রতি ২ সপ্তাহে একবার দান করা সম্ভব। তিনি মে ২০১১ সালে তার ১০০০ তম রক্তদানের মাইলফলক সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছেন। এটা ৫৭ বছর সময়কালে প্রতি ৩ সপ্তাহে একবার রক্তদান করলেই কেবল সম্ভব।[৬]

অর্জন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "'Saving Lives'"TEN News। সংগ্রহের তারিখ ১২ জানুয়ারি ২০১৩ 
  2. "'Man with the golden arm' saves 2million babies in half a century of donating rare type of blood"Daily Mail। ২৩ মার্চ ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০১০ 
  3. "James Harrison: Australian Man With Special Blood Type Saves 2 Million Babies"The Huffington Post। ২৪ মার্চ ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০১০ 
  4. "James Harrison OAM"। australianoftheyear.org.au। ১১ জুন ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুন ২০১৪ 
  5. "James Harrison: FTA threatens blood donor system"The AustralianAustralia। ১৯ জানুয়ারি ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ৩ এপ্রিল ২০১০ 
  6. It's an Honour - OAM