জুলিয়া মাইকেলস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জুলিয়া মাইকেলস
Julia Michaels (cropped).jpg
২০১৬ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে জুলিয়া গান পরিবেশন করছেন।
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম নামজুলিয়া কাভাজস
জন্ম (1993-11-13) ১৩ নভেম্বর ১৯৯৩ (বয়স ২৬)
ডাভেনপোর্ট, আইয়োহা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
উদ্ভবসান্টা ক্লারা, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ধরন
পেশা
  • গায়িকা
  • গীতিকার
বাদ্যযন্ত্রসমূহ
  • কন্ঠ
  • পিয়ানো
  • গিটার
কার্যকাল২০১০-বর্তমান
লেবেলরিপাবলিক
সহযোগী শিল্পীজাস্টিন ট্রান্টার

জুলিয়া কাভাজস (জন্ম নভেম্বর ১৩, ১৯৯৩),[১][২] তার মঞ্চ নাম জুলিয়া মাইকেলস নামেই পরিচিত, একজন মার্কিন গায়িকা এবং গীতিকার। তিনি টিনএজ বয়স থেকেই সঙ্গীত পরিবেশন করছেন এবং গান লেখা শুরু করেন যেগুলো হাই-প্রোফাইল শিল্পীদের দেওয়া হত, এদের মধ্যে ডেমি লোভাটো, ফিফথ হারমোনি, হেইলি স্টেইনফেল্ড, এবং জিঅয়েন স্টেফানি অন্যতম। জুলিয়া রিপাবলিক রের্কডসের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন, ২০১৭-এ প্রকাশ করেন তার অভিষেক একক গান "ইস্যুস", যেটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিলবোর্ড হট ১০০ তালিকায় ১১ নম্বরে অবস্থান করে এবং রের্কডিং ইন্ডাষ্ট্রি অ্যাসোসিয়েশন অব আমেরিকা (রিয়া) কর্তৃক ডাবল-প্লাটিনাম হিসেবে স্বীকৃতি পায়।[৩]। এরই পরে প্রকাশ পায় তায় অভিষেক সম্প্রসারিত বাজনা, নার্ভাস সিস্টেম (২০১৭)।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

প্রারম্ভের জীবন ও সঙ্গীত রচনা[সম্পাদনা]

জুলিয়া কাভাজস জন্মগ্রহণ করেন ডাভেনপোর্ট, আইহোয়ায় কিন্তু সান্টা ক্লারা, ক্যালিফোর্নিয়ায় চলে যান, তার পরিবারের সাথে এদের মধ্যে তার বড় বোন জ্যাডেন মাইকেলস, তিনিও একজন গীতিকার। তার পিতা, জুয়ান ম্যানুয়েল কাভাজস, একজন পুয়ের্তো রিকান, এবং একটি অভিনয় কর্মজীবন শুরু করতে নাম পরিবর্তন করে রাখেন জন মাইকেলস।[১] ১২ বছর বয়সেই তিনি গান গাওয়া শুরু করেন। টিন এজের শেষার্ধে, তিনি দেখা করেন গীতিকার জোলেন বেলে এবং লিন্ডি রবিনস এর সঙ্গে, যাদের সাথে তিনি ডেমি লোভাটোর জন্য লেখেন ফায়ার স্টার্টার এবং ফিফট হারমোনির জন্য লেখেন মিস মোবিন' অন"।[৪]

জুলিয়া তার সঙ্গীত প্রভাবক হিসেবে উল্লেখ করেছেন ফিওনা অাপেল, লিসা মিশেল, লাউরা মার্লিং, মিসি হিগিংস, পারাম্যোর, জুলিয়েট সিমস, সারাহ ব্লাসকো, এবং দ্য ফ্রে এর নাম।[৫]

তিনি হলিউড পপ সারকিটসে লিখেছেন তার ১৬ বছর বয়স থেকে। যখন তার বয়স ১৯, তিনি সাক্ষাৎ করেন তার সঙ্গীত লেখক সহযোগী জাস্টিন ট্রান্টারের সঙ্গে, যার সঙ্গে তিনি নিয়মিত সহযোগে কাজ করে চলেছেন।[৬] নরওয়েজিয়ান গায়ক কায়গোর সঙ্গে তিনি রিও ডি জেনিইরোতে অনুষ্ঠিত ২০১৬ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের সমাপনী অনুষ্ঠানে "কেরি মি" গানটি পরিবেশন করেন।[৭]

২০১৭-বর্তমান: একক সঙ্গীত কর্মজীবন[সম্পাদনা]

জানুয়ারি ২০১৭-এ, প্রকাশ করেন তার অভিষেক একক গান "ইস্যুস", যেটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিলবোর্ড হট ১০০ তালিকায় ১১ নম্বরে অবস্থান করে এবং রের্কডিং ইন্ডাষ্ট্রি অ্যাসোসিয়েশন অব আমেরিকা (রিয়া) কর্তৃক ডাবল-প্লাটিনাম হিসেবে স্বীকৃতি পায়।[৮] জুলিয়া বলেছেন এটি ছিল প্রথম বার আমার লেখা একটি গান যার আওয়াজ আমার নিজের খুব ভালো লেগেছে যা আমি কাউকে গাইতে দেইনি। জুলিয়ার ভাষ্যমতে, অনেক বড় শিল্পীরাই এই গানটির জন্য যুদ্ধ করেছে, কিন্তু জুলিয়া নিজের জন্য গানটি রেখে দিয়েছে।[৯]

এপ্রিল ২০১৭-এ, জুলিয়ার নতুন গান হাও ডু উই গেট ব্যক টু লাভ এইচবিও এর গার্লস ধারাবাহিকে প্রচারিত হয়েছিল।[১০]

জুলাই ২৮, ২০১৭-এ জুলিয়ার ইপি নার্ভাস সিস্টেম প্রকাশিত হয়।[১১] জুন ২, ২০১৭-এ জুলিয়ার দ্বিতীয় একক "উহ হু" প্রকাশিত হয়।[১২]

ডিস্কোগ্রাফি[সম্পাদনা]

সম্প্রসারিত বাজনা

পুরষ্কার ও মনোনয়ন[সম্পাদনা]

বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড[সম্পাদনা]

বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত হয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে শিল্পীদের বাণিজ্যিক সঙ্গীতকর্মকে সম্মান প্রদশর্নের জন্য , বিলবোর্ড ম্যাগাজিন তালিকায় প্রকাশের ভিত্তিতে।[১৩]

বছর অ্যাওয়ার্ড মনোনয়ন ফলাফল তথ্যসূত্র
২০১৭ টপ কভার্ড আর্টিস্টআর্টিস্ট "ইস্যুস" মনোনীত [১৪]

এমটিভি ভিডিও মিউজিক অ্যাওয়ার্ড[সম্পাদনা]

এমটিভি ভিডিও মিউজিক অ্যাওয়ার্ড প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এমটিভি কর্তৃক ১৯৮৪-এ, বছরের গানের ভিডিওগুলোকে পুরষ্কার প্রদানের লক্ষ্যে।[১৫]

বছর অ্যাওয়ার্ড মনোনয়ন ফলাফল তথ্যসূত্র
২০১৭ সেরা নতুন শিল্পী তিনি নিজে প্রক্রিয়াধীন [১৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Savage, Mark (৩০ জুলাই ২০১৭)। "Julia Michaels: 'Dare to suck'"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ আগস্ট ২০১৭ – www.bbc.com-এর মাধ্যমে। 
  2. "Women In Music: Hitmakers from Behind the Scenes"Billboard। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  3. "Gold & Platinum: Michaels, Julia"Recording Industry Association of America। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ১, ২০১৭ 
  4. Kimpel, Dan। "Julia Michaels -- Pop's Mystery Girl"Music Connection। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৫ 
  5. Noonan, Heather (২০ জুলাই ২০১০)। "Julia Michaels Releases Debut Self-titled EP, Available Everywhere July 20th Through SA TrackWorks"। PRweb। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৫ 
  6. Hey Qween (২৩ মে ২০১৬)। "Semi Precious Weapons' Justin Tranter On Hey Qween with Jonny McGovern" – YouTube-এর মাধ্যমে। 
  7. Iasimone, Ashley। "Rio Olympics 2016 Closing Ceremony Highlights: Kygo and Julia Michaels Perform 'Carry Me,' Simone Biles Makes History & More"Billboard। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  8. Stutz, Colin। "Hit Songwriter Julia Michaels Releases Debut Single 'Issues': Listen"Billboard। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  9. "The 35 Most Anticipated Albums Of 2017"EW.com। ২২ ডিসেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  10. Graves, Shahlin (১২ এপ্রিল ২০১৭)। "Julia Michaels previews new song 'How Do We Get Back to Love' on 'Girls'."Coup De Main Magazine (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৭ 
  11. Shcherbakova, Liza (জুলাই ১৯, ২০১৭)। "Julia Michaels Announces 'Nervous System,' Her Debut 'Mini-Album'"Billboard। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৯, ২০১৭ 
  12. Wass, Mike (১ জুন ২০১৭)। "Julia Michaels' "Uh Huh" Is Every Bit As Catchy As "Issues""idolator। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০১৭ 
  13. "About | Billboard Music Awards"Billboard Music Awards। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৩০, ২০১৬ 
  14. "Billboard Music Awards Teams With Musical.ly for Fan-Voted Honor" 
  15. "About the show"। MTV। ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৫ 
  16. "VMAs: Kendrick Lamar Tops Nominations as MTV Continues to Eliminate Gendered Categories"The Hollywood Reporter। জুলাই ২৫, ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২৫, ২০১৭