জীশান জাওয়েদ শাহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জীশান জাওয়েদ শাহ
Zeeshan Shah.jpg
২০১১ সালে জীশান জাওয়েদ শাহ
জন্ম (1979-05-31) ৩১ মে ১৯৭৯ (বয়স ৪০)
বাসস্থানমানামা, বাহরাইন
শিক্ষাইকরা বিশ্ববিদ্যালয় হতে
কম্পিউটার বিজ্ঞানে মাস্টার্স
পেশাঅভিনেতা, পরিচালক, শিল্পী
কার্যকাল১৯৯৯–বর্তমান
আদি শহরকরাচি, পাকিস্তান
ওয়েবসাইটhttp://iris.nyit.edu/~zshah01

জীশান জাওয়েদ শাহ (এছাড়াও জীশান জে. শাহ নামেও পরিচিত) (জন্ম: ৩১ মে, ১৯৭৯) হচ্ছেন বাহরাইনের একজন পাকিস্তানি চলচ্চিত্র নির্মাতা। জীশান ইউনিভার্সিটি কলেজ অফ বাহরাইনে ওয়েব মিডিয়া, চলচ্চিত্র নির্মাণ, থ্রিডি মডেলিং ও অ্যানিমেশন এবং ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট বিষয়ে বিভিন্ন কোর্সে শিক্ষা প্রদান করে থাকেন।[১] পূর্বে জিশান প্রায় সাত বছরেরও বেশি সময় ধরে নিউ ইয়র্ক ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির বাহরাইন ক্যাম্পাসে ফাইন আর্টস বিভাগে শিক্ষা প্রদান করতেন।[২] তার সমস্যাভিত্তিক এবং প্রজেক্ট ভিত্তিক শিক্ষার ধরণ তাকে বাহরাইনের পপুলার বিভাগের সদস্য হতে সাহায্য করেছিল। জীশান জাওয়েদ বাহরাইনের শিক্ষার্থীদের চলচ্চিত্র প্রজেক্টের অগ্রদূত হিসেবেও কাজ করেছেন এবং বাহরাইনের শিক্ষার্থীদের চলচ্চিত্র পরিকল্পনাকারী হিসেবে বাণিজ্যিক বৈশিষ্ট্য-দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্রগুলোর জন্য প্রথম বা একক হিসাবেও ভূষিত হয়েছেন।

জীশান সৌদি আরবে জন্মগ্রহণ করেন এবং ২০০৬ সালে নিউ ইয়র্ক ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি বাহরাইন ক্যাম্পাসের জন্য বাহরাইনে চলে আসেন। সেখানে তিনি প্রাথমিকভাবে ওয়েব ডিজাইন, থ্রিডি মডেলিং ও অ্যানিমেশন, কম্পিউটার গ্রাফিক্স এবং অ্যানিমেশন কোর্স শুরু করেন এবং এরপর তিনি অঙ্কন ইতিহাস, অঙ্কন এবং ফটোগ্রাফিকে তার শিক্ষা প্রদানের প্রথম তালিকায় রাখেন। ধীরে ধীরে তিনি বাহরাইনের প্রজেক্ট-ভিত্তিক শিক্ষণ শিক্ষার উপর ভিত্তি করে এনওয়াইআইটি ছাত্রদের সাথে চলচ্চিত্র প্রকল্পে কাজ করা শুরু করেন, অতঃপর তিনি বাহরাইনে তিনটি বাণিজ্যিক চলচ্চিত্র মুক্তি দেন এবং বর্তমানে তিনি আন্তর্জাতিক পূর্ণাঙ্গ বাহরাইনের কমেডি চলচ্চিত্রের ওপর কাজ করছেন। পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ছাড়াও তিনি ২০১৩ সালের ৫ মে তারিখে বাহরাইনের ইউনিভার্সিটি কলেজ অফ বাহরাইনের শিক্ষার্থীদের জন্য ভিডিও প্রোজেক্টের প্রদর্শনী করেন।[৩] অতঃপর ২০১৪ সালে তিনি বাহরাইনের প্রথম মাল্টিমিডিয়া প্রদর্শনী প্রদর্শন করেন।[৪]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

জীশান জাওয়েদ শাহ স্নাতকোত্তর ডিগ্রি প্রোগ্রাম শেষ করার পর ২০০৩ সালে তার জন্মস্থান সৌদি আরবে চলে এসেছিলেন, যেখানে তার বাবা তখনো সিমেন্সে কাজ করছিলেন। সৌদি আরবে এসে জীশান একটি স্থানীয় সৌদি কোম্পানিতে যোগদান করেন, যেখানে তিনি একটি হাউজ গ্রাফিক ডিজাইনার হিসাবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। এর প্রায় দুই বছর পরে, জীশান রিয়াদে স্থানান্তরিত হয়ে যান এবং সেখানে শুধুমাত্র ছয় মাসের জন্য একটি ইভেন্ট সংগঠন কোম্পানীতে কাজ করেন। ২০০৬ সালে জীশান বাহরাইনে এসে নিউইয়র্ক ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির বাহরাইন ক্যাম্পাসে যোগ দেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষে তিনি মৌলিক ত্রিমাত্রিক নকশা কোর্স, ত্রিমাত্রিক অ্যানিমেশন কোর্স, ওয়েব ডিজাইন কোর্স এবং মোশন গ্রাফিক্স কোর্স তার ছাত্রদের শেখান এবং ২০০৯ সালে জীশান নিউ ইয়র্কের প্রধান কার্যালয়ের অনুমোদনের সাথে একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ কোর্স চালু করেন। ইতিহাস শিক্ষা প্রদান করার সময়, জীশান অনেক স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক আর্টস প্রদর্শনীতে অংশ নেন, তিনি ২০১২ এবং ২০১৩ সালে আল আলি মলের আর্ট প্রদর্শনী,[৫][৬][৭] #ইউনাইটবিএইচ[৭] এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফিনিক্স মিউজিয়ামে অংশগ্রহণ করেন।[৮][৯] একই সাথে ২০১১ সালে তিনি সৌদি আরামকোতে ফটোগ্রাফি এবং চলচ্চিত্র নির্মাণ কারখানা পরিচালনা করেন।[১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "UCB's Faculty Page"। UCB। ২৪ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৩ 
  2. "NYIT's Faculty Page"। NYIT। ১৩ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৩ 
  3. "UCB Multimedia Showcase 2013"। University College of Bahrain। ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০১৩ 
  4. "Venting Creativity 2014"। Bahrain Daily Tribune। সংগ্রহের তারিখ ১৩ এপ্রিল ২০১৪ 
  5. "Bringing art alive..." (PDF)Gulf Daily News। ৩ মার্চ ২০১২। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৭ 
  6. "Bringing art alive..."Gulf Daily News। ৩ মার্চ ২০১২। ৩ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৭ 
  7. "Artists join unity drive"Gulf Daily News। ৬ এপ্রিল ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১১ 
  8. "Phoenix Design Museum"। menagerie creative। ২০ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ নভেম্বর ২০১১ 
  9. "Phoenix Design Museum"। Phoenix Design Museum। ৬ নভেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ নভেম্বর ২০১১ 
  10. "ختام ورشة العمل لمعالجة الصور .. في معرض أرامكو الثاني"। 3dasaa.com। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১১ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]