জাভাদেশীয় গণ্ডার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
জাভাদেশীয় গণ্ডার
Sunda rhinoceros or Javan rhinoceros[১]
Rhinoceros sondaicus in London Zoo.jpg
R. s. sondaicus in the London Zoo from March 1874 until January 1885
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: Mammalia
বর্গ: Perissodactyla
পরিবার: Rhinocerotidae
গণ: Rhinoceros
প্রজাতি: R. sondaicus
দ্বিপদী নাম
Rhinoceros sondaicus
Desmarest, 1822[৩]
Subspecies
  • Rhinoceros sondaicus annamiticus
  • Rhinoceros sondaicus inermis
  • Rhinoceros sondaicus sondaicus
Javan Rhino Range.svg
Sunda rhinoceros range[৪]

জাভাদেশীয় গণ্ডার (ইংরেজি: Sunda rhinoceros) (বৈজ্ঞানিক নাম: Rhinoceros sondaicus), অথবা ক্ষুদ্রতর এক শৃঙ্গযুক্ত গণ্ডার অথবা সুন্দা গণ্ডার গণ্ডার পরিবারের অন্তর্ভুক্ত একটি স্তন্যপায়ী প্রাণী।

বিস্তৃতি ও আবাসস্থল[সম্পাদনা]

Java's Ujung Kulon National Park is the home of all remaining Sunda rhinos.

এমনকি সবচেয়ে আশাবাদী সংখ্যা বলে যে ১০০-এর কম জাভাদেশীয় গণ্ডার বন্য অবস্থায় টিকে আছে। এই প্রজাতিকে পৃথিবীর সবচেয়ে মহাবিপন্ন প্রজাতি হিসেবে বিবেচনা করা হয়।[৫] জাভাদেশীয় গণ্ডার একটি জায়গাতেই বেঁচে আছে আর সেটি হচ্ছে জাভার পশ্চিমে অবস্থিত উজুং কুলন জাতীয় উদ্যানে[৬][৭]

জাভাদেশীয় গণ্ডার বন্য অবস্থায় ৩০-৪৫ বছর বাঁচতে পারে। এটি ঐতিহাসিকভাবে অতিবৃষ্টি অরণ্য, ভেজা তৃণভূমি, এবং বিশাল বন্যাপ্রবণ এলাকার সমভূমিতে বাস করে। জাভাদেশীয় গণ্ডার সাধারণত মানুষ এড়িয়ে চলে, কিন্তু ভয় পেলে মানুষকে আক্রমণ করে। বিজ্ঞানী ও সংরক্ষণবাদীরা এদের দুর্লভতার কারণে খুব কমই এই প্রাণী সম্পর্কে গবেষণা করতে পারেন। গবেষকগণ এঁদের আচরণ এবং আকার গবেষণার জন্য ক্যামেরা ফাঁদের উপর নির্ভর করেন।[৮] ২০১২ সালের এপ্রিলে, জাতীয় উদ্যানসমূহের কর্তৃপক্ষ একটি ভিডিও প্রদর্শন করে যাতে ৩৫টি জাভাদেশীয় গণ্ডারকে মাতা-সন্তানসহ দেখা যায়।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Grubb, P. (২০০৫)। "Order Perissodactyla"। in Wilson, D. E.; Reeder, D. M। Mammal Species of the World (3rd সংস্করণ)। Johns Hopkins University Press। পৃ: ৬৩৬। আইএসবিএন 978-0-8018-8221-0ওসিএলসি 62265494 
  2. van Strien, N.J., Steinmetz, R., Manullang, B., Sectionov, Han, K.H., Isnan, W., Rookmaaker, K., Sumardja, E., Khan, M.K.M. & Ellis, S. (2008). Rhinoceros sondaicus. 2008 IUCN Red List of Threatened Species. IUCN 2008. Retrieved on 28 November 2008.
  3. Rookmaaker, L.C. (১৯৮২)। "The type locality of the Javan Rhinoceros (Rhinoceros sondaicus Desmarest, 1822)"Zeitschrift fur Saugetierkunde 47 (6): 381–382। 
  4. Map derived from range map in Foose and Van Strien (1997). This map does not include the possible population in Borneo described by Cranbook and Piper (2007). }}
  5. "Top 10 most endangered species in the world"Daily Telegraph। ৪ জানুয়ারি ২০১০। সংগৃহীত ১৯ মার্চ ২০১২ 
  6. Fernando, Prithiviraj; Gert Polet; Nazir Foead; Linda S. Ng; Jennifer Pastorini; Don J. Melnick (জুন ২০০৬)। "Genetic diversity, phylogeny and conservation of the Javan rhinoceros (Rhinoceros sondaicus)"। Conservation Genetics 7 (3): 439–448। ডিওআই:10.1007/s10592-006-9139-4 
  7. Derr, Mark (জুলাই ১১, ২০০৬)। "Racing to Know the Rarest of Rhinos, Before It's Too Late"The New York Times। সংগৃহীত ২০০৭-১০-১৪ 
  8. WWF – Critically Endangered Javan Rhinos and Calves Captured on Video. wwf.panda.org. Retrieved on 24 February 2012.
  9. New video documents nearly all the world's remaining Javan rhinos. Mongabay.com. Retrieved on 2012-05-01.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]