জন কিউস্যাক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(জন কুস্যাক থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জন কিউস্যাক
John Cusack Cannes 2014.jpg
২০১৪ সালে কান চলচ্চিত্র উৎসবে কিউস্যাক
জন্ম
জন পল কিউস্যাক

(1966-06-28) ২৮ জুন ১৯৬৬ (বয়স ৫৩)
পেশাঅভিনেতা, প্রযোজক, চিত্রনাট্যকার
কার্যকাল১৯৮৩-বর্তমান
পিতা-মাতাডিক কিউস্যাক (পিতা)
ন্যান্সি কিউস্যাক (মাতা)
আত্মীয়অ্যান কিউস্যাক (বোন)
জোন কিউস্যাক (বোন)

জন পল কিউস্যাক (ইংরেজি: John Paul Cusack; জন্ম: ২৮ জুন ১৯৬৬) হচ্ছেন একজন মার্কিন চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক এবং চিত্রনাট্যকার। তিনি সে এনিথিং... চলচ্চিত্রের জন্য ১৯৯০ সালে মোস্ট প্রমিজিং অ্যাক্টর পুরস্কার জয় করেছিলেন। এছাড়া ১৯৯৮ সালে তিনি কন এয়ার-এ অভিনয়ের জন্য সেরা পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে ব্লকবাস্টার এন্টারটেইনমেন্ট পুরস্কার, এবং কমিটমেন্ট টু শিকাগো পুরস্কার লাভ করেছেন। কিউস্যাকের অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসমূহ হল বেটার অফ ডেড (১৯৮৫), গ্রস পয়েন্ট ব্ল্যাংক (১৯৯৭), বিয়িং জন মালকভিচ (১৯৯৯), হাই ফিডেলিটি (২০০০), ফোরটিন হান্ড্রেড এইট (২০০৭), টুয়েন্টি টুয়েলভ (২০০৯), দ্য রেভেন (২০১২)।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

কিউস্যাকের জন্ম ইলিনয়ের এক আইরিশ মার্কিন ক্যাথলিক পরিবারে।[১][২] তাঁর বাবা ডিক কুস্যাক (১৯২৫-২০০৩), এবং বোন অ্যান, জোয়ান, সুসি, এবং ভাই বিল নিজেরাও অভিনয়শিল্পী। অভিনয়ের পাশাপাশি তাঁর বাবা তথ্যচিত্রও নির্মাণ করতেন,[৩] এবং তাঁর মালিকানাধীন একটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ছিলো।[৪] কুস্যাকের মা ন্যান্সি, ছিলেন একজন গণিতের শিক্ষক এবং রাজনৈতিক কর্মী। কিউস্যাক কিছুদিন নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনাও করেছেন।[৫]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

জন কিউস্যাক, মে ২০০৬।

স্পাইক জোন্সের কল্পনাধর্মী বিয়িং জন মালকভিচ (১৯৯৯) চলচ্চিত্রে কিউস্যাক পুতুল নাচ অধিকারী চরিত্রে অভিনয় করেন, যিনি নাম ভূমিকার অভিনেতা জন মালকভিচকে তার মনে ধারণ করেন। চলচ্চিত্রটি তিনটি বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করে, সেগুলো হল শ্রেষ্ঠ পরিচালনা (স্পাইক জোন্স), শ্রেষ্ঠ মৌলিক চিত্রনাট্য (চার্লি কফম্যান) ও শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী (ক্যাথরিন কিনার)। পরের বছর তিনি নিক হর্নবির উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত হাই ফিডেলিটি (২০০০) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ সঙ্গীতধর্মী বা হাস্যরসাত্মক চলচ্চিত্র অভিনেতা বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।[৬] রোল্যান্ড এমেরিখের বিপর্যয়ধর্মী টুয়েন্টি টুয়েলভ (২০০৯) চলচ্চিত্রে তিনি একজন সংগ্রামী ঔপন্যাসিকের চরিত্রে অভিনয় করেন,[৭] যিনি বিপর্যয় থেকে নিজেকে ও মানবজাতিকে বাঁচাতে চেষ্টা করেন। কিউস্যাক এডগার অ্যালান পো'র গল্প অবলম্বনে জেমস ম্যাকটেগুর জীবনীমূলক দ্য রেভেন (২০১২) এবং ডেভিড ক্রোনেনবার্গের ম্যাপস টু দ্য স্টার্স (২০১৪) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. John Cusack interview
  2. John Cusack Interview-Max Movie
  3. "Being John Cusack." guardian.co.uk. 1 July 2000.
  4. John Cusack Biography (1966-). FilmReference.com.
  5. "Actor John Cusack." NPR.org.
  6. "Winners & Nominees 2001"গোল্ডেন গ্লোব (ইংরেজি ভাষায়)। হলিউড ফরেন প্রেস অ্যাসোসিয়েশন। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৯ 
  7. সিমন্স, লেসলি (১৯ মে ২০০৮)। "John Cusack ponders disaster flick"দ্য হলিউড রিপোর্টার। মে ২৫, ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৯ 
  8. "Julianne Moore, John Cusack, Sarah Gadon Join Robert Pattinson and in Maps to the Stars"কামিং সুন (ইংরেজি ভাষায়)। ১৮ এপ্রিল ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]