চামেরী ভবন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

চামেরী ভবন (চামেরী হাউস, চামেলী ভবন[১], চামেলি হাউজ ইত্যাদি নামেও পরিচিত) ঢাকায় অবস্থিত একটি ঐতিহাসিক ঔপনিবেশিক ভবন। বর্তমানে ভবনটি এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সমন্বিত পল্লী উন্নয়ন কেন্দ্র-এর সদরদপ্তর হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।[২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

চামেরী ভবন ১৯২০ সালে ব্রিটিশ রাজের সময় নির্মিত হয়। ভবনটি হাইকোর্ট ভবনের উল্টাদিকে অবস্থিত। ভবনটি সেই সময়ে ঢাকায় কর্মরত ইংরেজ অবিবাহিত কর্মকর্তাদের জন্য আবাসস্থল হিসেবে নির্মিত হয়েছিল। পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হলে, রমনা এলাকার সব ভবন বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তখন এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলো অধ্যাপকদের বাসস্থান হিসেবে ব্যবহৃত হয়। ১৯২৯ সালে মুসলিম হলের কয়েকজন আবাসিক ছাত্রকে বাংলোটি বরাদ্ধ দেয়া হয়।[১] ১৯৩৮ সালে এটিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের হল হিসাবে নির্ধারণ করা হয়, ১৯৫৭ সালে রোকেয়া হল নির্মাণের আগ পর্যন্ত এটি ছাত্রী নিবাস ছিল।[১] এরপর ভবনটি সরকারের তত্বাবধানে চলে যায়। পাকিস্তান আমল ও বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর কিছুসময় এটি বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশনের সদরদপ্তর হিসেবে ব্যবহৃত হয়। ১৯৮৫ সালে ভবনটি এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সমন্বিত পল্লী উন্নয়ন কেন্দ্র-এর কাছে হস্তান্তর করা হয় এবং তখন থেকে ভবনটি “সিরডাপ ভবন” হিসেবে পরিচিত হয়ে আসছে।[৩][৪][৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. মুহাম্মদ নূরে আলম (১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯)। "অবগুণ্ঠনের আড়ালে চামেলি হাউজ"দৈনিক সংগ্রাম। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০১৯ 
  2. "Plundering of heritage"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০০৮-০৭-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-০৮ 
  3. সাদাত উল্লাহ খান (২০১২)। "চামেরী ভবন"ইসলাম, সিরাজুল; মিয়া, সাজাহান; খানম, মাহফুজা; আহমেদ, সাব্বীর। বাংলাপিডিয়া: বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্বকোষ (২য় সংস্করণ)। ঢাকা, বাংলাদেশ: বাংলাপিডিয়া ট্রাস্ট, বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটিআইএসবিএন 9843205901ওএল 30677644Mওসিএলসি 883871743 
  4. "A scar on the charming Chummery House"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০০৮-০৪-২৮। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-০৮ 
  5. "An Architect's Dhaka"archive.thedailystar.net। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-০৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]