চন্দ্রমহল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চন্দ্রমহল
অবস্থানরনজিতপুর, বাগেরহাট
পরিচালিতসৈয়দ আমানুল হুদা সেলিম

চন্দ্রমহল বাংলাদেশের বাগেরহাট সদর উপজেলার একটি ইকো পার্ক।[১] এটি একটি বিনোদন পার্ক হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

রনজিতপুর গ্রামে সৈয়দ আমানুল হুদা ৩৫ একর জমির ওপর গড়ে তুলছেন চন্দ্রমহল নামে একটি নয়নাভিরাম ইকো পার্ক। সৈয়দ আমানুল হুদা চন্দ্রমহল'র নির্মাণকাজ শুরু করেন (২০০১)। তিনি ছিলেন নৌ বাহিনীর একজন কর্মকর্তা এবং তাঁর স্ত্রী চন্দ্রের নামে ভবনটির নামকরণ করেন ‘চন্দ্রমহল ইকোপার্ক'। এটি দর্শনার্থীর জন্য উন্মুক্ত করা হয় (২০০৯)। বর্তমানে এটি পিকনিক স্পট হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।[২]

দর্শনীয়[সম্পাদনা]

মূল ভবন ছাড়াও পুরো এলাকাটি ফুল দিয়ে চমৎকারভাবে সাজানো। এছাড়া ভাস্কর্যের মাধ্যমে দেশীয় সংস্কৃতিকে তুলে ধরা হয়েছে। এখানে বেশ কয়েকটি পুকুর এবং একটি মিনি চিড়িয়াখানা রয়েছে। ভবনটির অভ্যন্তরে তার সংগ্রহীত বিভিন্ন জিনিসপত্র প্রদর্শিত করা হয়েছে।এখানে গ্রাম্য মানুষের চরিত্র নিয়ে প্রতিকৃতি তৈরি করা হয়েছে। ইকো পার্কের ভিতরে বিভিন্ন প্রজাতীর পশু পাখি রয়েছে। আদি আসবাবপত্র আর তৈজশপত্র ছাড়া কিছু স্থির ছবি রয়েছে এখানে। লেকের পাড়ে রয়েছে নারিকেল গাছের সারি। হরিণ, কুমির, বানর ও পাখিসহ বিভিন্ন জীবজন্তুর প্রতিকৃতি ও ভাস্কর্য সহ বিলুপ্ত হওয়া রূপসা-বাগেরহাট রেল লাইনের প্রতিকৃতিও রয়েছে। গ্রাম পঞ্চায়েত ও মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য। মাস্টারদা সূর্য সেন, বেগম রোকেয়া, আতাউল গনি ওসমানী, মাদার তেরেসা, মহাত্মা গান্ধীর ভাস্কর্যও দেখা যায়।[৩]

কারুকার্য[সম্পাদনা]

মহলটি লেকের মাঝখানে অবস্থিত। মহলের চারিপার্শ্বে স্বচ্ছ পানির লেক। পানির নিচে গ্লাস দ্বারা বেষ্টনি করা সুড়ঙ্গ পথ দিয়ে মহলে প্রবেশ করতে হয়। এর দুই পার্শ্বের স্বচ্ছ পানির মাছ গুলো দর্শনার্থীদের মুগ্ধ করে। মহল জুড়ে রয়েছে নানা স্থাপত্যশৈলী। এছাড়া আদি ব্যবহৃত জিনিসপত্র, ডাকটিকেট, মুদ্রা, ঝাড়বাতি, তলোয়ারসহ আকর্ষণীয় অনেক কিছু।চন্দ্রমহলসংলগ্ন পুকুরে রয়েছে ময়ূরপঙ্খী নৌকার ওপর ভাসমান মঞ্চ। বের হওয়ার জন্য বাঁশের পুল রয়েছে যা রং দিয়ে কারুকার্য করা। এখানেও দেখা মিলে হাজারো মাছের খেলা।[৪]

বর্তমান অবস্থা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "চন্দ্রমহল"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ২০১৭-০১-২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১৩ 
  2. "স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে বাগেরহাটে চন্দ্রমহল"SAtv। House 47, Road 116, Gulshan-1, Dhaka-1212। ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১৩ 
  3. "ঘুরে আসুন চন্দ্রমহল ইকো পার্ক"Latest Bd News। ১/এ, মালিবাগ, ঢাকা। অক্টোবর ১৬, ২০১৬। ২০১৭-০৫-০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১৩ 
  4. "সুন্দরের রাজ্য 'চন্দ্রমহল'"সমকাল। ১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা ঢাকা - ১২০৮। ২৯ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১৩