গুপ্তেশ্বর দেবালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গুপ্তেশ্বর দেবালয়
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিহিন্দুধর্ম
জেলাশোণিতপুর
অবস্থান
দেশভারত
স্থাপত্য
ধরনআহোম স্থাপত্য

গুপ্তেশ্বর দেবালয় বা গুপ্তেশ্বর মন্দির (অসমীয়া: গুপ্তেশ্বর দেৱালয়) হল অসমর শোণিতপুর জিলার পশ্চিম প্রান্তে ঢেকীয়াজুলি শহরে অবস্থিত হিন্দু ধর্মএর এক দেবালয়। এই দেবালয় শিঙরী মন্দির হিসাবেও জানা যায়, কালিকা পুরাণএ শৃংগটক নামেরে এর উল্লেখ আছে[১]তেজপুর শহর থেকে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার আর ঢেকীয়াজুলি শহর থেকে প্রায় ১১ কিলোমিটার ভিতরে ব্রহ্মপুত্র নদীর পারে শিঙরী পাহাড়ের পাদদেশে এই দেবালয় অবস্থিত। লোকপ্রবাদ অনুসারে, এই মন্দিরটি স্বয়ং বিশ্বকর্মা দেবতা নির্মাণ করেছিলেন, এবং রেপরে আহোম স্বর্গদেউ ইহা সম্প্রসারিত করেন[২]

গঠন[সম্পাদনা]

গুপ্তেশ্বর দেবালয়ের শিখরে একটি পিতলের কলসি, একটি মুখ্য তোরণ আছে। দেবালয়ের চারপাশ প্রাচীন কালের ইট দ্বারা নির্মিত[২]

ইতিহাস এবং প্রবাদ[সম্পাদনা]

গুপ্তেশ্বর দেবালয়ের নামকরণ সংক্রান্ত একটা লোকশ্রুতি অনুসারে দ্বাপর যুগএ শোণিতপুরের রাজা বাণাসুর কাশীধামে গিয়ে শিবএর আরাধনা করেছিলেন। তিনি কাশী থেকে এসে নিজ রাজ্যের ভিতরে দ্বিতীয় একখানি কাশীধাম স্থাপন করার মনস্থ করে এখনকার লুহিতের পারে বিশ্বনাথ ঘাটএ নির্মাণ কার্য আরম্ভ করেন। বানাসুরের এই বৃহৎ কাশীধাম নির্মাণের কথা জানতে পেরে স্বর্গের দেবতাগণ বিস্মিত হ’ল এবং এই পরিকল্পনা বিফল করবার জন্য বাণরাজার আনা একটা শিবলিংগ চুরি করি এনে শিঙরীর পাহাড়ের গুহাতে লুকিয়ে রাখে। শিবকে এইভাবে গুপ্ত করে রাখার জন্যই এই মন্দির গুপ্তেশ্বর নামে পরিচিত হয়[২]

তথ্য সংগ্রহ[সম্পাদনা]

  1. http://www.india9.com/i9show/Singri-Temple-20079.htm india9.com, Singri Temple, আহরণ করা তারিখ : ২৮-১০-২০১২
  2. ঐতিহাসিক গুপ্তেশ্বর দেবালয়র কথা, লিখক: ললিত কুমার গগৈ, পৃষ্ঠা নং : ৬ (সম্পাদকীয় পৃষ্ঠা), অসমীয়া প্রতিদিন, প্রকাশ: ২৭ অক্টোবর, ২০১২, শণিবার

বাহ্যিক সংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:অসমের হিন্দু মন্দির