কেভিন পলসন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
কেভিন পলসন
Lamo-Mitnick-Poulsen.png
কেভিন লি পলসন (ডানে), আর্দ্রিয়ান ল্যামো (বামে) এবং কেভিন মিটনিক (মাঝে), ছবি ২০০১
জন্ম ১৯৬৫
পাসাদেনা, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
জাতীয়তা আমেরিকান
অন্য নাম ডর্ক ডেন্টি
পেশা সিনিয়র এডিটর,
ওয়্যারড ডটকম
যে জন্য পরিচিত হ্যাকিং
ওয়েবসাইট www.kevinpoulsen.com

কেভিন লি পলসন (জন্ম: ১৯৬৫, পাসাদেনা, ক্যালিফোর্নিয়া) একজন সাবেক আমেরিকান ব্ল্যাক হ্যাট হ্যাকার যিনি বর্তমানে বিখ্যাত প্রযুক্তি ম্যাগাজিন ওয়্যারড ডটকমের সম্পাদক।[১]

জীবনী[সম্পাদনা]

কেভিন পালসেন মাত্র ১৫ মিনিটের একটি হ্যাকিং এর জন্য আজ বিখ্যাত হয়ে আছেন। তার হ্যাকিং এর ঘটনাটাও অত্যন্ত মজার। লস আঞ্জেলেস এর কেটুএস-এফএম (KIIS-FM) নামের একটি রেডিও স্টেশনের সবগুলো (৮০০) টেলিফোন লাইন হ্যাক করার মাধ্যমে তিনি ১০২ তম কলার হয়ে ঘোষিত ‘পোর্শে-৯৪৪ এসটু’ মডেলের একটি গাড়ি সহ আরো অনেক পুরস্কার নিজের করে নেন।[২][৩] এরপর হ্যাক করেন এফবিআই-এর ডাটাবেজ।

১৯৯১ সালে তিনি এফবিআই এর হাতে গ্রেফতার হন। ৫১ মাস জেল ও ৫৬০০০ ডলার জরিমানা দিয়ে সে জেল থেকে মুক্তি পায়। এর পর অবশ্য তার জীবন অনেকাংশে পরিবর্তন হয়ে যায়। জেল থেকে বের হবার পর সে তার মেধা কে কিছু ভালো কাজে লাগিয়ে বেশ সুনাম অর্জন করেন। পরবর্তী সময়ে সে বিভিন্ন সাইটে বিভিন্ন অপরাধ মুলক কর্মকান্ড শনাক্ত করেন এবং তাকে দিয়ে ইন্টারনেটে বিভিন্ন অপরাধী কেও শনাক্ত করা হয়।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • ২০১১ : ওয়েবলি পুরস্কার (ইন্টারন্যাশনাল একাডেমী ডিজিটাল আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস), থ্রেট শ্রেনীর জন্য আইন বিভাগ।[৪]
  • ২০১১ : ওয়েবলি পুরস্কার (ইন্টারন্যাশনাল একাডেমী ডিজিটাল আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস), পিপলস ভয়েস পুরস্কার, থ্রেট শ্রেনীর জন্য আইন বিভাগ।[৪]
  • ২০১০ : সানস শীর্ষ সাইবার নিরাপত্তা সাংবাদিক (সানস ইনস্টিটিউট)।[৫]
  • ২০১০ : মিন বেষ্ট অফ দ্য ওয়েব (ম্যাগাজিন শিল্প নিউজ লেটার), শ্রেষ্ঠ ব্লগ, থ্রেট শ্রেনীর জন্য।[৬][৭]
  • ২০০৯ : মিন ডিজিটাল ফেম হল (ম্যাগাজিন শিল্প নিউজ লেটার)।[৮]
  • ২০০৮ : ইনোভেশনের জন্য নাইট-বাটেন সাংবাদিকতা গ্র্যান্ড পুরস্কার (জে-ল্যাব)।[৯][১০]

বই[সম্পাদনা]

  • Poulsen, Kevin (২০১১)। Kingpin: How One Hacker Took Over the Billion-Dollar Cybercrime Underground। Crown। আইএসবিএন 978-0-307-58868-5 
  • Poulsen, Kevin (২০১১)। Kingpin: The True Story Of Max Butler, The Master Hacker Who Ran A Billion Dollar Cyber Crime Network। Hachette (Australia)। আইএসবিএন 978-0-7336-2771-2 
  • Pendulous, Kevin (২০১১)। Kingpin (book),Haker: Prawdziwa historia szefa cybermafii। Znak (Poland)। আইএসবিএন 978-83-240-1659-4 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

তথ্যসুত্র[সম্পাদনা]

  1. Richard GisselDigital Underworld (August 23, 2005 সংস্করণ)। Lulu.com। পৃষ্ঠা 222। আইএসবিএন 1-4116-4423-9  Kevin Lee Poulsen was born in Passadena, California in 1965. It was claimed that when he was 17 he used his radio shack TRS-80 to attack Arpanet, the predecessor of the Internet.
  2. "Kevin Poulsen"। livinginternet। ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-১৪ 
  3. "A Crime By Any Other Name..."। FREEDOM Magazine। VOL 27 Issue 4। সংগ্রহের তারিখ 2013-03-14  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  4. "Webby Nominees"। Webbyawards.com। ২০১১-১০-২৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-১৪ 
  5. "2010 Top Cyber Security Journalist Award Winners"। SANS। ২০০৯-০৭-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৩-১৪ 
  6. "minonline.com"। minonline.com। 
  7. "min's 2010 Best of the Web Awards"। MinOnline। 
  8. "Digital Hall of Fame: Kevin Poulsen, Senior Editor, Wired.com"। MinOnline। ২০১১-১২-০৮। 
  9. "j-lab.org"। j-lab.org। ২০১১-০৭-২০। 
  10. "Knight-Batten 2008 Winners » Projects » J-Lab"। J-lab.org। ২০১১-০৭-২০।