কুয়েত এয়ারওয়েজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

কুয়েত এয়ারওয়েজ (আরবি:الخطوط الجوية الكويتية ‎‎, আল-খুতওয়াত আল-জাওইয়া আল-কুয়েতিয়াহ) হচ্ছে কুয়েতের জাতীয় বিমান সংস্থা৷[১] বিমান সংস্থাটির প্রধান কার্যালয় আল ফারয়ানিয়াহ গভমোরেট এর কুয়েত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবস্থিত৷ কুয়েত এয়ারওয়েজ এর প্রধান কেন্দ্র কুয়েত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হতে মধ্যপ্রাচ্য, ভারতীয় উপমহাদেশ, ইউরোপ, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া এবং দক্ষিণ আমেরিকায় এর বিমানসমূহ পরিচালনা করে থাকে৷ কুয়েত এয়ারওয়েজ আরব এয়ার ক্যারিয়ার্স অর্গানাইজেশন এর একজন সদস্য৷

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বিমান সংস্থাটির যাত্রা শুরু হয় ১৯৫৩ সালে,[এনবি১] যখন কুয়েতের কিছু ব্যবসায়ী মহলের উদ্যোগে কুয়েত ন্যাশনাল এয়ারওয়েজ প্রতিষ্ঠা লাভ করে৷ প্রাথমিকভাবে কুয়েত সরকার এতে ৫০ শতাংশ মূলধন বিনিয়োগ করে৷[২] ২১১[৩] ঐ বছরই বিমান সংস্থাটি ব্রিটিশ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স(বিআইএ)[৪] এর সাথে পাঁচ বছরের একটি ম্যানেজমেন্ট চুক্তি সম্পাদিত করে৷ এ সময় ব্রিটিশ ওভারসিজ এয়ারওয়েজ কর্পোরেশন এর একটি সাবসিডিয়ারি ঐ অঞ্চলে চার্টার ফ্লাইট এবং মেইনটেন্যান্স সার্ভিস পরিচালনা করত৷[৩][৫] সে সময়ে দুটি ডাকোটা ক্রয় করা হয়[২] ২১১ এবং ১৯৫৪ সালের ১৬ মার্চ হতে নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা শুরু হয়৷[২][৫] প্রথম বছরে বিমান সংস্থাটি ৮,৯৬৬ জন যাত্রী পরিবহন করে৷[৬] ১৯৫৫ সালের জুলাই মাসে সংস্থাটির নাম কুয়েত এয়ারওয়েজ হিসাবে পরিবর্তিত হয়৷[৭][এনবি ২] ১৯৫৮ সালের মে মাসে [৮] কুয়েত এয়ারওয়েজ এর সাথে ব্রিটিশ ওভারসিজ এয়ারওয়েজ এর সাথে সরাসরি অপর আরেকটি চুক্তি সম্পাদিত হয়৷১৯৫৯ সালের এপ্রিল মাস হতে বিআইএ এর ফ্লাইট কার্যক্রমসমূহ কুয়েত এয়ারওয়েজ দ্বারা অধিগৃহীত হয়৷[৮][এনবি ৩] ১৯৬২ সালের ৮ আগস্ট[২] ২১০ কুয়েত এয়ারওয়েজ প্রথম বিদেশী ক্রেতা হিসাবে ট্রাইডেন্ট অর্ডার করে৷ এ সময় বিমান সংস্থটির বিমান বহরে দুটি ট্রাইডেন্ট যুক্ত হয় এবং অপর একটি ট্রাইডেন্ট যুক্ত করার পরিকল্পনা করা হয়৷ এক্ষেত্রে আনুষাঙ্গিক খরচ হয় ৫.৫ মিলিয়ন পাউন্ড এবং এ চুক্তিতে একটি কমেট ৪সি এয়ারক্রাফটও যুক্ত ছিলো৷ সংস্থাটি ১৯৬৩ সালের জানুয়ারি মাসে এর প্রথম কমেট এয়ারক্রাফট ডেলিভারি নেয়৷[৯][১০] ১৯৬৩ সালের আগস্ট মাসে অপর একটি কমেট এয়ারক্রাফটের অর্ডার দেয়া হয়৷[১১][১২]

কর্পোরেট বিষয়সমূহ[সম্পাদনা]

মালিকানা[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারী মাসের তথ্য অনুযায়ী কুয়েত এয়ারওয়েজ এর সম্পূর্ণ মালিকানা কুয়েত সরকারের৷[১৩]

বেসরকারিকরণ পরিকল্পনা[সম্পাদনা]

উপসাগরীয় যুদ্ধের পরবর্তী সময়ে ১৯৯০ সালের মাঝামাঝি সময়ে বিমান সংস্থাটিকে বেসরকারীকরণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়৷ যুদ্ধকালীন সময়ে সংস্থাটি আর্থিকভাবে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার কারণেই এ ধরনের উদ্যোগ নেয়া হয়৷[১৪] কোম্পানিটি ২০০৪ সালে একটি কর্পোরেশন হিসাবে রূপান্তরিত হয়৷[১৫]

প্রধান কর্মকর্তাগণ[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের মে মাস অনুযায়ী কাতার এয়ারওয়েজ এর প্রধান নির্বাহী পরিচালক হলেন আব্দুল্লাহ আল খুজাম৷ ঐ একই সালের এপ্রিল মাস পর্যন্ত কোম্পানিটির চেয়ারপার্সন ও প্রধান নির্বাহী পরিচালক হিসাবে নিয়োজিত ছিলেন রাশা আল-রৌওমি৷[১৬][১৭]

প্রধান কার্যালয়[সম্পাদনা]

কুয়েত এয়ারওয়েজ এর প্রধান কার্যালয় আল ফারয়ানিয়াহ গভমোরেট এর কুয়েত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবস্থিত৷ ৪২,০০০ বর্গ মিটার(৪,৫০,০০০ বর্গ ফুট) স্থান জুড়ে নির্মিত এ কার্যালয়টি নির্মান করতে খরচ হয়েছে প্রায় ১৫.৮ মিলিয়ন কুয়েতি দিনার(প্রায় ৫৩.৬ মিলিয়ন ইউএস ডলার)৷

সাবসিডিয়ারি ও অন্যান্য[সম্পাদনা]

কুয়েত এয়ারওয়েজের বেশ কিছু সাবসিডিয়ারি রয়েছে, যেগুলো বেসরকারিকরণের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে৷ এগুলোর মধ্যে রয়েছে-

  • কুয়েত এভিয়েশন সার্ভিসেস কর্পোরেশন(কেএএসসিও)
  • অটোমেটেড সিস্টেমস কর্পোরেশন
  • এএলএএফসিও

গন্তব্যস্থলসমূহ[সম্পাদনা]

২০১৫ সালের জুন মাস অনুযায়ী কুয়েত এয়ারওয়েজ এর বিমানসমূহ কুয়েত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হতে আফ্রিকা, এশিয়া, ইউরোপ এবং উত্তর আমেরিকার ২৪ টি দেশের ৩৮ টি গন্তব্যস্থলে চলাচল করে থাকে৷[১৮]

কোডশেয়ার চুক্তি[সম্পাদনা]

নিচের এয়ারলাইন্সগুলোর সাথে কুয়েত এয়ারওয়েজের কোডশেয়ার চুক্তি বিদ্যমান রয়েছে:[১৯]

  • আলিটালিয়া
  • ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্স
  • ইয়েমেনিয়া

পরিচালিত বিমানসমূহ[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের মে মাস অনুযায়ী কুয়েত এয়ারওয়েজ নিচের বিমানসমূহ পরিচালনা করে থাকে৷[২০] এয়ারবাস এ৩০০-৬০০আর, এয়ারবাস এ৩১০-৩০০, এয়ারবাস এ৩২০-২০০আর, এয়ারবাস এ৩২০নিও, এয়ারবাস এ৩৩০-২০০, এয়ারবাস এ৩৪০-৩০০, এয়ারবাস এ৩৫০-৯০০, বোয়িং ৭৪৭-৪০০, বোয়িং ৭৭৭-২০০ইআর, বোয়িং ৭৭৭-৩০০ইআর৷

উল্লেখ[সম্পাদনা]

  1. "Kuwait Airways implements new ticketing system"। web.archive.org। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  2. "world market Trident (page 203)"। webcitation.org। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  3. "World Airline Directory – Kuwait Airways, Ltd"। Flight। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  4. ""B.O.A.C. in the Middle East""। Flight। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  5. "World airline survey – Kuwait Airways Corporation"। Flight International। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  6. "World airline directory – Kuwait National Airways"। Flight.। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  7. "Civil aviation – Brevities"। Flight. 68 (2426): 138। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  8. "World airline directory – Kuwait Airways"। Flight International। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  9. "Air Commerce"। Flight International. 83 (2812): 153. 31 January 1963। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  10. "Air Commerce"। Flight International. 83 (2810): 73. 17 January 1963.। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  11. "Air commerce"। Flight International. 84 (2841): 275. 22 August 1963.। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  12. "Air commerce—And Another for Kuwait"। Flight International. 84 (2840): 227. 15 August 1963.। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  13. "Kuwait Airways to modify Airbus and Boeing fleets in mid-3Q17"। Arabian Aerospace। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  14. "Kuwait Airways receives final approval for privatisation"। Centre for Aviation। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  15. "Kuwait aviation poised to deliver at last, but Kuwait Airways restructure, airport upgrade essential"। Centre for Aviation. 5 February 2013। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  16. "Kuwait Airways names new CEO"। Air Transport World। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭  Authors list-এ |প্রথমাংশ1= এর |শেষাংশ1= নেই (সাহায্য)
  17. "Kuwait Airways Airlines"। Cleartrip.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  18. "Winter Timetable (Effective 27 October 2013 – 29 March 2013)" (PDF)। (PDF). Kuwait Airways. 7 November 2013। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  19. "Profile on Kuwait Airways"। CAPA. Centre for Aviation.। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ 
  20. "Kuwait Airways fleet"। Airfleets.net. Retrieved 18 May 2017। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭