এল মাহাল্লা এল কুবরা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
এল মাহাল্লা এল কুবরা
المحلة الكبرى
ϯϣⲁⲓⲣⲓ
City
El Mahalla El Kobra gate.JPG
El-Mahalla El-Kubra-art.JPG
Al Mahalah Al Kubra (Part 2), Al Mahalah Al Kubra, Gharbia Governorate, Egypt - panoramio - youssef alam (1).jpg
انعكاسات المياة - نادى الصيد بالمحلة - panoramio.jpg
শীর্ষ থেকে ঘড়ির কাটার দিকে:
এল মাহাল্লা এল কোবরার দ্বার, শহরের প্রবেশদ্বারের ম্যুরাল, মাহাল্লা শিকারী ক্লাব, রাতের পরিদৃশ্য
এল মাহাল্লা এল কুবরা মিশর-এ অবস্থিত
এল মাহাল্লা এল কুবরা
এল মাহাল্লা এল কুবরা
মিশরে অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ৩০°৫৮′০৭″ উত্তর ৩১°০৯′৪৯″ পূর্ব / ৩০.৯৬৮৬১° উত্তর ৩১.১৬৩৬১° পূর্ব / 30.96861; 31.16361স্থানাঙ্ক: ৩০°৫৮′০৭″ উত্তর ৩১°০৯′৪৯″ পূর্ব / ৩০.৯৬৮৬১° উত্তর ৩১.১৬৩৬১° পূর্ব / 30.96861; 31.16361
দেশমিশর
গভর্নরেটঘরবিয়া
নামকরণের কারণমহান মাহাল্লা
উচ্চতা২৬ মিটার (৮৫ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১২)
 • মোট৫,৩৫,২৭৮
সময় অঞ্চলEET (ইউটিসি+2)
এলাকা কোড(+২০) ৪০

এল মাহাল্লা এল কুবরা (আরবি: المحلة الكبرى‎‎, মিশরীয় আরবি: elmæˈħællæ lˈkobɾɑ, টেমপ্লেট:Lang-cop, টেমপ্লেট:IPA-cop) – সাধারণ সংক্ষিপ্ত রূপ- El Maḥalla – হচ্ছে নীল ব-দ্বীপ ও ঘারবিয়া গভর্নরেটের সবচেয়ে বড় শহর। ২০১২ সালে এর জনসংখ্যা ছিল ৫৩৫,২৭৮ জন। এটি মিশরের একটি বৃহৎ শিল্প ও কৃষি শহর। এটি দামিয়েতা শাখা উপনদীর পশ্চিম তীরে নীল বদ্বীপের মাঝখানে অবস্থিত। শহরটি এর বস্ত্র শিল্পের জন্য পরিচিত। এবং এটি মিসর স্পিনিং এন্ড উইভিং কোম্পানির জন্যও পরিচিত, যেটি প্রায় ২৭,০০০ লোক নিয়োগ করে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

রোমান মিশর[সম্পাদনা]

টলেমেটিক ও রোমান মিশিরে এল মাহাল্লা এল কুবরা "থিওডসিউ" (বা "থিওডসিউ নিক্সিস" কপটিক: ⲑⲉⲟⲇⲱⲥⲓⲟⲩ ⲛⲓⲝⲓⲥ, যেখানে ⲛⲓⲝⲓⲥ হচ্ছে সম্ভবত কপটিক ⲛⲓϣϯ এর গ্রিক লিপি হচ্ছে - "মহান") নামে পরিচিত (যা সম্ভবত হিবিস্কাস ক্যানাবিনাস এর উল্লেখ করে)। এদিকে কপটিক নথিতে এটি "ϯϣⲁⲓⲣⲓ" নামে পরিচিত।[১]

মামলুক ইজিপ্ট ও ইজিপ্ট ইয়ালেত[সম্পাদনা]

এল মাহাল্লা এল কুবরা ১৮৩৬ সালে তান্তায় স্থানান্তরিত হওয়ার পূর্বে ১৩২০ সালে ইবনে কালাউন কর্তৃক ঘরবিয়া প্রদেশের রাজধানী হিসেবে মনোনীত হয়।

১৯৫৯ সালে প্রেসিদেন্ট গামাল আব্দেল নাসের শহর ছেড়ে যাওয়ার সময় শহরবাসীকে অভিভাষণ জানাচ্ছেন।

২০০৬ থেকে ২০১১ সালের আন্দোলন[সম্পাদনা]

ডেনমার্কে ইসলামকে নিয়ে উপহাস করা একটি কার্টুন প্রকাশের পর ২০০৬ সালে এল মহল্লায় পুলিশের সাথে ১৫,০০০ এর ও বেশি বিক্ষোভকারী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।[২]

পরবর্তীতে ২০০৬ সালে বস্ত্র শ্রমিকরা উন্নত জীবনযাত্রার দাবিতে বাজার সংস্কারের প্রতিবাদে আন্দোলন করে।[৩]

২০০৮ সালের এপ্রিল মাসে শহরটি প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারকের নির্বাচনের ফলাফলের প্রতিবাদে ব্যাপক বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। তারা নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে বলে দাবী করে এবং আরো ভালো বেতনের দাবী জানায়। নিরাপত্তা বাহিনীকে ভিন্নমতাবলম্বীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আদেশ দেওয়া হয় এবং মে মাসে তারা শহরে দুই বা তিনজনকে হত্যা করে। এবং ডজন খানেক মানুষ এতে আহত হয়।[৪][৫] দ্যা ওয়াশিংটন পোস্ট অনুসারে মুবারকের বিলবোর্ড উল্টে দেওয়া মাহাল্লার বিক্ষোভকারীদের ছবিকে কিছু মিশরীয় মিশরীয় রাজনীতিতে একটি টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে দেখেন। দ্যা অবজার্ভার লিখেছে যে ২০০৬ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত এল মহল্লায় বিক্ষোভ সারা মিশর জুড়ে বৃহত্তর রাজনৈতিক পরিবর্তনের নেতৃত্ব দিয়েছে। এল মহল্লায় ধর্মঘটী বস্ত্র শ্রমিকদের সমর্থনে ২৮ বছর বয়সী প্রকৌশলী আহমেদ মাহের প্রতিষ্ঠিত একটি ফেসবুক গ্রুপ ৭০,০০০ অনুসারী লাভ করে এবং জাতীয়ভাবে ধর্মঘটকারীদের সমর্থন আদায় এবং সংগঠিত করতে সাহায্য করে।[৬]

২০১১ সালে মাহাল্লায় বিক্ষোভ মুবারক একনায়কতন্ত্রের পতনে অবদান রাখে।

২০১২ সালের আন্দোলন ও স্বায়ত্তশাসনের ঘোষণা[সম্পাদনা]

১৫ জুলাই, ২০১২ তারিখে এল মাহালা এল কুবরার মিসর স্পিনিং এন্ড বুনন কোম্পানির ২৫,০০০ কর্মী ধর্মঘট পালন করে। তারা মুনাফা ভাগাভাগি বৃদ্ধি, উন্নত অবসর সুবিধা এবং ব্যবস্থাপনা প্রবর্তনের দাবিতে ধর্মঘট পালন করে। মিসরের কর্মীরা এই অঞ্চলের আরও সাতটি টেক্সটাইল ফ্যাক্টরির শ্রমিকদের সাথে যোগ দেয় এবং মিশরের অন্যান্য অংশে ডাক্তার এবং স্বাস্থ্য কর্মী, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মী এবং সিরামিক কর্মীদের মধ্যে ধর্মঘট শুরু হয়।[৭]

২৮ নভেম্বর তারিখে মুসলিম ব্রাদারহুডের সমর্থক বা বিরোধী বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষে ১০০ জনেরও বেশি লোক আহত হয়।[৮] ৭ ডিসেম্বর তারিখে শহরটি মিশর থেকে নিজেকে স্বায়ত্তশাসিত ঘোষণা করে,[৯] শ্রমিক এবং ছাত্র হিসেবে, তারা "মুসলিম ব্রাদারহুড স্টেট" থেকে নিজেদের স্বাধীন ঘোষণা করে, রেল লাইন কেটে দেয় এবং শহরের প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেয়। বিক্ষোভকারীরা সিটি কাউন্সিলে হামলা চালায় এবং এটিকে একটি বিপ্লবী কাউন্সিল হিসেবে প্রতিস্থাপন করার ইচ্ছা প্রকাশ করে।[৩]

ভূগোল[সম্পাদনা]

জলবায়ু[সম্পাদনা]

কোপেন গেইগার জলবায়ু শ্রেণীকরণ পদ্ধতি এই শহরের জলবায়ুকে উষ্ণ মরু জলবায়ু (বিডাব্লিউএইস) হিসেবে শ্রেণীকরণ করেছে।

El Mahalla El Kubra-এর আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য
মাস জানু ফেব্রু মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টে অক্টো নভে ডিসে বছর
সর্বোচ্চ গড় °সে (°ফা) ১৮.৬
(৬৫.৫)
১৯.৬
(৬৭.৩)
২২.৪
(৭২.৩)
২৬.৪
(৭৯.৫)
৩১.২
(৮৮.২)
৩২.৮
(৯১.০)
৩৩.৫
(৯২.৩)
৩৩.৬
(৯২.৫)
৩১.৮
(৮৯.২)
২৮.৯
(৮৪.০)
২৪.৮
(৭৬.৬)
২০.৪
(৬৮.৭)
২৭.০
(৮০.৬)
দৈনিক গড় °সে (°ফা) ১২.১
(৫৩.৮)
১২.৮
(৫৫.০)
১৫.৩
(৫৯.৫)
১৮.৭
(৬৫.৭)
২২.৮
(৭৩.০)
২৫.২
(৭৭.৪)
২৬.৬
(৭৯.৯)
২৬.৫
(৭৯.৭)
২৪.৭
(৭৬.৫)
২২.২
(৭২.০)
১৮.৯
(৬৬.০)
১৪.২
(৫৭.৬)
২০.০
(৬৮.০)
সর্বনিম্ন গড় °সে (°ফা) ৫.৬
(৪২.১)

(৪৩)
৮.২
(৪৬.৮)
১১
(৫২)
১৪.৫
(৫৮.১)
১৭.৭
(৬৩.৯)
১৯.৭
(৬৭.৫)
১৯.৪
(৬৬.৯)
১৭.৬
(৬৩.৭)
১৫.৬
(৬০.১)
১৩
(৫৫)

(৪৬)
১৩.০
(৫৫.৪)
অধঃক্ষেপণের গড় মিমি (ইঞ্চি) ১৪
(০.৬)
১০
(০.৪)

(০.৩)

(০.২)

(০.১)

(০)

(০)

(০)

(০)

(০.১)

(০.৩)
১২
(০.৫)
৬০
(২.৫)
উৎস: climate-data.org[১০]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

এল মাহাল্লা এল কুবরার বৃহত্তম পাবলিক সেক্টর মিশরীয় বস্ত্র কোম্পানি, মিসর স্পিনিং এন্ড উইভিং কোম্পানি, ২৭,০০০ কর্মী নিয়োগ করেছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "المحلة الكبرى"nfa-eg.org (Arabic ভাষায়)। 
  2. Bilesfky, Dan (১১ ফেব্রুয়ারি ২০০৬)। "Danish Cartoon Editor on Indefinite Leave"। The New York Times 
  3. Stern, Johannes (৮ ডিসেম্বর ২০১২)। "Protests spread throughout Egypt against Islamist dictatorship"World Socialist Web Site। ১১ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১২ 
  4. Knickmeyer, Ellen (১৮ মে ২০০৮)। "Fledgling Rebellion on Facebook Is Struck Down by Force in Egypt"। Washington Post 
  5. Shenker, Jack (২৩ জানুয়ারি ২০১১)। "Egypt's frustrated young wait for their lives to begin, and dream of revolution"। The Observer (England) 
  6. Verma, Sonia (২৭ জানুয়ারি ২০১১)। "How Egypt got here: A brutal beating and a penchant for Facebook has protesters eager to brave the streets"। The Globe and Mail 
  7. Stern, Johannes (১৮ জুলাই ২০১২)। "Egyptian workers mount mass strikes against US-backed junta"World Socialist Web Site। ২৭ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১২ 
  8. "Clashes Spread Beyond Cairo"Washington Post। ২৮ নভেম্বর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১২ 
  9. Bakr, Sara (৭ ডিসেম্বর ২০১২)। "Mahalla announces autonomy"Daily News Egypt। ৯ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১২ 
  10. "Climate: Mahalla al Kubra - Climate graph, Temperature graph, Climate table"। climate-data.org। ২৬ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৩