এভেরসোন ফেলিপে মার্কেস পিরেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
এভেরসোন
16 11 2019 Partida de futebol Santos e São Paulo Everson.jpg
২০১৯ সালে সান্তোসের হয়ে এভেরসোন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম এভেরসোন ফেলিপে মার্কেস পিরেস
জন্ম (1990-07-22) ২২ জুলাই ১৯৯০ (বয়স ৩২)
জন্ম স্থান পিন্দামোনিয়াঙ্গাবা, ব্রাজিল
উচ্চতা ১.৯২ মিটার (৬ ফুট   ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান গোলরক্ষক
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান দল
আতলেতিকো মিনেইরো
জার্সি নম্বর ২২
যুব পর্যায়
ফেরোভিয়ারিয়া
২০০৩–২০১০ সাও পাওলো
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
বছর দল ম্যাচ (গোল)
২০১০ সাও পাওলো (০)
২০১০গুয়ারাতিঙ্গেতা (ধার) (০)
২০১০–২০১৩ গুয়ারাতিঙ্গেতা (০)
২০১৪ রিভের ১৪ (০)
২০১৪–২০১৫ কোনফিয়ান্সা ৩৮ (১)
২০১৫–২০১৮ সেয়ারা ১৬৩ (১)
২০১৯–২০২০ সান্তোস ৪৩ (০)
২০২০– আতলেতিকো মিনেইরো ৮৭ (০)
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে এবং ১৫:২৪, ১৩ জুলাই ২০২২ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সকল তথ্য সঠিক।
‡ জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা ১৫:২৪, ১৩ জুলাই ২০২২ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

এভেরসোন ফেলিপে মার্কেস পিরেস (পর্তুগিজ: Everson; জন্ম: ২২ জুলাই ১৯৯০; এভেরসোন নামে সুপরিচিত) হলেন একজন ব্রাজিলীয় পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়। তিনি বর্তমানে ব্রাজিলীয় ক্লাব আতলেতিকো মিনেইরোর হয়ে গোলরক্ষক হিসেবে খেলেন।

ব্রাজিলীয় ফুটবল ক্লাব ফেরোভিয়ারিয়ার যুব পর্যায়ের হয়ে খেলার মাধ্যমে এভেরসোন ফুটবল জগতে প্রবেশ করেছেন[১] এবং পরবর্তীকালে সাও পাওলোর যুব দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি ফুটবল খেলায় বিকশিত হয়েছেন।[২] ২০১০ সালে, ব্রাজিলীয় ক্লাব সাও পাওলোর মূল দলে সংযুক্ত হওয়ার মাধ্যমে জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ি জীবন শুরু করলেও একই মৌসুমে গুয়ারাতিঙ্গেতার হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি খেলেছেন;[৩] গুয়ারাতিঙ্গেতার হয়ে চার মৌসুমে ৭ ম্যাচে অংশগ্রহণ করার পর ২০১৪ সালে তিনি রিভেরে যোগদান করেছেন।[৪] রিভেরে মাত্র এক মৌসুম অতিবাহিত করার পর কোনফিয়ান্সার সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন, যেখানে তিনি সকল প্রতিযোগিতায় ৪৫ ম্যাচে ১টি গোল করেছেন। পরবর্তীকালে, তিনি সেয়ারা[৫] এবং সান্তোসের হয়ে খেলেছেন।[৬] ২০২০ সালে, তিনি সান্তোস হতে ব্রাজিলীয় ক্লাব আতলেতিকো মিনেইরোতে যোগদান করেছেন।[৭]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

এভেরসোন ফেলিপে মার্কেস পিরেস ১৯৯০ সালের ২২শে জুলাই তারিখে ব্রাজিলের পিন্দামোনিয়াঙ্গাবায় জন্মগ্রহণ করেছেন এবং সেখানেই তার শৈশব অতিবাহিত করেছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Habilidade com os pés, mas nada de faltas: técnicos relembram início do goleiro Everson, do Ceará" [Skill with the feet, but no free kicks: managers remember beginnings of goalkeeper Everson, from Ceará] (পর্তুগিজ ভাষায়)। Globo Esporte। ২০ ডিসেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  2. "Pai goleiro, fã de Ceni e gratidão ao São Paulo: Conheça Everson, paredão do Ceará no Brasileiro" [Father goalkeeper, Ceni's fan and thankfulness to São Paulo: Know Everson, Ceará's wall in the Brasileirão]। Fox Sports (পর্তুগিজ ভাষায়)। ৬ নভেম্বর ২০১৮। ৮ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০১৯ 
  3. "Éverson abre o jogo e conta por que não ficou no São Paulo: "Tinha o sonho de jogar no Morumbi"" [Éverson comes clean and tells why he did not stay at São Paulo: "I had the dream of playing at the Morumbi"] (পর্তুগিজ ভাষায়)। Torcedores। ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  4. "Após 4 temporadas no Guaratinguetá, Everson quer brigar pelo gol do Galo" [After 4 seasons at Guaratinguetá, Everson wants to fight for Galo's goal] (পর্তুগিজ ভাষায়)। Globo Esporte। ২ জানুয়ারি ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  5. "Goleiro Éverson assinou com o Ceará até maio de 2018" [Goalkeeper Éverson signed with Ceará until May 2018] (পর্তুগিজ ভাষায়)। Ceará SC। ৫ আগস্ট ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  6. "É DO PEIXE! Goleiro Everson assina contrato de quatro anos com o Santos FC" [IS OF PEIXE! Goalkeeper Everson signs four-year contract with Santos FC] (পর্তুগিজ ভাষায়)। Santos FC। ২৪ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৯ 
  7. "Everson é anunciado pelo Atlético-MG e assina até 2022; goleiro se torna 17º reforço do clube em 2020" [Everson is announced by Atlético-MG and signs until 2022; the goalkeeper becomes the club's seventeenth signing in 2020] (পর্তুগিজ ভাষায়)। Globo Esporte। ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]