উরুমৈথুন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোণ উরু বের করে আছেন

উরুমৈথুন এক রকমের অভেদক যৌনতা। এই ক্রিয়ায় একজন পুরুষ তার শিশ্নটিকে সঙ্গীর দুই উরুর ফাঁকে প্রবেশ করিয়ে ক্রমাগত ঘর্ষণের মাধ্যমে বীর্যস্খলন করে।[১] এছাড়া উরু চুম্বন এবং লেহন করাটাকেও উরুমৈথুন বলে । একজন পুরুষ নারীর উরু দেখে যৌন উত্তেজনা লাভ করবেন, যেমন ঘাগরা পরিহিত নারীকে দেখে তাদের শিশ্ন উত্থিত হতে পারে, এক্ষেত্রে নারীটি তার সঙ্গে মৈথুনে রাজি হলে উরুমৈথুন করা যেতে পারে।[২]

বিষমকামিতা[সম্পাদনা]

কিশোর বয়সে ছেলেরা নারীদের উরু দেখে উত্তেজিত হয়ে ওখানে হাত বুলাতে চাইবে বা তার লিঙ্গ ঘর্ষিত করতে চাইবে।[৩][৪] অনেক ক্ষেত্রে নারীরা এরূপ যৌন-আচরণে চরম পুলক লাভ করে থাকেন।[৫]

সমকামিতা এবং যৌন-বিকৃতি[সম্পাদনা]

যারা সমকাম করেন তাদের মধ্যেও এই ধরণের যৌনকর্ম দেখতে পাওয়া যায়, নারী সমকামীরাও অপর নারীর উরুতে হাত বুলিয়ে আনন্দ পেতে পারেন।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "interfemoral intercourse", Dictionary of Sexual Terms, Sex-Lexis.com.
  2. http://teacher.mg.co.za/cms/article_2004_08_10_0717.html
  3. http://teacher.mg.co.za/cms/article_2004_08_10_0717.html
  4. GUS
  5. Hite, Shere (২০০৪)। The Hite Report: A Nationwide Study of Female Sexuality। New York, NY: Seven Stories Press। পৃ: 277–284। আইএসবিএন 978-1-58322-569-1। সংগৃহীত ২ মার্চ ২০১২ 
  6. Dover, K. J. (১৯৭৮)। "The Prosecution of Timarkhus"Greek HomosexualityCambridge, Massachusetts: Harvard University Press। পৃ: ৯৮। আইএসবিএন 0674362616ওসিএলসি 3088711। সংগৃহীত ১০ ডিসেম্বর ২০১২