ইলিপার যুদ্ধ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইলিপার যুদ্ধ
মূল যুদ্ধ: দ্বিতীয় পিউনিক যুদ্ধ
Map
তারিখ২০৬ খ্রিস্টপূর্ব বসন্ত
অবস্থান
ইলিপার পূর্বে
(বর্তমান সেভিল, স্পেন)
৩৭°৩২′৫৬″ উত্তর ৫°৫৬′১১″ পশ্চিম / ৩৭.৫৪৮৮২৫° উত্তর ৫.৯৩৬৩৩২° পশ্চিম / 37.548825; -5.936332স্থানাঙ্ক: ৩৭°৩২′৫৬″ উত্তর ৫°৫৬′১১″ পশ্চিম / ৩৭.৫৪৮৮২৫° উত্তর ৫.৯৩৬৩৩২° পশ্চিম / 37.548825; -5.936332
ফলাফল রোমানদের নিষ্পত্তিমূলক বিজয়
বিবাদমান পক্ষ
রোমান প্রজাতন্ত্র কার্থেজ
সেনাধিপতি ও নেতৃত্ব প্রদানকারী
স্কিপিও আফ্রিকানুস মাগো বার্কা
হাসদ্রুবাল গিস্কো
শক্তি
পলিবিয়াস:
• ৪৮,০০০ সৈন্য
•• ৪৫,০০০ পদাতিক বাহিনী
•• ৩,০০০ অশ্বারোহী
লিভি:
• ৫৫,০০০ সৈন্য
পলিবিয়াস:
•৭৪,০০০ সৈন্য
•• ৭০,০০০ পদাতিক বাহিনী
•• ৪,০০০ অশ্বারোহী
• ৩২ সামরিক হস্তি
লিভি:
• ৫৪,৫০০ সৈন্য
•• ৫০,০০০ পদাতিক বাহিনী
•• ৪,৫০০ অশ্বারোহী
• অজ্ঞাত সংখ্যক হাতি
হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতি
৭,০০০ নিহত ৪৮,৫০০ নিহত বা ধৃত
ইলিপার যুদ্ধ স্পেন-এ অবস্থিত
ইলিপার যুদ্ধ
স্পেন-এ অবস্থান

অনেকের মতে ইলিপার যুদ্ধ হচ্ছে ২০৬ খ্রিস্টপূর্বে ২য় পিউনিক যুদ্ধের সময়, স্কিপিও আফ্রিকানুসের সবচেয়ে গৌরবোজ্জ্বল বিজয়।

যুদ্ধটি সম্ভবত সংঘটিত হয়েছিল স্পেনের সেভিয়ার অ্যালকালি দেল রিওর পূর্ব দিকে, এস্কিভেল গ্রামের নিকটবর্তী কার্থেজীয় শিবিরে।[১]

যদিও এটি ক্যানেতে হ্যানিবলের কৌশল হিসাবে ততটা চমকপ্রদ বলে মনে হয় না, তবে স্কিপিওর যুদ্ধপূর্ব কৌশল এবং তার বিপরীত ক্যানেই গঠনটি তার কৌশলগত দক্ষতার উৎকৃষ্ট উদাহরণ হিসাবে দাঁড়িয়েছে। এর মাধ্যমে তিনি চিরতরে আইবেরিয়া কার্থেজিনীয়দের দখলমুক্ত করে দিয়েছিলেন, ইতালি আক্রমণে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন এবং রৌপ্য ও জনশক্তি উভয় ক্ষেত্রেই বার্সা রাজবংশের সমৃদ্ধ ঘাঁটি ভেঙ্গে দিয়েছিলেন।

ভূমিকা[সম্পাদনা]

বাইকুলার যুদ্ধ এবং হাসদ্রুবল বার্সার বিদায়ের পরে, ২০৭ খ্রিস্টপূর্বের প্রথম দিকে হান্নোর নেতৃত্বে আইবেরিয়ায় আরও কার্থাজিনিয়ান সৈন্য মোতায়েন করা হয়েছিল। অতি শীঘ্রই মাগো বার্কা তার সাথে যোগ দিয়েছিলেন। তারা দুজন মিলে সেলটিবেরিয়ান ভাড়াটে সৈন্যদের অধিক পরিমাণে নিয়োগের মাধ্যমে একটি শক্তিশালী বাহিনী গড়ে তুলছিলেন। এদিকে, হাসদ্রুবল গিসকোও তার সেনাবাহিনীকে নিয়ে গ্যাডস থেকে আন্দালুসিয়ায় এসেছিলেন। ফলে স্কিপিও দুটি শক্তিশালী শত্রু বাহিনীর মুখোমুখি হয়েছিল, যার মধ্যে একটিকে আক্রমণ করলে অবশ্যই অন্যটি তার পিছনে পড়ে যেত।

সতর্ক পরিকল্পনার পরে, স্কিপিও প্রথমে মাগোকে আক্রমণ করার জন্য মার্কুস ইউনিয়ুস সিলানুসের অধীনে একটি সৈন্যবাহিনী প্রেরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। প্রচন্ড গতিতে অগ্রসর হওয়ার মাধ্যমে, সিলানুস যখন কার্থেজীয় শিবিরে আক্রমণ করলেন তখন প্রতিপক্ষ হতভম্ব হয়ে পড়েছিল, যার ফলস্বরূপ ম্যাগোর সেলটিবেরিয়ানস বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে এবং হ্যানো বন্দী যান।

এইভাবে হাসদ্রুবল একা পড়ে গেলেন স্কিপিওর শক্তিশালী বাহিনীর সামনে। তবে কার্থেজীয় সেনাধ্যক্ষ তাঁর সৈন্যবাহিনীকে দুর্গম শহরগুলির মধ্যে বিভক্ত করে দিয়ে যুদ্ধ এড়াতে সক্ষম হন। ২০৭ খ্রিস্টপূর্বে আইবেরিয়ান অভিযান আর কোনও উল্লেখযোগ্য ঘটনা ছাড়াই শেষ হয়েছিল।

যুদ্ধপূর্ব কৌশল[সম্পাদনা]

পরের বসন্তে, কার্থাজিনিয়ানরা তাদের আইবেরিয়ান দখল পুনরুদ্ধারের জন্য সর্বশেষ দুর্দান্ত প্রচেষ্টা শুরু করেছিল। ইলিপায় ম্যাগোর সাথে হাসদ্রুবল গিসকো যোগ দিয়েছিলেন, যার ফলস্বরূপ আনুমানিক ৫৪,০০০ থেকে ৭৪,০০০ সৈন্যের একটি বিরাট বাহিনী তৈরি হয়েছিল, যা স্কিপিওর ৪৮,০০০ সেনার চেয়ে যথেষ্ট বেশি। এসব সৈন্যদল প্রচুর স্পেনীয় মিত্রদের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছিল যারা রোমান সৈন্যদলের মতো পক্ক ছিল না। লিভির পরিসংখ্যানগুলিতে অবশ্য কার্থাজিনিয়ান সেনাবাহিনীতে ৫০,০০০ পদাতিক এবং ৪,৫০০ অশ্বারোহীর কথা উঠে এসেছে (যেখানে তিনি উল্লেখ করেছেন যে অন্যান্য উত্সগুলিতে সংখ্যাটি ৭০,০০০, যেমন পলিবিউয়াস ১১.২০ এ বলেছিলেন, তবে লিভি বিশ্বাস করেন যে এটি আরও কম সংখ্যক ছিল)। তিনি স্কিপিওর বাহিনীতে ৫৫,০০০ সৈন্যের কথা বলেছিলেন, তাই সম্ভাবনা থেকেই যায় স্কিপিও সামান্য ব্যবধানে কার্থাগিনিয়ানদের চেয়েও এগিয়ে ছিলেন।

রোমানদের আগমনের পরে, ম্যাগো তার নুমিডিয়ান সহযোগী ম্যাসিনিসা'র অধীনে তার বেশিরভাগ অশ্বারোহী নিয়ে রোমান শিবিরে সাহসী আক্রমণ চালিয়েছিলেন। যাহোক, স্কিপিও এটি জানতে পেরেছিলেন। তিনি গোপনে একটি পাহাড়ের পিছনে নিজের অশ্বারোহী বাহিনী প্রস্তুত রেখেছিলেন। যা কার্থাজিনিয়ানদের দ্বিধাবিভক্ত করেছিল এবং প্রচুর ক্ষয়ক্ষতিসহ ম্যাগোর বাহিনী পিছু হটেছিল।

পরের কয়েক দিন পরস্পরকে পর্যবেক্ষণ ও পরীক্ষণের মাধ্যমে কাটালেন এই দুই প্রতিপক্ষ। কেবল যখন কার্থাজিনিয়ানরা তাদের শিবির থেকে এগিয়ে যাবেন তখনই স্কিপিও তার সেনাবাহিনীকে এগিয়ে দেওয়ার জন্য সর্বদা প্রস্তুত ছিলেন। রোমান যুদ্ধকাঠামোতে সৈন্যরা সর্বদা কেন্দ্রে এবং ইবারিয়ানসরা উইং এ অবস্থান করে। সুতরাং হাসদ্রুবল এবং ম্যাগো বিশ্বাস করেছিলেন যে এবারও তাই করা হবে।

যুদ্ধ[সম্পাদনা]

কার্থাজিনিয়ানরা কমান্ডাররা এই ভ্রান্ত ধারণায় অন্ধভাবে অটল ছিলেন, স্কিপিও তার যাত্রা শুরু করলেন। প্রথমে তিনি সেনাবাহিনীকে দিবালোকের আগে খাওয়ানো এবং সশস্ত্র করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। এরপরে তাত্ক্ষণিকভাবে তিনি তার অশ্বারোহী এবং হালকা সেনা কার্থাজিনিয়ান ঘাঁটির বিরুদ্ধে পাঠিয়েছিলেন, পিছনে তার মূল বাহিনীর সাথে অগ্রসর হওয়ার সময়, সমস্তভাবেই কার্থাজিনিয়ান অবস্থানের সামনের দিকে। এই দিন তার সৈন্যদলগুলি উইং এ এবং কেন্দ্রে ইবেরিয়ানস দাঁড়িয়ে ছিল।

রোমানদের আকস্মিক আক্রমণে অবাক হয়ে কার্থাজিনিয়ানরা সকালের নাস্তা না করেই ছুটে এসে সশস্ত্র হলেন। তবুও এটা বিশ্বাস করে যে স্কিপিও আগের মতো করেই তার বাহিনীকে সাজিয়ে তুলবেন, হাসদ্রুবল তার অধিকতর পারদর্শী আফ্রিকানদের কেন্দ্রে এবং স্পেনীয় ভাড়াটেদের উইং এ মোতায়েন করেছিলেন। নতুন রোমান যুদ্ধকাঠামো আবিষ্কার করার পরে তিনি কাঠামো পরিবর্তন করতে সক্ষম হন নি কারণ বিরোধী সেনাবাহিনী খুব কাছে ছিল। আর স্কিপিও তার সৈন্যদের কার্থাজিনিয়ান শিবিরের কাছাকাছি যুদ্ধের জন্য অবস্থানের নির্দেশ দিয়েছিলেন।

পরের কয়েক ঘণ্টা স্কিপিও তাঁর পদাতিক বাহিনীকে হালকা সৈন্যবাহিনীর পিছনে ধরে রাখেন এবং এভাবে তার শত্রুবাহিনীর প্রাতঃরাশ না করতে পারার প্রভাবকে আরও বিস্তর করে তোলেন। অবশেষে যখন তিনি আক্রমণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, হালকা সৈন্যদের ম্যানিপলসের মধ্যবর্তী স্থানের মধ্য দিয়ে ফিরে আসতে বলা হয়েছিল, যাতে তারা সামরিক বাহিনীর ডানাগুলির পিছনে অবস্থান করে; তারপরে মূল অগ্রযাত্রা শুরু হয়েছিল। উইং তার কেন্দ্রের ইবেরিয়ানদের চেয়ে দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছিল, স্কিপিও একটি অবতল গঠন করেছিলেন, বা বিপরীত ক্যানেই, যুদ্ধের রেখা তৈরি করেছিলেন। তদ্ব্যতীত, রোমান জেনারেল হালকা বাহিনীকে সামনের দিকে আদেশ দিয়ে তার উইংগুলো প্রসারিত করেছিলেন, এবং অশ্বারোহী হালকা সৈন্যদের প্রান্তে পাঠিয়েছিলেন। এভাবে উভয় পক্ষের পুরো কার্থাজিনিয়ান লাইনটি খামের মত করা হয়েছিল।

স্কিপিওর সৈন্যদল, হালকা বাহিনী এবং অশ্বারোহী যথাক্রমে সামনের, পাশে এবং পিছন থেকে কার্থাজিনিয়ান উইংগুলোতে অর্ধ প্রশিক্ষিত স্পেনিয়ারদের আক্রমণ করেছিল।

আইবারিয়ান বাহিনী  খুব কাছাকাছি দূরত্বে বিশাল আকার ধারণ করেছিল কিন্তু এখনও আক্রমণ করে নি। তাদের শঙ্কায় কার্বাজিনিয়ান কেন্দ্রটি অসহায় হয়ে পড়েছিল নিজেদের উইং পুনরায় গঠন করতে।

উইংগুলোর অনিবার্য ধ্বংসের পাশাপাশি, কার্থাজিনিয়ান কেন্দ্রটি তাদের নিজস্ব পাগলা হাতি দ্বারা পদদলিত হয়ে আরও মন্থর এবং বিভ্রান্ত হয়েছিল। সেগুলি রোমান অশ্বারোহীরা পার্শ্বগুলিতে আক্রমণ করে কেন্দ্রের দিকে চালিত করেছিল। ক্ষুধা ও ক্লান্তির সাথে একত্রিত হয়ে, কার্থাজিনিয়ানরা প্রথমে সুশৃঙ্খলভাবে ফিরে আসতে শুরু করে। তবে স্কিপিও এখন তার আইবেরিয়ান কেন্দ্রকে যুদ্ধের আদেশ দিয়ে নিজের সুবিধা আরও বাড়ালেন। কার্থাজিনিয়ানরা ভেঙে পড়েছিল, এবং এমন একটি ধ্বংসযজ্ঞের ঘটনা যা ক্যানেইতে একেবারে পুরোদমে চলতে শুরু করল, হঠাৎ বৃষ্টিপাতের ফলে তা কেবল এড়ানো হয়েছিল। এটি ময়দানের সমস্ত কর্মকাণ্ড থামিয়ে দিল এবং অবশিষ্ট কার্থাজিনিয়ানদের তাদের শিবিরে আশ্রয় নিতে সক্ষম করলো।

যুদ্ধ-পরবর্তী কৌশল[সম্পাদনা]

তাদের শিবিরে অস্থায়ীভাবে নিরাপদ থাকলেও, কার্থাজিনিয়ানরা বিশ্রাম নিতে সক্ষম হয়নি। পরদিন সকালে অনিবার্য রোমানদের আক্রমণের কারণে তারা তাদের প্রতিরক্ষা শক্তিশালী করতে বাধ্য হয়েছিল। কিন্তু, যতই স্পেনীয় ভাড়াটে সৈন্যরা রাত্রি ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে কার্থাজিনিয়ানদের বিতাড়িত করল, হাসদ্রুবল অন্ধকারে তাঁর অবশিষ্ট লোকদের নিয়ে সরে যাওয়ার চেষ্টা করলেন।

স্কিপিও তত্ক্ষণাত্ তাড়া করার আদেশ দিলেন। অশ্বারোহীদের নেতৃত্বে, পুরো রোমান সেনাবাহিনী হাসদ্রুবলের পেছনে লেগে গেল। অবশেষে যখন তাকে ধরা হলো, হত্যাযজ্ঞ শুরু হয়ে গিয়েছিল। হাসদ্রুবাল এর সাথে মাত্র ৬,০০০ জন লোক ছিল, যারা তখন কোনও জল সরবরাহ ছাড়াই একটি পর্বতের শীর্ষে পালিয়ে গিয়েছিল। কার্থাজিনিয়ান সেনাবাহিনীর এই অবশিষ্টাংশ অল্প সময় পরে আত্মসমর্পণ করেছিল। তবে হাসদ্রুবল এবং ম্যাগো তার আগে পালিয়ে যেতে সক্ষম হন।

পরিণতি[সম্পাদনা]

যুদ্ধের পরে, হাশদ্রুবল গিসকো শক্তিশালী নুমিডিয়ান রাজা সিফ্যাক্সের সাথে দেখা করতে আফ্রিকা চলে গেলেন। যার দরবারে তাঁর সাথে স্কিপিওর দেখা হয়েছিল, তিনিও নুমিডিয়ানদের পক্ষে ছিলেন।

মাগো বার্সা পালিয়ে গেলেন বলিয়ারিক্সে, সেখান থেকে তিনি লিগুরিয়ায় যাত্রা করে উত্তর ইতালি আক্রমণ করার চেষ্টা করেছিলেন।

কার্থাজিনিয়ান আইবেরিয়ার চূড়ান্ত পরাধীনতার পরে এবং আইবেরিয়ান সর্দারদের উপর প্রতিশোধ নেওয়ার পরে, যার বিশ্বাসঘাতকতা তার পিতা এবং চাচাকে মৃত্যুর দিকে পরিচালিত করেছিল, স্কিপিও ফিরে গেলেন রোমে। তিনি প্রায় সর্বসম্মত মনোনয়নের সাথে খ্রিস্টপূর্ব ২০৫ সালে কাউন্সেল নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবং সিনেটের সম্মতি পাওয়ার পরে,প্রোকনসুল হিসাবে তাঁর সিসিলির নিয়ন্ত্রণ ছিল। সেখান থেকে তার কার্থাজিনিয়ান স্বদেশে আক্রমণটি উপলব্ধি করা যায়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Search for the Battle-site of Ilipa: Back to Basics"www.academia.edu। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-০৯